যে ছেলেগুলোর মন সুন্দর ও পরিষ্কার হয়, এবং তারা কেয়ারিং হাজব্যান্ড ও হয় জানালেন গবেষণা ।

আমাদের দৈনন্দিন জীবনে বিভিন্ন জায়গায় চলতে এবং কর্ম ক্ষেত্রে প্রচুর মানুষের সাথে আমাদের মেলামেশা হয়। মানুষের শারীরিক গঠন মূলক দিক থেকে মানুষের চরিত্র বোঝা যায়। অনেকদিন বাঁচতে চান? ভুঁড়িওয়ালাদের কথা শুনুন, তাঁর সঙ্গে সময় কাটান। নিজের হৃদয় ও হৃৎযন্ত্রকে সুস্থ রাখার মোক্ষম দাওয়াই- ভুঁড়িওয়ালা জীবনসঙ্গীকে বেছে নেওয়া। গবেষকেদের পরামর্শ হচ্ছে, সময় বের করে নিয়ে ভুঁড়িওয়ালা ছেলেদের সঙ্গে কথা বলুন।পারলে তাদের সাথে প্রেম করুন।

অফিস, ক্লাস, বাইরে থেকে ফিরে ক্লান্ত হয়ে পড়লেও কিংবা অবসন্ন হয়ে বিছানায় যেতে মন ছটফট করলেও ভুঁড়িওয়ালাদের সঙ্গে সময় কাটান, ইতিবাচক আলোচনা করুন। ভুঁড়িওয়ালাদের সঙ্গে কথাবার্তা আপনার মনকদ সুস্থতা নিশ্চিত করবে।তাদের মন সুন্দর হয়।তারা স্বামী হিসেবে দারুন হয়।তারাই হাউজব্যান্ড ম্যাটেরিয়াল! মার্কিন গবেষকেরা সাম্প্রতিক এক গবেষণায় দেখেছেন যে, ভুঁড়িওয়ালা ছেলেদের সঙ্গে ইতিবাচক কথাবার্তায় দেহ সুস্থ থাকে।

গবেষকেরা এই গবেষণার জন্য ২৮১ জন মধ্যবয়সী দম্পতির তথ্য বিশ্লেষণ করেছেন। গবেষকেরা দাবি করেছেন, আবেগ, শারীরিক সম্পর্ক প্রভৃতি বিষয়গুলোর সঙ্গে অন্তরঙ্গভাবে জড়িত থাকে ইতিবাচক কথাবার্তা । এ বিষয়গুলো স্বাস্থ্যের ওপর গুরুত্বপূর্ণ প্রভাব ফেলে। গবেষণার ফল প্রকাশিত হয়েছে লাইভ সায়েন্স সাময়িকীতে। গবেষক জোসেফ দাবি অবশ্য বলেছেন, পুরু ক্যারোটিড অ্যার্টেরিসের সঙ্গে ইতিবাচক সম্পর্কের যোগসূত্র থাকতে পারে। অবশ্য এটি কার্যকারণ জাতীয় কোনো সম্পর্ক নয়।