১৫ বছর পর দেশের বাজারে আসছে পাকিস্তানের পেঁয়াজ ।

১৪০ থেকে ১৫০ টাকা দামে প্রতি কেজি পেঁয়াজ বি’ক্রি হচ্ছে দেশের বাজারে। ২০১৩ সালের পর এটিই পেঁয়াজের সর্বোচ্চ দাম। বাজার নি’য়ন্ত্রণ করতে তু’রস্ক, মি’য়ানমার ও মি’শর থেকে পেঁয়াজ আ’মদানি করছে বাংলাদেশের ব্য’বসায়িরা। নতুন বাজারের স’ন্ধানে পাকিস্তানি পেঁয়াজও শি’গগির ঢাকায় আসছে। এরকম একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে পাকিস্তানি সংবাদমা’ধ্যম দ্য নিউজ ইন্টারন্যাশনাল।

গত শুক্রবার (৮ নভেম্বর) পাকিস্তানি একটি প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশে ৩০০ মেট্রিক টন পেঁয়াজ র’প্তানির আ’দেশ পেয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন দেশটির বাণিজ্য উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (টিডিএপি) এক ক’র্মক’তা টিডিএপি’র ওই ক’র্মক’র্তার বরাত দিয়ে সংবাদমা’ধ্যমটি জানায়, করাচি-ভিত্তিক প্রতিষ্ঠান রোশান এন্টারপ্রাইজের স’ঙ্গে বাংলাদেশের তাশো এন্টারপ্রাইজের মধ্যে পেঁয়াজ আমদানি-র’প্তানি বিষয়ক একটি চু’ক্তি হয়েছে।

চু’ক্তি মোতাবেক প্রতি টন চালান ৬০০ ডলার মূল্যে পাকিস্তান থেকে পেঁয়াজ আমদানি করবে বাংলাদেশ। ওই ক’র্মক’র্তা আরও জানান, ভারত বাংলাদেশে পেঁয়াজ র’প্তানি ব’ন্ধ করে দেয়ায় পাকিস্তানের সামনে বাণিজ্য বৃ’দ্ধির একটি বড় সু’যোগ তৈরি হয়েছে। এ বিষয়ে দুই দেশের ম’ধ্যে সরকার প’র্যায়ে আলোচনা করতেও তারা প্রস্তু’ত রয়েছেন। বাংলাদেশ-পাকিস্তানের মধ্যে যৌথ বাণিজ্য কমিশনের (জেইসি) সবশেষ বৈঠক হয়েছিল ২০০৫ সালে।