নুসরাতকে বিয়ে করার কিছুদিন পরেই প্রতারনার শিকার হলেন স্বামী ।

সম্প্রতি বিয়ে সম্পন্ন হয়েছে টালিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী নুসরাত জাহান ও কলকাতার ব্যবসায়ী নিখিল জৈন’র। বিদেশে ডেস্টিনেশন ওয়েডিংয়ের পর সদ্য কলকাতার বিলাসবহুল হোটেলে হয়েছে তাদের রিসেপশন। এরই মধ্যে বিপদে পড়লেন নুসরাতের স্বামী নিখিল জৈন। এদিকে জানা গেছে, আর্থিক প্রতা রণার শিকার হয়েছেন নিখিল জৈন। তাও আবার রিসেপশনের ঠিক আগে। যার জন্য থানা-পুলিশও করতে হয়েছে তাকে।

এ বিষয়ে সাইবার ক্রাইম থানায় দায়ের হওয়া অভিযোগের ভিত্তিতে জানা যায়, মাসখানেক আগে একটি মোবাইল সার্ভিস প্রোভাইডার সংস্থা থেকে ই-মেল আসে নিখিলের কাছে। সেই মেলে তাকে একটা ভিভিআইপি নম্বর অর্থাৎ মোবাইলের বিশেষ নম্বর দেওয়া হবে বলে জানানো হয়। এর জন্য নির্দিষ্ট অ্যাকাউন্টে টাকা জমা করার কথাও জানানো হয়। নিখিলের কাছে দু-টি ই-মেল আসে।

এদিকে নিখিল দাবি করেছেন, ই-মেলে দেওয়া অ্যাকাউন্ট নম্বরে তিনি ৪৫ হাজার টাকা ট্রান্সফারও করে দেন, কিন্তু তার কাছে কোনও ভিআইপি নম্বর আসেনি। কিন্তু এর পরে খোঁজ খবর নিয়ে জানতে পারেন ওই ই-মেল মেসেজটি আদতে ভুয়া। যে মোবাইল সার্ভিস প্রোভাইডারের নামে ই-মেল এসেছিল, তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করেছিলেন ‘রঙ্গোলি শাড়ি’ সংস্থার ডিরেক্টর নিখিল। কিন্তু তারা স্পষ্টতই জানিয়ে দেয়, ওই ধরনের কোনও মেসেজ তারা পাঠায়নি। এরপরই সাইবার ক্রাইম থানায় অভিযোগ দায়ের করেন তিনি।

এদিকে সচরাচর কোনও মোবাইল সার্ভিস প্রোভাইডার কোম্পানির বিশেষ নম্বর নিতে গেলে গ্রাহককে বাড়তি টাকা খরচ করতে হয়। এই নম্বরগুলো বিশেষ বৈশিষ্টযুক্ত হওয়ায় ভিভিআইপি নম্বর বলা হয়। সেই ফাঁদেই পা দিয়েছিলেন নিখিল। তবে জানা গেছে, আসলে এ রকম একটি চক্র রয়েছে, যারা এইভাবে ফাঁদ পেতে টাকা নিচ্ছে।

আরো পড়ুন… সুরক্ষিত যৌ নতার কথা যেখানে সবাই এড়িয়ে চলেন। সেখানে সিনেমার প্রচারে এসে সমস্ত ট্যাবু দুরে সরিয়ে ক’নডমের ব্যবহার নিয়ে সোচ্চার হলেন দক্ষিণী অভিনেত্রী পায়েল রাজপুত।

‌‌‘আরডিএক্স ১০০’ ছবিতে একের পর এক বোল্ড দৃশ্যে অভিনয় করে খবরের শিরোনামে তিনি।পায়েলের নতুন ছবি ‘আরডিএক্স লাভ’-এ নায়কের সঙ্গে বেশ কিছু ঘনিষ্ঠ দৃশ্যে দেখা গিয়েছে তাকে। ছবির নির্দেশক শঙ্কর ভানু।

ছবির প্রচারে পায়েল বলেন, বিছানায় যাওয়ার আগে সবসময় ক’নডম সঙ্গে রাখা উচিত। সুরক্ষিত যৌ নজীবনের জন্য কন’ডম অত্যন্ত প্রয়োজনীয়। বর্তমান প্রজন্মের উচিত রাখঢাক ছেড়ে যৌ নতা নিয়ে খোলাখুলি আলোচনা করা। পি’রিয়ড, গর্ভপা’ত ও সুরক্ষিত যৌ নতা কোনটাই ঢেকে রাখার মতো বিষয় নয়।

