‘হাত-পা শক্ত হয়ে গেছে, যে কোনো সময় অঘ’টন ঘ’টে যেতে পারে’

অমানবিক সরকার জামিন না দিয়ে বেগম খালেদা জিয়ার ‘জীবননাশের ষ’ড়যন্ত্র’ করছে অভিযোগ করে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, বেগম জিয়ার স্বা’স্থ্যের মা’রাত্মক আবনতি হয়েছে। তাঁর শা’রীরিক অ’বস্থা আ’শঙ্কাজ’নক। হাত-পা শ’ক্ত হয়ে গেছে। হা’ত-পা’য়ের আ’ঙুল ফুলে গেছে।

রিজভী বলেন, খালেদা জিয়া কারও সাহায্য ছাড়া দাঁড়াতে পারেন না। নিজের খাবার নিজে খেতে পারেন না। তাঁর পোশাকও আরেকজনের পরিয়ে দিতে হয়। এ অবস্থায় তিনি পিজি হাসপাতালের আট বাই দশ ফুটের ছোট্ট কক্ষে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

রবিবার (১৩ অক্টোবর) দুপুরে নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন। রিজভী বলেন, আজ বড় বি’ষণ্নতার সাথে জানাচ্ছি, বাংলাদেশের ১৬ কোটি মানুষের প্রাণপ্রিয় নেত্রী দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার শা’রীরিক অবস্থার আ’শঙ্কাজনক অ’বনতি ঘ’টেছে। অ’বৈধ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাঁর ব্যক্তিগত প্রতিহিংসায় ৬১৩ দিন যাবত দেশনেত্রীকে ব’ন্দি করে রেখেছেন।

তিনি অভিযোগ করে বলেন, কা’রাগারের অ’স্বাস্থ্যকর কক্ষে অ’মানবিক পরিবেশের মধ্যে দেশনেত্রীকে ব’ন্দি রাখা হয়েছে। পঁচাত্তর বছর ব’য়সী নেত্রীর ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণহীন হয়ে জীবন ঝুঁ’কিপূর্ণ হয়ে প’ড়েছে। বারবার ইনস্যুলিন পরিবর্তন এবং ইনস্যুলিনের মাত্রা বৃ’দ্ধি করার পরেও কোনও অ’বস্থাতেই তাঁর সুগার নিয়ন্ত্রণ করা যাচ্ছে না। কোনও কোনও সময় এটি ২৩ মিলিমোল পর্যন্ত উঠে যাচ্ছে। সুগার নি’য়ন্ত্রণ করতে গিয়ে খাবারের পরিমাণ অনেক ক’মিয়ে দেয়াতে শ’রীরের ওজনও অনেকখানি হ্রাস পে’য়েছে।

রিজভী বলেন, ‘যথাযথ চিকিৎসার বিষয়ে আমরা বারবার দা’বি করা স’ত্ত্বেও দেশনেত্রীকে উন্নতমানের যন্ত্রপাতি বিশিষ্ট দেশের কোনও বিশেষায়িত হাসপাতালে চিকিৎসার ব্য’বস্থা করা হ’য়নি। তাঁর জ’রুরিভিত্তিতে উন্নত চিকিৎসা দরকার। ব্যথার কারণে রাত্রে তাঁর ঘুম হচ্ছে না এবং সা’রাক্ষণ তিনি অ’স্থির থাকছেন। আর্থ্রাইটিস ও ফ্রোজেন শোল্ডার সমস্যার কারণে স্বাস্থ্যের আরও গুরুতর অ’বনতি ঘ’টছে।

ঘাড়-মাথা সোজা রাখতে পারছেন না। কয়েক বছর আগে অপারেশন করা চোখ এবং হাঁটুর ব্যাথা ক্রমশ বৃ’দ্ধির ফলে অসহ্য ব্য’থায় কা’তরাচ্ছেন ‘গণতন্ত্রের মা’।’ তিনি আরও বলেন, দেশবাসী দেশনেত্রীর জীবনের পরিণতি নিয়ে অজানা আ’তঙ্ক ও শ’ঙ্কার মধ্যে রয়েছে। সরকার অমানবিক এবং বেআইনি কাজে এতো অ’ভ্যস্ত হয়ে প’ড়েছে যে তারা বেগম খালেদা জিয়ার বি’পদজনক অ’সুস্থতাও ভ্রুক্ষেপ করছে না। সরকারের অ’মানবিক আ’চরণ প্রমাণ করে দেশনেত্রীকে প্রাণনাশের ষ’ড়যন্ত্র করছে তারা।

‘ক্ষ’মতায় টিকে থাকার জন্য ও দেশ বিক্রি করার জন্য আইন আদালতকে কব্জা করে দেশনেত্রীর জামিনে বা’ধা দেয়া হচ্ছে। কাঁটাতারে ঝুলন্ত ফেলানি থেকে মেধাবী তরুণ আবরার ফাহাদকে হত্যা ও বেগম জিয়ার ব’ন্দিত্ব একই সুতায় গাঁথা। বেগম জিয়ার সুচিকৎসা হচ্ছে না। দেশনেত্রীর প্রাণনাশ করার গভীর নীলনকশা বা’স্তবায়নে ব্যস্ত অ’বৈধ সরকার জামিনে বাধা দিয়েই ক্ষান্ত হচ্ছে না, বিএসএমএমইউ’র পরিচালক সাহেবকে দিয়ে প্রেস ব্রিফিংয়ে বলানো হচ্ছে -‘খালেদা জিয়া ভালো আছেন, তার অ’বস্থার কোনও অ’বনতি হয়নি।’ কতটা অ’মানবিক হলে এতো বড় মনগড়া কথা তারা বলতে পারেন।’

বিএনপির এই নেতা বলেন, ‘জ’রুরিভিত্তিতে বেগম জিয়ার উন্নত চিকিৎসা দরকার। হাত-পা শ’ক্ত হয়ে গেছে, যে কোনো সময় অ’ঘটন ঘটে যেতে পারে। এই উদ্বেগজনক পরিস্থিতিতে আমরা আজই দেশনেত্রীর নিঃশর্ত মু’ক্তি দা’বি করছি।’ সংবাদ সম্মেলনে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা নাজমুল হক নান্নু, ড. মামুন আহমেদ, সহ-দফতর সম্পাদ মুনির হোসেন ও তাইফুল ইসলাম টিপু প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। সূত্রঃ বিডি ২৪ লাইভ