অবশেষে যে ভুলে সব কিছু খুলে দেয়ার সিদ্ধান্ত বাতিল হতে পারে

করো'নাভাইরাসের মহা'মা'রির এ সময়ে সব কিছু খুলে দেয়ার সি'দ্ধান্ত বাতিল করে কমপক্ষে আগামী ৩০ দিন কঠোর লকডাউন কার্যকর করতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন বাংলাদেশের বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক। তিনি বলেছেন, ‘সর্বাত্মক লকডাউন বলবত করতে সরকার যত দেরি করবে, পরিস্থিতি ততই নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাব'ে। লকডাউন কার্যকর করতে সামর'িক বাহিনীসহ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে প্রয়োজনীয় ক্ষমতা ও এখতিয়ার দিয়ে দ্রুত

পদ'ক্ষেপ নেয়া জরুরি হয়ে পড়েছে। একইস''ঙ্গে সামর'িক বাহিনীসহ রাষ্ট্রীয় বাহিনী ও সংস্থাসমূহের মাধ্যমে লকডাউন ফলপ্রসূ করতে আগামী ৩০ দিনের জন্য দেশের সকল শ্রমজীবী-দিনমজুর ও অভাবী পরিবারসমূহের কাছে প্রয়োজনীয় খাদ্যসামগ্রী পৌঁছানোও নিশ্চিত করতে হবে।’ সোমবার (১ জুন) পার্টির ঢাকা বিভাগীয় জে'লাসমূহের সভাপতি ও সম্পাদকদের স''ঙ্গে অনলাইন মিটিংকালে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘করো'না ম’হা'মা’রির বিপ’জ্জ’নক সংক্রমণ ও মৃ'’ত্যু’র সময় বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থা এবং দেশে করো'না সংক্রা'ন্ত পরামর'্শকদের মতামত-পরামর'্শকে পাত্তা না দিয়ে বাস্তবে সব কিছু খুলে দিয়ে সরকার একদিকে চূড়ান্ত দায়িত্বহীনতার পরিচয় দিয়েছে। অন্যদিকে, দেশের মানুষকে ব্যাপক সামাজিক সংক্রমণ আর মৃ'’ত্যু’র ঝুঁকির দিকে ঠেলে দিয়েছে। জনগণের প্রতি দায়িত্ববোধ না থাকায় এবং কোনো পর্যায়ে সরকারের জবাবদিহিতা না থাকায় তারা একের পর এক স্বেচ্ছাচারী পদ'ক্ষেপ গ্রহণ করে চলেছে।’ তিনি ক্ষোভের স''ঙ্গে উল্লেখ করেন, গণপরিবহন চালু হওয়ার পর বাস, ট্রেন ও লঞ্চে শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখার

কোনো বালাই নেই। এই পরিস্থিতি করো'না সংক্রমণ আরও দ্রুত গতিতে ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা তৈরি করেছে। পার্টির এই অনলাইন মিটিংয়ে অংশ নেন- ময়মনসিংহের মো. শাজাহান, নেত্রকোনার সজীব সরকার রতন, কিশোরগঞ্জের নজরুল ইসলাম শাজাহান, টা''ঙ্গাইলের সাইফুদ্দীন তালুকদার, নরসিংদীর খলিলুর রহমান, মুন্সিগঞ্জের শেখ মো. শিমুল, ঢাকা জে'লার সেকেন্দার হোসেন, মানিকগঞ্জের রফিকুল ইসলাম অ'ভি, নারায়ণগঞ্জের আবু হাসান টিপু, ঢাকা মহানগরের আকবর খান প্রমুখ।