প্রধানমন্ত্রীর সাথে ভারত সফরে যাওয়ার ১ দিন আগে দুঃসংবাদ পেল মাশরাফি

বিশ্বকাপ শেষ হয়েছে প্রায় চার মাস। বলতে গেলে তখন থেকেই ক্রিকেটের সঙ্গে কোনো ধরনের সম্পৃক্ততা নেই বাংলাদেশ দলের ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফী বিন মোর্ত্তজার। এদিকে আর দিন বিশেক পরই শুরু হতে যাচ্ছে দেশের সবচেয়ে আকর্ষণীয় ঘরোয়া টি-টোয়েন্টি আসর বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল)। এর আগে নিজেকে ঝালিয়ে নিতে ব্যক্তিগতভাবে অনুশীলন শুরু করেছিলেন মাশরাফী। তবে তার শুরুতেই পড়েছেন ইনজুরিতে।

গত রোববার মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামের একাডেমি মাঠে অনুশীলন করার সময় কুঁচকিতে ব্যথা পান মাশরাফী। তবে বোলিংয়ে নয়, ব্যথাটা পেয়েছেন ব্যাটিং করার সময়। বোলিং মেশিনে ব্যাট করছিলেন মাশরাফী। এ সময় একটি বল এসে গায়ে লাগলে ব্যথায় কুঁকড়ে যান তিনি। এরপর আর অনুশীলন করেননি।

প্রাথমিকভাবে মাশরাফী দেখিয়েছেন ফিজিওকে। তবে এখনও কোনো চিকিৎসকের শরণাপন্ন হননি তিনি। শুধু যে কুঁচকির ইনজুরি সমস্যা করছে তাও নয়, সোমবার সকাল থেকে রয়েছে কোমরে ব্যথাও। তবে বিসিবির প্রধান চিকিৎসক দেবাশীষ চৌধুরী জানিয়েছেন, গুরুতর নয় মাশরাফীর ইনজুরি। কিছু দিন বিশ্রাম নিলেই এই পেসার সেরে উঠবেন বলে মঙ্গলবার (১৯ নভেম্বর) জানিয়েছেন তিনি,

‘অনুশীলনের সময় সে (মাশরাফী) ব্যথা পেয়েছে। আমাদের ফিজিও দেখেছে। আমি এখনও দেখতে পারিনি। আজকে আসার কথা ছিল। তবে ফিজিও যেটা বলেছে, খুব গুরুতর কিছু নয়। কয়েকদিন বিশ্রাম নিলেই ঠিক হয়ে যাবে।’ ইনজুরির কথা নিশ্চিত করেছেন মাশরাফীও, ‘হ্যাঁ, অনুশীলন শুরু করেছিলাম। তবে একটু ব্যাথা পেয়েছি। মনে হয়, তেমন (গুরুতর) কিছু না। কিছু দিন বিশ্রাম নিলেই ঠিক হয়ে যাবে। ডাক্তার দেখানো হয়নি।

তবে সমস্যা হলো আবার কোমরেও অনেক ব্যথা হচ্ছে। দেখি কী হয়। ঠিক মতো তো হাঁটতেও পারছি না। আপাতত তাই অনুশীলনও বন্ধ। ভারত থেকে ফিরে আসার পর আবার শুরু করব।’ তাই সবমিলিয়ে আপাতত পূর্ণ বিশ্রামে রয়েছেন মাশরাফী। তবে সেটারও খুব বেশি সুযোগ নেই। কারণ আগামীকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় তিনি উড়ে যাচ্ছেন ভারতে। মাশরাফীর ঘনিষ্ঠ এক সূত্র থেকে জানা গিয়েছে, পরদিন ইডেন গার্ডেন্সে বাংলাদেশ-ভারতের মধ্যকার ঐতিহাসিক দিবা-রাত্রির টেস্টের প্রথম দিনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে উপস্থিত থাকবেন তিনি।