করোনায় বন্ধ শুটিং, অবসরে যা শিখছেন ক্যাটরিনা( ভিডিওসহ)

বলিউডে সব শুটিং বন্ধ। এমন অবসর তারকাদের মেলে না। তাই ঘরে থাকার এই সুযোগটাকে কাজে লাগাতে গিটার শিখছেন ক্যাটরিনা কাইফ।বলিউড তারকারা করোনাভাইরাস নিজেরা বাড়িতে থাকছেন এবং সবাইকে বাড়িতে থাকার পরামর্শ দিচ্ছেন। স্বেচ্ছায় কোয়ারেন্টাইনে আছেন ক্যাটরিনা কাইফও। কঠিন এই সময়ে মানসিক স্বাস্থ্য ঠিক থাকাও জরুরী। সময় কাটাতে তাই গিটার শিখছেন তিনি।

ভিডিওতে দেখা গেছে ক্যাটরিনা গিটার শিখছেন। শব্দহীন এই ভিডিওর ক্যাপশনে ক্যাটরিনা লিখেছেন, ‘শিখছি এখনও, সাউন্ডও আসছে কিছুদিনের মধ্যেই আশা করি। হাল ছাড়া যাবে না।’ ক্যাটরিনাকে দেখা যাবে অক্ষয় কুমারের ‘সুর্যবংশি’ ছবিতে। ছবিটি ২৪ মার্চ মুক্তি পাওয়ার কথা থাকলেও অনির্দিষ্ট সময়ের জন্য পিছিয়ে গেছে করোনাভাইরাসের কারণে।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন…

অবশেষে ফাঁস হল বিপাশা বসুর যে গো’পন তথ্য>>> বিপাশা বসু মডেলিং থেকে অভিনয়ের দুনিয়ায় পা রাখেন। ২০০১ সালে মুক্তি পায় তার প্রথম ছবি ‘আজনবী’। এক বছর পরে ‘রাজ’-এর সাফল্য তাকে তুমুল জনপ্রিয়তা এনে দেয়।ক্যারিয়ারের বিভিন্ন সময়ে বিপাশার জীবনে এসেছেন একাধিক পুরুষ। সম্পর্কের কথা বেশির ভাগ সময়ই গোপন করেননি তিনি। মডেলিং জগতে থাকার সময়ে বিপাশা নাকি ঘনিষ্ঠ ছিলেন মিলিন্দ সোমনের সঙ্গে। শোনা যায়,

মডেলিং করতে গিয়েই পরিচয় দু’জনের। মিলিন্দ তখনই প্রতিষ্ঠিত সুপারমডেল। অন্য দিকে মডেল হিসেবে বিপাশা পরিচিত হচ্ছেন। তবে মিলিন্দ-বিপাশা সম্পর্ক বেশিদিন স্থায়ী হয়নি। এরপর সুপারহিট ছবি ‘রাজ’-এ বিপাশার নায়ক ছিলেন ডিনো মোরিয়া। তবে তার আগে থেকেই অন্তরঙ্গ ছিলেন দু’জনে। সম্পর্কের কথা স্বীকারও করতেন তারা। ১৯৯৬ থেকে ২০০২ সাল ৬ বছর প্রেমের পর দু’জনের পথ আলাদা হয়ে যায়।

কেন তাদের প্রেম ভেঙে গিয়েছিল, সে কথা কখনও প্রকাশ্যে আনেননি তারা। বলিউডে এখন পর্যন্ত যতগুলো জুটি নিয়ে কথা হয়েছে, জন আব্রাহাম-বিপাশা বসু তাদের অন্যতম। ডিনো মোরিয়ার সঙ্গে বিচ্ছেদের পরে জন আব্রাহামের প্রেমে পড়েন বিপাশা। এক দশকেরও বেশি সময় ধরে তারা ঘনিষ্ঠ ছিলেন। ২০১১ সালে ভেঙে যায় তাদের সম্পর্ক। কেন তাদের বিচ্ছেদ হলো, তা নিয়ে বিপাশা কোনোদিন মুখ খোলেননি।