আরো পড়ুন… ছোট পর্দার জনপ্রিয় অভিনেত্রী শবনম ফারিয়া। ইতোমধ্যে বড় পর্দায়ও যাতায়াত শুরু করেছেন। তার করা দেবীতে মুগ্ধ হয়েছেন ভক্তরা। সম্প্রতি মাসুদ রানা শোতে বিচারক হয়ে বিতর্কে জড়িয়ে পড়েছিলেন তিনি। যদিও এ বিষয়ে যুক্তিও দেখিয়েছেন অভিনেত্রী।এদিকে সম্প্রতি তার একটি ভিডিও ভাইরাল হতে দেখা গেছে। যেখানে তিনি তার ভক্তদের উদ্দেশ্যে কঠিন ভাষায় কিছু কথা বলেছেন।

তার একটি ছবিতে কিছু বাজে মন্তব্যের জন্য তিনি এ ভিডিওট করেন বলে জানান। ভিডিওতে তিনি বলেন, একটি ছবি আপলোড করেছিলাম ফেসবুক পেজে। সেখানে অনেকেই মন্তব্য করেছেন। কিছু মন্তব্য দেখে আমি সত্যি অবাক। আমার এডমিন সে এসব ডিলেট করছিল, কিন্তু আমি না করলাম। আমি আসলে দেখতে চাই, মানুষ কতটুকু নিচে নামতে পারে।

তিনি আরো বলেন, একটা ফুলহাতা জামা পরা সারা শরীর ঢাকা মেয়ের ছবি দেখার পরও যদি আপনাদের বিশেষ অঙ্গ দাঁড়িয়ে যায়, তাহলে এ ঈমান নিয়ে আপনারা পুলসিরাত কীভাবে পার করবেন? এ সময় তিনি সেসব ভক্তদের জানান, আপনারা এককাজ করেন ফেসবুকে যত মেয়েদের ফলো করছেন, সবাইকে আনফলো করে দেন। মডেলদের তো ভুলেও ফলো করবেন না। বাজে মন্তব্য করবেন না। কে বুকে ওড়না দিল, কে দিল না সেটা নিয়ে আপনাদের এত মাথাব্যথা কেন?

বর্তমান সময়ে ছোট পর্দার জনপ্রিয় অভিনেত্রী শবনম ফারিয়া। যদিও তিনি এখন আর ছোট পর্দায় সীমাবদ্ধ নন, বড় পর্দায়ও যাতায়াত শুরু করেছেন। ইতোমধ্যে তার করা দেবীতে মুগ্ধ হয়েছেন ভক্তরা। সম্প্রতি মাসুদ রানা শোতে বিচারক হয়ে বিতর্কে জড়িয়ে পড়েছিলেন তিনি। যদিও এ বিষয়ে যুক্তিও দেখিয়েছেন অভিনেত্রী। সম্প্রতি তার একটি ভিডিও ভাইরাল হতে দেখা গেছে। যেখানে তিনি তার ভক্তদের উদ্দেশ্যে কঠিন ভাষায় কিছু কথা বলেছেন। তার একটি ছবিতে কিছু বাজে মন্তব্যের জন্য তিনি এ ভিডিওটি করেন বলে জানান।

এ সময় ভিডিওতে তিনি বলেন, ‘একটি ছবি আপলোড করেছিলাম ফেসবুক পেজে। সেখানে অনেকেই মন্তব্য করেছেন। কিছু মন্তব্য দেখে আমি সত্যি অবাক। আমার এডমিন সে এসব ডিলেট করছিল, কিন্তু আমি না করলাম। আমি আসলে দেখতে চাই, মানুষ কতটুকু নিচে নামতে পারে।’ তিনি আরো বলেন, ‘একটা ফুলহাতা জামা পরা সারা শরীর ঢাকা মেয়ের ছবি দেখার পরও যদি আপনাদের বিশেষ অঙ্গ দাঁড়িয়ে যায়, তাহলে এ ঈমান নিয়ে আপনারা পুলসিরাত কীভাবে পার করবেন?’

এ সময় তিনি সেসব ভক্তদের বলেন, ‘আপনারা এককাজ করেন ফেসবুকে যত মেয়েদের ফলো করছেন, সবাইকে আনফলো করে দেন। মডেলদের তো ভুলেও ফলো করবেন না। বাজে মন্তব্য করবেন না। কে বুকে ওড়না দিল, কে দিল না সেটা নিয়ে আপনাদের এত মাথাব্যথা কেন?’