ইসকন এর কা’র্যক্র’ম ব’ন্ধের দা’বীতে মো’হাম্মদপুরে বিক্ষোভ?

ইন্টারন্যাশনাল সোসাইটি ফর কৃষ্ণা কনসাসনেসের (ইসকন) কা’র্যক্র’ম বন্ধের দা’বিতে রাজধানীর মোহাম্মদপুরের টাউন হল সড়ক অ’বরোধ করে বি’ক্ষোভ করছেন মুসল্লিরা। এসময় তারা ভোলায় পুলিশের গু’লিতে মুসল্লি নি’হত হওয়ার ঘটনার বি’চারের দা’বি জানায়। এ ছাড়া রসুল (স.)-এর জন্য উৎসর্গ করা র’ক্ত বৃ’থা যেতে দেব না’সহ বিভিন্ন স্লোগান দিচ্ছেন।

সোমবার (২১ অক্টোবর) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে মো’হাম্মদপুরের টাউন হলের আল্লাহ্ করিম মসজিদ ও মসজিদ সংলগ্ন সড়ক অ’বরোধ করে বি’ক্ষোভ কর্মসূচী শুরু হয়। ঘ’টনাস্থল থেকে মো’হাম্মদপুর থা’নার উপ-পরিদর্শক (এসআই) অপূর্ব বর্মণ বলেন, মুহাম্মদপুরে মুসল্লিরা বি’ক্ষোভ করে ইন্টারন্যাশনাল সোসাইটি ফর কৃ’ষ্ণা কনসাসনেসের (ইসকন) কা’র্যক্র’ম নি’ষিদ্ধের দাবি জানায়। এবং ভোলার ঘ’টনার সুষ্ঠু ত’দন্ত করে ন্যা’য় বি’চারের দা’বি জাানায়।

তিনি বলেন, সকাল থেকে আল্লাহ্ করিম মসজিদের সামনে মুসল্লিরা জড়ো হতে শুরু করেন। সেখানে মাইকের ব্য’বস্থা করে তারা বক্তৃতা দেন। বক্তৃতা শেষে তারা সবাই টাউনহলের সড়কে নেমে মিছিল করেন। মিছিলের পর সড়কে বসেই বক্তৃতা দেন।

তিনি আরও বলেন, বি’ক্ষোভে তারা পুলিশের বি’রুদ্ধে স্লোগান দেন। এবং ভোলায় পুলিশের ভূমিকাকে প্রশ্নবিদ্ধ পুলিশ ক’র্মক’র্তাদের বি’চারের দা’বি করেন। তবে প’রিস্থিতি স্বা’ভাবিক ও শা’ন্তিপূ’র্ণ ছিল।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, মুসল্লিদের বি’ক্ষোভের কারণে প্রায় ঘ’ণ্টাখা’নেক সময় টাউনহল সড়কে যানচলাচল ব’ন্ধ হয়ে যায়। এতে মো’হাম্মদপুরের বিভিন্ন সড়কে যানজটের সৃষ্টি হয়। তবে সর্বশেষ সাড়ে ১২টার দিকে সড়ক ছেড়ে দেয় মুসল্লিরা।

রাজধানীর মো’হাম্মদপুরের টাউন হল সড়ক অ’বরোধ করে বিক্ষো’ভ করছেন মু’সল্লিরা। তারা ভোলায় পুলিশের সঙ্গে সং’ঘর্ষের ঘটনায় নি’হত চারজনের বি’চারের দাবিতে স্লো’গান দিচ্ছেন।সোমবার (২১ অক্টোবর) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে মো’হাম্মদপুরের টাউন হলের আল্লাহ্ করিম মসজিদ ও মসজিদ সংল’গ্ন স’ড়কে এই অ’বরোধ ও বিক্ষো’ভ শুরু হয়।

মোহাম্মদপুর থানার ডিউটি অফিসার এএসআই বাদল জাগো নিউজকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।পুলিশ জানায়, বিক্ষো’ভে তারা ইন্টারন্যাশনাল সোসাইটি ফর কৃষ্ণা কনসাসনেসের (ইসকন) কার্যক্রম বন্ধের দাবি তুলেছেন। এ ছাড়া ‘রসুল (স.)-এর জন্য উৎসর্গ করা র’ক্ত বৃথা যেতে দেব না’সহ বিভিন্ন স্লোগান দিচ্ছেন।ভোলার বোরহানউদ্দিনে ‘তৌহিদি জনতা’র সমাবেশ ঘিরে সং’ঘর্ষে চারজন নি’হত হয়েছেন বলে খবর পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় পুলি’শসহ অর্ধশতাধিক ব্যক্তি আ’হত হয়েছেন।

স্থানীয় সূত্র জানায়, ফেসবুকে মহানবীকে (স.) নিয়ে ক’টূক্তি করার প্রতিবাদে রোববার বেলা ১১টায় বোরহানউদ্দিন হাইস্কুল মাঠে পূর্বঘোষিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে প্রতিবাদ সমাবেশের আয়োজন করা হয়। এতে অংশ নিতে উপজেলার প্রত্যেক ইউনিয়ন থেকে কয়েক হাজার লোক একত্রিত হয়ে ‘নবী অব’মাননা’ ও ‘আল্লাহকে নিয়ে ক’টূক্তিকারীর ফাঁ’সি চাই’- স্লোগান দিয়ে সমাবেশস্থলে আসেন। কিন্তু সমাবেশ শুরুর আগেই তা শেষ করতে তাগাদা দেয় পুলিশ। একপর্যায়ে সং’ঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে উভয়পক্ষ।

বোরহানউদ্দিন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন অবস্থায় দুজনের মৃ’ত্যু হয়। তারা হলেন- মিজান (৪০) ও মাফুজ পাটোয়ারী (৪৫)। অপরজন মা’রা যান ভোলা সদর হাসপাতালে। এছাড়া দুপুর আড়াইটার দিকে আব্দুল গণি নামের আরও একজনের মৃ’ত্যুর খবর পাওয়া গেছে।এ ঘটনায় ভোলার অ’জ্ঞাতনামা পাঁচ হাজার জনকে আ’সামি করে মা’মলা করা হয়েছে। গতকাল রোববার দিবাগত রাতে বোরহানউদ্দিন থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) আবিদ হোসেন এ মা’মলা করেন।