নারায়ণগঞ্জে একজন করোনা ভাইরাসে আ’ক্রান্ত

এবার নারায়ণগঞ্জে একজন করোনা ভাইরাসে আ’ক্রান্ত হয়েছেন। আজ সোমবার বিকেলে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন নারায়ণগঞ্জের সিভিল সার্জন ইমতিয়াজ আহমেদ। এ ব্যাপারে সিভিল সার্জন ইমতিয়াজ জানান, জেলায় করোনাভাইরাসে একজন আ’.ক্রান্ত হয়েছেন বলে শনাক্ত করা হয়েছে। নতুন করে ৩৫ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। এ নিয়ে হোম কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন ১৬২ জন।

এর মধ্যে তিনজন প্রবাসী রয়েছেন। তিনি আরো জানান, আপাতত জনসমাগম ও জনবহুল স্থান এড়িয়ে চলতে জেলাবাসীকে অনুরোধ করা হয়েছে। এছাড়া জরুরি কাজ ছাড়া ঘর থেকে বের না হতেও বলা হয়েছে। করোনা ভাইরাস বা কোভিড-১৯ সংক্রণ নিয়ে বিশ্বজুড়ে আতঙ্ক বিরাজ করছে। করোনা সংক্রমণ থেকে সুরক্ষার জন্য সংক্রমিত ব্যক্তি থেকে দূরে থাকাই সবচেয়ে নিরাপদ উপায়। কিন্তু এ নিয়ে ঘটছে অনেক অবাক করা ঘটনা। এমন ঘটনা ঘটিয়েছে এক ভারতীয় পাইলট। বিমানে এক করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত যাত্রী আছে সন্দেহে আতঙ্কে জানালা দিয়ে ঝাঁপ দেয়ার ঘটনা ঘটিয়েছেন তিনি।

গত শুক্রবার (২০ মার্চ) পুনে থেকে দিল্লিগামী এয়ার এশিয়ার একটি বিমানের পাইলট এ কাণ্ড ঘটান। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির খবরে বলা হয়েছে, ভারতে করোনা ভাইরাসে এ পর্যন্ত সাত জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। দেশটিতে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৩৯৬ জনে। রোববার নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন আরও ৮১ জন। শুক্রবার ওই বিমানটিতে এমন এক যাত্রী ছিলেন,

যার শরীরে করোনা ভাইরাসের লক্ষণ রয়েছে- এ কথা জানার পরই ঘাবড়ে যান পাইলট। বিমানটি অবতরণের পর তার সাধারণ দরজা দিয়ে না বেরিয়ে পাইলট-ইন-কমান্ড বেছে নিলেন ককপিটের সেকেন্ড এক্সিট অর্থাৎ দ্বিতীয় দরজা দিয়ে রীতিমতো বাইরে ঝাঁপ দেন। এ বিষয়ে এয়ার এশিয়া ভারতের এক মুখপাত্র গণমাধ্যমকে বলেছেন, করোনা ভাইরাসের লক্ষণযুক্ত ওই যাত্রী বিমানের একেবারে প্রথম সারিতেই বসেছিলেন, আর তাকে নিয়েই আতঙ্কের পরিবেশ তৈরি হয় গোটা বিমানে।