কাতার প্রবাসীদের জন্য জরুরী ঘো’ষণা

কাতার প্রবাসীদের জন্য জরুরী ঘো’ষণা, কাতার প্রবাসীদের জন্য জরুরী ঘো’ষণা! আমিরি দিওয়ান আজ কাতারে ঈদুল ফিতরের সরকারি ছু’টি ঘো’ষণা করা হয়েছে।১৯ মে ম''ঙ্গলবার থেকে ২৮ মে পর্যন্ত কাতারে সব সরকারি অফিস ও আ'দালতের কা’র্যক্র’ম ব’ন্ধ থাকবে।

কাতারের আরও খবর >> কাতারে মাস্ক না পরলে ৩ বছরের কা’রাদ’ণ্ড >>> মাস্ক প’রা বা’ধ্যতামূ’লক করছে মধ্যপ্রাচ্যের দেশ কাতার। মাস্ক না পরলে ক’ঠোর শা’স্তির বি’ধান শুরু করেছে দেশটি। মাস্ক না পরলে সেখানে তিন বছরের কা’রাদ’ণ্ড ভো’গ করতে হবে এবং একই স''ঙ্গে জ’রিমা’নাও দিতে হবে।

এখন পর্যন্ত কোনো দেশেই এমন শা’স্তির ব্য’বস্থা করা হয়নি। মাস্ক না প’রার জন্য কাতারেই বিশ্বের সবচেয়ে ক’ঠোর শা’স্তির আওতায় আনা হবে।দেশজু’ড়ে করো’নার বি’স্তার বাড়তে থাকায় এমন পদক্ষে’প নিয়েছে কাতার প্রশা’সন। উপসাগরীয় দেশটিতে এখন পর্যন্ত ৩০ হাজারের বেশি মানুষ প্রাণঘা’তী ক’রো'নাভাই’রাসে আ’ক্রা'ন্ত হয়েছে।

কাতারে বর্তমানে ২৭ লাখের বেশি মানুষ বসবাস করে। দেশটির ১ দশমিক ১ শতাংশ মানুষ ক’রো'নায় আ’ক্রা'ন্ত হয়েছে। এর মধ্যে ১৫ জনের মৃ'’ত্যু হয়েছে।কাতার প্রশা’সনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে যে, কেউ আইন অমা’ন্য করে মাস্ক না প’রলে তাকে তিন বছরের কা’রাদ’ণ্ড ভো’গ করতে হবে। একই স''ঙ্গে ৫৫ হাজার ডলার জ’রিমা’না দিতে হবে।

ওয়ার্ল্ডওমিটারের পরিসং’খ্যান বলছে, কাতারে এখন পর্যন্ত করো’নায় আ’ক্রা'ন্ত হয়েছে ৩০ হাজার ৯৭২ জন এবং মা’রা গেছে ১৫ জন।দেশটিতে ইতোমধ্যেই সুস্থ হয়ে উ’ঠেছে ৩ হাজার ৭৮৮ জন। কাতারে বর্তমানে করো’নার অ্যাক্টি’ভ কে’স ২৭ হাজার ১৬৯টি। অ’পরদিকে ১৫৮ জনের অবস্থা এখনও আশ’ঙ্কাজ’নক।

গত ৩১ ডিসেম্বর চীনের হুবেই প্রদেশের উহান শহরে প্রথম প্রাণঘা’তী করো’নার উপস্থি’তি ধ’রা পড়ে। প্রথম দিকে কাতারে করো’নায় আ’ক্রা'ন্তের সংখ্যা ক’ম থাকলেও এখন বাড়তে শুরু করেছে।এদিকে, মধ্যপ্রাচ্যের অন্যান্য দেশগু'লোর তুলনায় ইরানে ক’রো'নায় আ'ক্রা'’ন্ত ও মৃ'’ত্যুর সংখ্যা সবচেয়ে বেশি। দেশটিতে এখন পর্যন্ত ক’রো'নায় আ’ক্রা'ন্ত হয়েছে ১ লাখ ১৮ হাজার ৩৯২ জন এবং মা’রা গেছে ৬ হাজার ৯৩৭ জন।