দুই করোনারোগী সুস্থ : যে কোনো সময় রিলিজ পাবেন

দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত তিনজন রোগীর মধ্যে দুজন রোগী সুস্থ হয়ে উঠেছেন। তাদের যেকোনো সময় হাসপাতাল থেকে রিলিজ দেয়া হবে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য অধিদফতরের রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান (আইইডিসিআর) পরিচালক অধ্যাপক ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা। বুধবার দুপুরে আইইডিসিআরের সম্মেলন কক্ষে করোনাভাইরাস সম্পর্কিত নিয়মিত প্রেস ব্রিফিংয়ে তিনি এ সুখবর দেন।

তিনি বলেন, আজ আমরা করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের ব্যাপারে সুখবর দেব। আমরা আগেও বলে এসেছি যে তিনজন রোগী করোনাভাইরাস আক্রান্ত হয়েছিলেন তারা কেউ তেমন অসুস্থ ছিলেন না। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা নির্দেশনা অনুসারে তারা আক্রান্ত রোগীদের নমুনা পরীক্ষা করে আসছিলেন। নমুনা পরীক্ষায় পর পর দু’দিন করোনা ভাইরাসের উপস্থিতি পাওয়া না গেলে তাদের সুস্থ বলে বিবেচনা করা হয়।

আক্রান্ত তিনজনের মধ্যে দুজনের নমুনা পরীক্ষায় পরপর দুদিন ভাইরাসের উপস্থিতি পাওয়া যায়নি। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাকে এ ব্যাপারে অবহিত করে শিগগিরই দুজন রোগীকে হাসপাতাল থেকে রিলিজ দেয়া হবে বলে তিনি জানান। উল্লেখ্য, রোববার (৮ মার্চ) বাংলাদেশে প্রথম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত তিনজন শনাক্ত হয়েছেন। তাদের মধ্যে দু’জন পুরুষ ও একজন নারী। তাদের সবাইকে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে।

করোনাভাইরাসের কারনে স্কুল-কলেজ ব’ন্ধ নিয়ে যে সিদ্ধান্ত জানাল তথ্যমন্ত্রী>>> কিছু পত্র-পত্রিকা ও বিএনপি করোনাভাইরাস নিয়ে আ’তঙ্ক ছড়াচ্ছে। কিন্তু আসলে করোনাভাইরাস নিয়ে আ’তঙ্ক ছড়ানোর মত কিছু হয়নি বলে মন্তব্য করেছেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।মঙ্গলবার সচিবালয়ে তথ্য মন্ত্রণালয় সভাকক্ষে সমসাময়িক বিষয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় তিনি এমন মন্তব্য করেন। তিনি বলেন, কিছু পত্রপত্রিকা ও বিএনপি করোনাভাইরাস নিয়ে আ’তঙ্ক ছড়াচ্ছে।

কিন্তু আসলে করোনাভাইরাস নিয়ে আতঙ্ক ছাড়ানোর মতো কিছু হয়নি। বিএনপির মহাসচিবও করোনাভাইরাসের কারণে স্কুল-কলেজ বন্ধ ঘোষণা করতে বলেছেন। আসলে বিএনপি করোনা নিয়ে রাজনীতি করছে। আ’তঙ্ক ছড়াচ্ছে। স্কুল-কলেজ বন্ধ ঘোষণার করার মতো কোনো পরিস্থির সৃষ্টি হয়নি। করোনা ভাইরাস: শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধের সিদ্ধান্ত আজ বিকালে>>> বাংলাদেশে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত তিন জন শনাক্তের

ঘটনায় দেশের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ করা হবে কিনা, সে বিষয়ে মঙ্গলবার (১০ মার্চ) বিকালে সিদ্ধান্ত নেবে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। সোমবার (৯ মার্চ) রাতে মন্ত্রণালয়ের তথ্য ও জনসংযোগ কর্মকর্তা মোহাম্মদ আবুল খায়েরের পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, করোনা ভাইরাস সম্পর্কে জাতীয় পর্যায়ে বিশেষজ্ঞ প্রতিষ্ঠান আইইডিসিআরের মতামত অনুযায়ী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ করার মতো এখনও পরিস্থিত তৈরি হয়নি।

তবে শিক্ষা মন্ত্রণালয় বিশেষজ্ঞদের মতামতের ভিত্তিতে এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। এছাড়া শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে এ বিষয়ে সচেতনতামূলক প্রয়োজনীয় নির্দেশনা পাঠানো হয়েছে বলেও জানানো হয়। সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, সোমবার বিকালে রাজধানীর জাতীয় শিক্ষা ব্যবস্থাপনা একাডেমিতে (নায়েম) ১৫৮তম বুনিয়াদি প্রশিক্ষণ কোর্সের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে শিক্ষামন্ত্রী এসব কথা বলেন।

জাতীয় শিক্ষা ব্যবস্থাপনা একাডেমির (নায়েম) মহাপরিচালক অধ্যাপক আহাম্মেদ সাজ্জাদ রশীদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী এবং মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ড. সৈয়দ মো. গোলাম ফারুক।প্রসঙ্গত, দেশে করোনাভাইরাসে তিনজন আক্রান্ত হয়েছে। আক্রান্তদের মধ্যে একজন নারী ও দুইজন পুরুষ। তাদের মধ্যে একই পরিবারের দুইজন। এদের মধ্যে দুইজন সম্প্রতি ইতালি থেকে দেশে ফিরেছে। এছাড়া আরও ৩ জনকে হাসপাতালের কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। রোববার (৮ মার্চ) বিকেল সাড়ে ৩টায় রাজধানীর মহাখালীতে আইইডিসিআর কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে প্রতিষ্ঠানটির পরিচালক অধ্যাপক ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা এ তথ্য জানান।