সিলেটে করোনা স’ন্দেহ শুনেই হাসপাতাল থেকে সৌদি প্রবাসী নারী উ’ধাও

করোনাভাইরাস স’ন্দেহের কথা শুনে সিলেটে সৌদিফেরত এক নারী হাসপাতাল থেকে পা’লিয়ে গেছেন। রোগের বিস্তারিত শুনে চিকিৎসকরা করোনাভাইরাস স’ন্দেহ করার পরপরই পা’লিয়ে যান তিনি।পালিয়ে যাওয়ার কয়েক ঘণ্টা পর তাকে খুঁজে পাওয়া গেছে। মঙ্গলবার (১০ মার্চ) দক্ষিণ সুরমার নর্থইস্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে এ ঘটনা ঘটে। হাসপাতাল সূত্র জানায়, মঙ্গলবার সকালে জ্বর নিয়ে নগরীর দক্ষিণ সুরমা নর্থইস্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আসেন

মোগলাবাজার থানার ইসলামপুর গ্রামের এক নারী (৬০)। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসকরা তার রোগের বিস্তারিত শুনে ‘করোনাভাইরাস’ সন্দেহ করেন। একই সঙ্গে তাকে হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার পরামর্শ দেন। এ সময় চিকিৎসকরা ওই রোগীকে প্রয়োজনীয় কিছু পরীক্ষাও লিখে দেন। পরীক্ষা করানোর কথা বলে হাসপাতাল থেকে তিনি উধাও হয়ে যান। পরে ওই নারীর খোঁজ না পেয়ে সিলেটের সিভিল সার্জনকে বিষয়টি অবহিত করেন হাসপাতালের চিকিৎসকরা।

বিষয়টি নিশ্চিত করে সিলেটের সিভিল সার্জন ডা. প্রেমানন্দ মন্ডল বলেন, ওই নারী সপ্তাহখানেক আগে সৌদি থেকে দেশে আসেন। দেশে আসার পর তার জ্বর হলে হাসপাতালে যান। এ সময় তার কাছ থেকে রোগের বিস্তারিত তথ্য শুনে প্রবাসী হওয়ায় ‘করোনাভাইরাস’ আক্রান্ত স’ন্দেহে হাসপাতালে ভর্তি হতে বলা হয়। এরপরই হাসপাতাল থেকে ওই নারী পালিয়ে যান। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ রোগীর দেয়া তথ্য অনুযায়ী যোগাযোগ করলেও কোনো সাড়া মেলেনি।

তিনি বলেন, পরে আমরা ওই নারীর সঙ্গে কথা বলেছি। তার পরিবারের সদস্যদের সঙ্গেও কথা হয়েছে। তাকে পরামর্শ দেয়া হয়েছে তার সব পরীক্ষা-নিরীক্ষা করানোর জন্য। পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর তার যদি করোনা শনাক্ত হয় তাকে বাড়িতেই কোয়ারেন্টাইনে রাখা হবে। যদি তারা পরামর্শ না শোনেন তাহলে পুলিশি সহায়তায় তাকে নিয়ে আসা হবে। বাংলাদেশে ক’রোনা ভা’ইরাস নিয়ে পাওয়া গেল সুখবর>>>

আজ দুপুরে জাতীয় রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (আইইডিসিআর) পরিচালক অধ্যাপক ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা বলেছেন, ‘করোনাভাইরাস শনাক্তকরণে দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ৭ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে এবং এতে কারও আক্রান্ত হওয়ার লক্ষণ মেলেনি।’ আজ ১০ মার্চ মঙ্গলবার দুপুরে আইইডিসিআরে সংবাদ সম্মেলন করে তিনি এ তথ্য জানান। এ সময় ডা. ফ্লোরা বলেন,

‘গত ২৪ ঘণ্টায় আমরা আরও ৭ জনের নমুনা পরীক্ষা করেছি। তাদের শরীরে করোনা ভাইরাসের উপস্থিতি পাইনি। সবমিলিয়ে আমরা ১২৭ জনের নমুনা পরীক্ষা করেছি। এখন পর্যন্ত ৩ জনের শরীরেই করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে।’ এর আগে গত ৮ মার্চ সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (আইইডিসিআর) পক্ষ থেকে জানানো হয়, দেশে তিনজন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছেন।