গৃহবধূর সংসার যেভাবে তছনছ করে দিলেন আওয়ামী লীগ নেতা ।

গৃহবধূকে ধ’র্ষণ করে স্বামীর কাছে অ’শ্লীল ছবি পাঠানোর অ’ভিযোগে এক আওয়ামী লীগ নেতাকে গ্রে’ফতার করেছে পুলিশ। শুক্রবার (১৫ নভেম্বর) রাতে অ’ভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে।গ্রেফতার কামাল সানা (৩৪) সাতক্ষীরার তালা উপজেলার জালালপুর ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও দোহার গ্রামের ফাজেল সানার ছেলে।

একই গ্রামের বাসিন্দা ধ’র্ষণের শিকার গৃহবধূর (২৫) ভাষ্য, কর্মক্ষেত্র যশোর হওয়ায় সেখানে থাকে স্বামী। আওয়ামী লীগ নেতা কামাল সানা আমার স্বামীর পূর্বপরিচিত। সেই সুবাদে আমাদের বাড়িতে যাতায়াত ছিল কামালের। এরই মধ্যে আমাকে কু’প্রস্তাব দেয় কামাল। গত ৫ অক্টোবর আমাকে ডেকে নিয়ে জ’ড়িয়ে ধরে মোবাইলে আ’পত্তিকর ছবি তোলে সে।

ঘটনাটি কাউকে জানালে আপ’ত্তিকর ছবি ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেয়ার হু’মকি দেয়। সেই সঙ্গে ওই ছবি ফেসবুকে ছেড়ে দেয়ার হু’মকি দিয়ে গত ১৫ অক্টোবর আমাকে ধ’র্ষণ করে কামাল। ধ’র্ষণের কথা কাউকে না জানানোর ভ’য় দেখানো হয়। গত বুধবার (১৩ নভেম্বর) আপ’ত্তিকর ছবি আমার স্বামীর কাছে পাঠায় সে। এতে আমার সুখের সংসার ত’ছনছ হয়ে যায়।

এ বিষয়ে জালালপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি রবিউল ইসলাম মুক্তি বলেন, ঘটনাটি শুনেছি। ঘটনার সত্যতা পাওয়া গেলে দল থেকে কামাল সানাকে বহি’ষ্কার করা হবে।তালা থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মেহেদী হাসান রাসেল জাগো নিউজকে বলেন, ধ’র্ষণের ঘটনায় মা’মলা করেছেন গৃহবধূ। ওই মামলায় আওয়ামী লীগ নেতা কামাল সানাকে গ্রে’ফতার করা হয়েছে। তার বিরু’দ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।