শোক সংবাদঃ টোলারবাগে করোনাভাইরাসে মৃত ব্যক্তির ছোট ভাই মারা গেছেন

করোনা আক্রান্ত হয়ে মিরপুরের টোলারবাগে মারা যাওয়া ব্যক্তির ছোট ভাইও মারা গিয়েছেন বলে জান গেছে। তবে তিনি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন কিনা সেটা নিশ্চিত করতে জাতীয় রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানকে ( আইইডিসিআর) একাধিকবার কল কলেও পাওয়া যায়নি। ওই ব্যক্তি নাম মোজাম্মেল হক। একাধিক সূত্র জানায়, মোজাম্মেল হকের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষা করার জন্য নিয়েছিল আইইডিসিআর।

সেখানে পরীক্ষাতে পজিটিভ এসেছে। রবিবার সন্ধ্যায় হাসপাতালে নেওয়ার পথে অ্যাম্বুলেন্সে তিনি মারা যান। এলাকার প্রতিবেশীরা জানিয়েছেন, মোজাম্মেল হক বয়স্ক ছিলেন, স্থানীয় মসজিদে তার মৃত্যুর ঘোষণা দেওয়া হচ্ছে। তিনি ওই মসজিদের সেক্রেটারি ছিলেন। এদিকে জানা যায়, করোনা ভাইরাস সংক্রমিত হয়ে রাজধানীর মিরপুরে মৃত ব্যাক্তির বড় ভাইয়ের লাশ ফেলে উধাও হয়ে গেছে তার পরিবারের সদস্যরা।

শুক্রবার (২০ মার্চ) রাতে রাজধানীর মিরপুরের ডেল্টা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত দ্বিতীয় ব্যক্তির মৃত্যু হয়। শনিবার সকাল থেকেই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ডেল্টা হাসপাতালে একজন মারা গেছেন বলে একটি পোস্ট ভাইরাল হতে থাকে। ওই পোস্টে বলা হয়, মৃত ব্যক্তি ওই হাসপাতালের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন ছিলেন। তার মৃত্যুর পর পরই স্বজনরা হাসপাতাল লাশ রেখে পালিয়ে যান।

একজন মারা যাওয়ার পর হাসপাতালে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। মৃত‌্যুর পর সংশ্লিষ্ট চিকিৎসক ও নার্সদের বাধ্যতামূলক ছুটি দিয়েছে ডেল্টা কর্তৃপক্ষ। পরে শনিবার দুপুরে রাজধানীর মহাখালীর স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে এ তথ্য নিশ্চিত করেন সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (আইইডিসিআর) পরিচালক অধ্যাপক ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা।

তিনি বলেন, ‘করোনায় আক্রান্ত হয়ে মিরপুরের ডেল্টা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে একজন মারা গেছেন। তার বয়স আনুমানিক ৭৩ বছর। ওই হাসপাতালে তিনি চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। তিনিও এক প্রবাসীর সংস্পর্শে গিয়ে আক্রান্ত হয়েছিলেন।’