তবে জন এক সাক্ষাৎকারে বলেছিলেন, তিনি সেসময় বিয়ে করতে চাননি। কিন্তু বিপাশা আগ্রহী ছিলেন বিয়ে করে সংসার শুরু করতে। ২০১১ সালে মুক্তি পেয়েছিল ‘দম মারো দম’। এই ছবিতে বিপাশার বিপরীতে ছিলেন রানা ডাগ্গুবতী। তিনিও নাকি বিপাশার প্রণয়ী ছিলেন। তবে খুব অল্প সময়ের জন্য স্থায়ী ছিল তাদের সম্পর্ক। শোনা যায়, বিপাশাকে ছেড়ে সম্পর্ক থেকে বেরিয়ে যান ‘বাহুবলী’-র বল্লালদেব।

তবে এই সম্পর্কের কথা কোনোদিন স্বীকার করেননি রানা। পর পর দু’টি ব্রেক আপ-এ মানসিক ভাবে ভেঙে পড়েছিলেন এই নায়িকা। সেই ক্ষতে প্রলেপ দিতেই নাকি তিনি সাইফ আলী খানের কাছাকাছি এসেছিলেন। ২০০২ সালে মুক্তি পেয়েছিল সাইফ-বিপাশার ছবি ‘রেস টু’। সেসময় সদ্য ভেঙে গিয়েছে বিপাশার প্রেম। অন্য দিকে সাইফ-ও তখন বিবাহ-বিচ্ছিন্ন। ফলে তাদের সম্পর্ক নিয়ে গুঞ্জন শোনা যেতে দেরি হয়নি।

কিন্তু তারা দু’জনেই জানিয়েছিলেন সবই গুজব। এরপর বলিউডের বাতাসে ভেসে ওঠে বিপাশার সঙ্গে হরমন বাওয়েজাকে নিয়ে গুঞ্জন। তবে বেশিদিন সে কথা গুঞ্জনের পর্যায়ে থাকল না। বিপাশা নিজেই সোশ্যাল মিডিয়ায় জানান হরমনের সঙ্গে তার নতুন সম্পর্কের কথা। তার ছ’মাস পরে যখন কনের সাজে বিপাশাকে দেখবেন বলে দিন গুনছেন তার ভক্তরা, তখনই আবার ভাঙনের খবর আসে।

অবশেষে ২০১৬ সালে ‘অ্যালোন’ ছবির সহকর্মী কর্ণ সিং গ্রোভারকেই জীবনসঙ্গী হিসেবে বেছে নেন বিপাশা। বিপাশার প্রথম বিয়ে হলেও এটা ছিল কর্ণের তৃতীয় বিয়ে। তার প্রথম স্ত্রী ছিলেন অভিনেত্রী শ্রদ্ধা নিগম। তাদের এক বছরের দাম্পত্য ভেঙে যায় ২০০৯ সালে। কর্ণ ২০১২ সালে দ্বিতীয় বিয়ে করেন অভিনেত্রী জেনিফার উইনজেটকে। দু’বছর পরে তাদের বিচ্ছেদ হয়ে যায়। আইসোলেশনে জিৎ-মিমি: করোনায় আ’ক্রান্তের সম্ভাবনা>>>

করোনা আ’তঙ্কে এখন কাঁপছে গোটা বিশ্ব। এরইমধ্যে বিদেশ থেকে ফিরেছেন টালিউড অভিনেতা জিৎ ও অভিনেত্রী মিমি। তাদের করোনায় আ’ক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা অনেক বেশি। কারণ কয়েকদিন আগে লন্ডনে শুটিং করতে গিয়েছিলেন তারা। শুটিং শেষে আজ (১৮ মার্চ) সকালেই কলকাতায় ফিরেছেন তারা। আর তড়িঘড়ি করে আইসোলেশনে গিয়েছেন এই দু’জন। কলকাতা বিমানবন্দরে নেমেই মিমি জানিয়েছেন,

তিনি আপাতত তার কোনও আত্মীয়ের সঙ্গে দেখা করবেন না। মিমি জানিয়েছেন, তার বাবার বয়স ৬৫। তাই বাবা-মায়ের সঙ্গে দেখা করবেন না তিনি, সেল্ফ আইসোলেশনে থাকবেন। মিমি ও জিৎ দু’জনেই জানান লন্ডনে তাদের শুটিং করতে কোনো অ’সুবিধা হয়নি। তবে, মিমির কথায়, ‘হিথরো কিংবা দুবাই বিমানবন্দর এত খালি, আগে কখনও দেখিনি।’ ইয়োরোপিয়ান ইউনিয়ন-এর সদস্য দেশগুলি থেকে কোনও ব্যক্তি ১৮ মার্চের পর আর ভারতে ফিরে আসতে পারবে না।

