আজ পবিত্র আখেরি চাহার শোম্বা

আজ পবিত্র আখেরি চাহার শোম্বা । হিজরি সালের সফর মাসের শেষ বুধবার মুসলিম বিশ্বে আখেরি চাহার শোম্বা পালিত হয় অত্যন্ত মর্যাদাপূর্ণ স্মারক দিবস হিসেবে। ইসলামের সর্বশেষ ও সর্বশ্রেষ্ঠ মহানবী হজরত মুহাম্মদ (সা.)-এর জীবনে আখেরি চাহার শোম্বা বিশেষভাবে উল্লেখযোগ্য।

নবী করিম (সা.) ইন্তেকালের আগে এদিনে অনেকটা সুস্থতা বোধ করেছিলেন। ফারসিতে এ দিনটিকে আখেরি চাহার শোম্বা নামে অভিহিত করা হয়। ফারসি শব্দমালা আখেরি চাহার শোম্বা অর্থ শেষ চতুর্থ বুধবার। রাসুলুল্লাহ (সা.) জীবনে শেষবারের মতো রোগমুক্তি লাভ করেন বলে দিনটিকে মুসলমানেরা প্রতিবছর ‘শুকরিয়া

দিবস’ হিসেবে পালন করেন। তারা নফল ইবাদত-বন্দেগির মাধ্যমে দিবসটি অতিবাহিত করেন। তাই উম্মতে মুহাম্মদীর আধ্যাত্মিক জীবনে আখেরি চাহার শোম্বার গুরুত্ব ও মহিমা অপরিসীম। আজ যথাযোগ্য ধর্মীয় মর্যাদা ও ভাবগাম্ভীর্য পরিবেশে পবিত্র আখেরি চাহার শোম্বা উদযাপিত হবে। ইসলামিক ফাউন্ডেশন বুধবার বাদ যোহর বায়তুল মুকাররম জাতীয় মসজিদে ওয়াজ ও

মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করেছে। মাহফিলে ওয়াজ পেশ করবেন ঢাকা পূর্ব রাজাবাজার জামে মসজিদের খতীব মুফতি মাওলানা মাহবুবুর রহমান। এতে সভাপতিত্ব করবেন ইসলামিক ফাউন্ডেশনের সচিব কাজী নূরুল ইসলাম।

আরো পড়ুন… রংপুরের পীরগাছা সড়কে দুই পাশজুড়ে দাঁড়িয়ে আছে সারি সারি গাছ। সবুজের সমারোহে ভরা এই সড়কে চলার পথে একটু ব্যতিক্রম সৈয়দপুর বাজারটি। এই বাজারের কাছ থেকে সড়কের দুই পাশের গাছে গাছে শোভা পাচ্ছে আল্লাহ তায়ালার জিকির।

প্রায় দুই কিলোমিটার পর্যন্ত অন্তত সহস্রাধিক গাছে মহান সৃষ্টিকর্তার গুণবাচক জিকির সম্বলিত কাগজ সাঁটানো রয়েছে। সাদা কাগজে কালো কালিতে লেখা গাছে পেরেক ঠুকে সাঁটানো রয়েছে- বিসমিল্লাহ, লা ইলাহা ইল্লাল্লাহ, সুবহানাল্লাহ, আল্লাহু আকবার, আলহামদুলিল্লাহ ও ফিআমানিল্লাহসহ আল্লাহতায়ালার গুণবাচক একাধিক নাম।

সৈয়দপুর বাজার থেকে কদমতলা মোড় পর্যন্ত যেন গাছে গাছে চলছে আল্লাহতায়ালার মহিমাময় নামের জিকির। যা খুব সহজেই পাথচারীর নজর কাড়ে। গাছে সাঁটানো এ ধরণের লেখা সাধারণ মানুষের নজর সহজেই কাড়ছে। আকর্ষণ বাড়িয়েছে পথচারীদেরও। আর ধর্মপ্রাণ মানুষজন খুশি এমন মহৎ ও ব্যতিক্রমি উদ্যোগের।

স্থানীয়দের দাবি রংপুর-পীরগাছা ও রংপুর-সুন্দরগঞ্জ সড়কটির সৈয়দপুর বাজার থেকে কদমতলা মোড় পর্যন্ত প্রায়ই দুর্ঘটনা ঘটত। আল্লাহতায়ালা জিকির সম্বলিত এসব পোস্টার সাঁটানোর পর থেকে এখন এই সড়কে দুর্ঘটনার হিড়িক নেই। স্থানীয় সাংবাদিক আমিনুল ইসলাম জুয়েল জানান, সৈয়দপুর বাজার হতে কদমতলা মোড় পর্যন্ত আগে প্রায়ই ছোট-বড় দুর্ঘটনা ঘটত।

তবে গত তিন মাস ধরে কোনো সড়ক দুর্ঘটনা ঘটেনি। এ কারণে অনেকে মনে করেন, আল্লাহতায়ালার জিকির সম্বলিত পোস্টারগুলো গাছে লাগানোর পর থেকে দুর্ঘটনা কমে এসেছে।’