Home - প্রবাসী - সিঙ্গাপুরে কমিউনিটিতে দ্বিতীয় ধাপে বাড়ছে আক্রান্ত ।

সিঙ্গাপুরে কমিউনিটিতে দ্বিতীয় ধাপে বাড়ছে আক্রান্ত ।

সার্কিট ব্রেকার তুলে নেয়ার দ্বিতীয় ধাপে ১০ দিনে সি”''ঙ্গাপুরে কমিউনিটিতে আ’ক্রা'’ন্তের সংখ্যা ৬২ জনে দাঁড়িয়েছে। আর ডরমেটরিতে অবস্থানকারী অ’ভিবাসীকর্মী আ’ক্রা'’ন্ত হয়েছে ২০৪৬ জন। কমিউনিটি নতুন আ’ক্রা'’ন্তের সংখ্যা আগের স’'প্তাহে গড়ে প্রতিদিন চারজন থেকে গত স’'প্তাহে প্রতিদিন সাতজনে বেড়েছে। শিগগিরই সি”''ঙ্গাপুরে করো’নাভাইরাস পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়ে আসবে। ধীরে ধীরে ব্যবসা-বাণিজ্যসহ বিভিন্ন দর্শনীয়স্থানগু'’লো খুলে দেওয়া হচ্ছে।

তবে কমিউনিটিতে আ’ক্রা'’ন্তের সংখ্যা বিশেষজ্ঞদের চিন্তিত করেছে। আজ স্ট্রেইট টাইমসের এক সংবাদে বলা হয়েছে, ‘সি”''ঙ্গাপুরের অর্থনীতি পুনরায় চালু করার দ্বিতীয় ধাপের ১২ দিনের মধ্যে লোকাল কমিউনিটিতে করো’নায় আ’ক্রা'’ন্তের সংখ্যা বৃ’'দ্ধি পেয়েছে। এই প্রবণতা অব্যা’'হত থাকলে উদ্বেগ আরও বাড়বে’। সি”''ঙ্গাপুরের ন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির সাউসুই হক স্কুলের ডিন প্রফেসর টিও ইয়িক ইয়িং বলেছেন, ‘সংকটের মধ্যেই আমা’দের সচেতন থাকতে ও সতর্ক অবস্থায় থাকতে হবে।

মনে রাখতে হবে যত বেশি সতর্ক থাকা যাব'’ে তত কম আ’ক্রা'’ন্ত হবে। সম্মিলিতভাবে কাজ করতে হবে সবাইকে। এখনও প্রাদুর্ভাবের মধ্যে রয়েছে। রিক্স লেভেল অরেঞ্জ রয়েছে। অরেঞ্জ মানে উচ্চতর জনস্বাস্থ্যের প্রভাবসহ একটি রোগের পরিস্থিতি নির্দেশ করে’। টিও বলেন, ‘বিশ্বব্যাপী মহা’মা’রি পরিস্থিতি আরও খারাপ হয়েছে। অবশ্যই কিছু দেশের পরিস্থিতি দেখে মনে হচ্ছে তারা প্রথমবারের মতো সংক্রমণের যথাযথভাবে সংযোজন করার আগেই লকডাউন তুলছে।

কমিউনিটি নতুন আ’ক্রা'’ন্তের সংখ্যা আগের স’'প্তাহে প্রতিদিন গড়ে চারজন থেকে গত স’'প্তাহে প্রতিদিন সাতজনে বেড়েছে’। এখন পর্যন্ত সারাবিশ্বে ১০ মিলিয়নেরও বেশি লোক করো’নায় আ’ক্রা'’ন্ত হয়েছে। বিশ্বব্যাপী লকডাউন প্রত্যাহার করার সাথে সাথে বহু দেশ এই মহা’মা’রির সাথে লড়াই করে চলেছে। সি”''ঙ্গাপুরে আজকে নতুন করে ২৪৬ জন করো’নাভাইরাসে আ’ক্রা'’ন্ত শনাক্ত করা হয়েছে। এখন পর্যন্ত ৪৩ হাজার ৯০৭ জন এ ভাইরাসে আ’ক্রা'’ন্ত হয়েছে।

২৯ জুন ৪৭৭ জন হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র পেয়েছেন। এখন পর্যন্ত ৩৭ হাজার ৯৮৫ জন থেকে ছাড়পত্র পেয়েছেন। গত ডিসেম্বরে চীনের উহান শহর থেকে ছড়ানো করো’নাভাইরাস গোটা বিশ্বকে বিপর্যস্ত করে দিয়েছে। বিশ্বজুড়ে এখন পর্যন্ত এ ভাইরাসে আ’ক্রা'’ন্ত ১ কোটির বেশি। মৃ'’তের সংখ্যা ৮ লাখের বেশি। তবে ৫০ লাখ ৬০ হাজারের বেশি রোগী ইতোমধ্যে সুস্থ হয়েছেন। বাংলাদেশে করো’নাভাইরাস প্রথম শনাক্ত হয় গত ৮ মা’র্চ।

Check Also

আরব আমিরাতের ভিসা নবায়ন শুরু যেদিন থেকে

আজ রোববার থেকে সংযুক্ত আরব আমিরাতে ভিসা নবায়ন করা যাব'ে। দেশটির মন্ত্রিসভায় এমন সি'দ্ধান্ত হয়েছে। …