পুনরায় দেশে ফিরতে হলে অপেক্ষা করতে হবে আগামী ৩১ মার্চ পর্যন্ত। আর সেই জন্যই বাধ্য হয়ে গোটা টিমকে চটজলদি এই সিদ্ধান্ত নিতে হয়েছে। বাকিংহামশায়ার, ‘বাজি’র শুটিং চলছিল। সেখানেই ছিলেন দু’জনে। কিছুদিন আগেই যান তারা। যাওয়ার আগে মাস্ক পরে ছবিও পোস্ট করেছিলেন মিমি। করোনা ভাইরাসকে বুড়ো আঙুল দেখালেন সারা আলি খান>>>

লাভ আজকাল পার্ট টু-এর মুক্তির পর শেষ করেছেন কুলি নম্বর ওয়ানের শ্যুটিং। গোবিন্দা এবং কারিশ্মা কাপুর অভিনীত আইকনিক সিনেমার রিমেকে কেমন অভিনয় করবেন সারা, তা নিয়ে জোর জল্পনা শুরু হয়।সবরকমের জল্পনার মাঝেই বরুণ ধাওয়ানের সঙ্গে কুলি নম্বর ওয়ানের শ্যুটিং শেষ করেছেন সাইফ আলি খান এবং অমৃতা সিংয়ের মেয়ে। এবার কুলি নম্বর ওয়ানের পর আতরঙ্গি রে নিয়ে ব্যস্ত সারা।

তবে, সারা এখন করোনাকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে বেনারসের ঘিঞ্জিতে পুজো নিয়ে ব্যস্ত। ভারতের জি নিউজের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আতরঙ্গি রে-তে সারা আলি খানের বিপরীতে অভিনয় করছেন অক্ষয় কুমার এবং ধনুশ। সম্প্রতি এই সিনেমার প্রথম পোস্টার প্রকাশ্যেও এসে গিয়েছে। আতরঙ্গি রে-এর পোস্টারে ধনুশ, অক্ষয়ের সঙ্গে দেখা যায় সারা আলি খান।আতরঙ্গি রে-এর শুটিং বর্তমানে বেনারসে শুরু করা হবে বলে খবর।

ফলে এই সিনেমায় পরবর্তী পর্যায়ের শ্যুটিংয়ের জন্য বর্তমানে যোগীর রাজ্যে হাজির হয়েছেন সারা। মেয়ের সঙ্গে বেনারসে হাজির অমৃতা সিংও।করোনা আতঙ্কের মাঝেই বেনারসে গঙ্গার পাড়ে আরতি করতে দেখা যায় অমৃতা সিং এবং সারাকে। বেনারসে হাজির হয়ে সেখানে গঙ্গা আরতি করতে দেখা যায় সাইফ আলি খানের প্রাক্তন স্ত্রী এবং মেয়েকে। করোনা আতঙ্কের মাঝেই বেনারসে পুজো পাঠ করে গঙ্গা আরতি করার সারার সেই ভিডিও ইতিমধ্যেই ছড়িয়ে পড়েছে বিভিন্ন সোশ্যাল সাইটে।

শুধু তাই নয়, গঙ্গা আরতির পর বেনারসের রাস্তায় খোলামেলা ঘুরে বেড়াতেও দেখা যায় সারাকে। লাল রঙের সালওয়ার কামিজ পরেই বেনারসের রাস্তায় ঘুরতে শুরু করেন বলিউড অভিনেত্রী। সেই সঙ্গে খোলা রাস্তার এক কোণে বসে সারা এবং অমৃতার মন্দিরের আরতি দেখার ছবি প্রকাশ্যে আসে।প্রসঙ্গত, বেনারসের রাস্তায় ঘুরতে গিয়ে সারার হাতে মাঝে মধ্যেই কালো রঙের একটি মাস্ক চোখে পড়ে।

অর্থ্যাৎ করোনা ভাইরাসের আতঙ্কে সারা মাস্ক সঙ্গে নিয়ে ঘুরছেন বলে অনেকে মন্তব্য করতে শুরু করেন। কিন্তু সারার হাতে মাস্ক চোখে পড়লেও, তা পরতে দেখা যায়নি অভিনেত্রী। ফলে বেনারসের রাস্তায় ঘুরতে গিয়ে মাস্ক পরেই সারার সামনে আসা উচিত বলে নেটিজেনদের অনেকে তাকে পরামর্শ দিতে শুরু করেন।