গর্ভের মধ্যে শি’শুরা লাথি মা’রে কেন জানেন? এর পিছনে রয়েছে চমৎকার কিছু তথ্য…

জিজ্ঞাসা করুন সেই মাকে, যাকে তার বাচ্চা গর্ভাবস্থায় পেটের ভেতরে লাথি মা’রে ? সেই মায়ের কিন্তু উত্তর হবে “আমা’র বাচ্চা পেটে থাকাকালীন আমাকে লাথি মা’রতো না সে শুধু চেষ্টা করতো পেটের মধ্যে একটু জায়গা করে নিয়ে যদি আমাকে আলিঙ্গন করতে পারে ।” সত্যি অভূতপূর্ব অনুভূতি । পেটে থাকাকালীন আপনার শি’শুর প্রথম লা’ঠিটি খাওয়া মাত্রই আপনি অনুভব করবেন যে আপনি পৌঁছে গেছেন মাতৃত্ব নামক জীবনের সেরা সন্ধিক্ষণে ।

এই ৯ মাসের সময়টির অনুভূতি ও অ’ভিজ্ঞতা কোন শব্দেই বর্ননা করা যায় না এবং এই সময়ে শি’শুটির প্রত্যেকটি কার্যকলাপ আপনাকে উৎসুক করে তোলে এই চিন্তায় যে বাচ্চাটি কি করতে চাইছে সেই ভেবে । শি’শু কিভাবে লাথি মা’রছে পেটের ভেতরে, কতবার লাথি মা’রছে বা লাথি মা’রছেনা বাই কেন ? প্রত্যেকটি ছোট ছোট ব্যাপার মায়ের মনে বিরাট ভাবে দাগ কে’টে যায় ।

আর তা কেনই বা হবে না মায়ের সম্পূর্ণ অধিকার আছে তার গর্ভজাত সন্তানের প্রতিটি কার্যকলাপ জানার । আম’রা আজ দেখাব গর্ভাবস্থায় শি’শুর লাথি মা’রার বিষয়ে কিছু অ’বাক করা তথ্য সমূহ । ১) গর্ভাবস্থায় শি’শুর লাথি মা’রার অর্থ শি’শুটি সঠিক আছে এবং তার বৃদ্ধিও হচ্ছে । এমন কথা শোনা যায় যে মায়ের পেটে শি’শুর লাথি মা’রার অর্থ শি’শুর সুস্বাস্থ্যর লক্ষণ । এছাড়াও এর দ্বারা শি’শুটির ব্যাস্ততার লক্ষণও ফুটে ওঠে ।

২) শি’শুটি তার নড়াচড়ার মাধ্যমে ভৌগলিকগত পরিবর্তনের প্রতিক্রিয়া দিতে থাকে । বাচ্চারা প্রতিক্রিয়া দেয় সঙ্গে সঙ্গে যখন তারা মাতৃগর্ভের বাইরে থেকেও কোন আওয়াজ বা শব্দ পায় । ৩) যখন আপনি বাম দিকে ফিরে শুয়ে থাকেন সেই সময় শি’শুরা অধিক পরিমাণে লাথি মা’রে । যখন আপনি বাম কাৎ হয়ে শুয়ে থাকেন সেই সময় শি’শুরা অধিক পরিমাণে লাথি মা’রে এর কারন হিসাবে বলা যায় এই সময়ে শি’শুটির শরীরে র’ক্তসঞ্চালন অধিক পরিমাণে হয় আর তার ফলেই বাচ্চাটির শরীরের নড়াচড়াও অধিক পরিমাণে বৃদ্ধি পায় ।

৪) মা যেকোন ভারী খাবার গ্রহণ করার পর তার শি’শুর লাথি মা’রার প্রবণতা বেড়ে যায় । সন্তানসম্ভবা মায়েরা লাঞ্চ বা ডিনারের পরে অধিক মাত্রায় শি’শুর লাথি মা’রার প্রবণতা অনুভব করেন । ৫) গর্ভাবস্থায় শি’শুর লাথি মা’রার প্রবণতা লক্ষ্য করা যায় ৯ সপ্তাহের পর থেকে । ঘটনাক্রমে জানতে পারা যায় শি’শুরা গর্ভাবস্থায় লাথি মা’রা শুরু করে যখন তার ৯ সপ্তাহ সম্পূর্ণ হয় এবং যেসকল মায়েরা তাদের দ্বিতীয় সন্তানের প্রত্যাশা করছেন তাদের ক্ষেত্রে এই সময়টি ১৩ সপ্তাহ পর থেকে আসা শুরু হয় ।

৬) কম সংখ্যক লাথি চলা সন্তানের অ’পুষ্টি ও অলসতার কারন হিসাবে ধরে নেওয়া হয় । শি’শুর স্বল্প নড়াচড়া তার স্বাস্থ্য স’ম্পর্কে চিন্তার বার্তা বহন করে । আপনার সন্তানের যদি স্বাভাবিকের থেকে কম নড়াচড়া লক্ষ্য করা যায় সেই ক্ষেত্রে ধরে নেওয়া যায় শি’শুটির অক্সিজেনের জোগানের অভাব হচ্ছে । ৭) কিন্তু ৩৬ সপ্তাহের পরে শি’শুর কম পরিমাণে লাথি মা’রাকে চিন্তার লক্ষণ বলে ধ’রা হয় না । ৩৬ সপ্তাহ পর বাচ্চা কম পরিমাণে লাথি মা’রলে চিন্তায় পরবেন না । আপনার কাছে যদি আমাদের দেওয়া উপরিউক্ত তথ্যগু’লি নতুন বলে মনে হয় তাহলে অবশ্যই আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করে তাদেরও দেখতে সহায়তা করুন ॥