মালয়েশিয়ায় ল’কডা’উনের পর শপিংমল খুলে আঁত’কে উ’ঠলেন মালিক ।

করো’নার থা’বা গ্রা’স করেছে গোটা বিশ্বকে। প্রায় সারা পৃথিবী জু’ড়েই এখন চলছে ল’কডা’উন। আর এর ফলে ব’ন্ধ দোকানপা’ট, কল কারখা’না, শপিংমল-সবকিছুই।ফলে দী’র্ঘদিন ধ’রে ব’ন্ধ থাকায় মলগু'লোর অবস্থা শো’চনীয়। একদিকে ব্যবসা লা’টে উ’ঠছে। অন্যদিকে ন’ষ্ট হয়ে যাচ্ছে মলের ভিতরে থাকা জিনিসপত্রও।

যেমন দেখা গেল মালয়েশিয়ার এই মলে। ৫০ দিন পর যখন শপিং মলটি খুললো তখন তার ভিতরের অবস্থা দেখে চ’মকে ওঠার মতো। চামড়ার সামগ্রী বি’ক্রি 'হত এই শপিংমলে। কিন্তু দী’র্ঘদিন ব’ন্ধ থাকার ফলে জ’লীয়বা’ষ্প জমে ছাতা প’ড়ে গিয়েছে সম’স্ত নতুন সামগ্রীর উপরেই।

আরো পড়ুন>>>

মালয়েশিয়া থেকে ম’রদে'হ সহ দেশে ফি’রছে ১৫৮ বাংলাদেশি

চিকিৎসা, উচ্চশিক্ষা, ব্যবসায়িক কাজে গিয়ে ল’কডা’উনে মালয়শিয়ায় আ’টকা প’ড়ে থাকা ১৫৮ জন বাংলাদেশি বুধবার দেশে ফি’রছেন।করো’না ম’হা'মা’রী চলাকা’লীন সময়ে মালয়েশিয়াতে আ’টকে প’ড়া বাংলাদেশিদের এটিই প্রথম উদ্যো’গ। একটি মৃ'’তদে'হসহ ১৫৮ জন বাংলাদেশিকে নিয়ে বিমানটি বুধবার সকাল সাড়ে ১১টায় বাংলাদেশে পৌঁ’ছবে।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশ হাই কমি’শন এবং বেসাম’রিক বিমান চ’লাচল কর্তৃপ’ক্ষের সহায়’তায় গ্রীন ডেল্টা ইনসুরেন্সের সহযো’গী প্রতিষ্ঠান-জিডি অ্যাসিস্ট এই উ’দ্যোগ নিয়েছে।

জিডি অ্যাসিস্টের ব্যবস্থা’পনা পরিচালক সৈয়দ মঈনউদ্দীন আহমেদ বলেন, ‘জিডি অ্যাসিস্ট গ’র্বিত যে এই ক’রো'না-বিড়ম্বনা’র সময়কা’লে আ’টকা থাকা বাংলাদেশিদের দেশে ফি’রিয়ে আনায় তাদের প্রচে’ষ্টা চা’লিয়ে যেতে স’ক্ষম হয়েছে।’

তিনি বলেন, আ’টকা প’ড়া বাংলাদেশিদের ফি’রিয়ে আন’তে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপ’ক্ষে’র অনুমো’দনের পরে জিডি অ্যাসিস্ট কুয়ালালামপুরের দুটি বি’খ্যাত হাসপাতালে সম’স্ত যাত্রীদের ক’ভিড-১৯ স্ক্রিনিং পরী’ক্ষা করার ব্যবস্থা করেছিল।