করোনাভাইরাস নিয়ে গু’জব, গ্রে’প্তার ৬

করোনাভাইরাস নিয়ে গু’জব ছড়ানোর অ’ভিযোগে ইন্দোনেশিয়ায় ছয়জনকে গ্রে’প্তার করা হয়েছে। মঙ্গলবার (১০ মার্চ) বার্তা সংস্থা এপিপি তাদের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।দেশটির যোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা সিমুয়েল আব্রিজানি প্যানগারাপান বলেন, ইন্দোনেশিয়ায় করোনাভাইরাস নিয়ে যাতে অন্য কেউ গু’জব ছড়াতে না পারে এটি তাদের জন্য শিক্ষা। পু’লি’শ বলছে, সোমবার ইন্দোনেশিয়ার দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর সুরাবায়ায় একজন রোগী

করোনাভাইরাসের চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন দাবি করে ভু’য়া তথ্য ফেসবুকে পোস্ট করেছেন এক নারী। এই তথ্যের সত্যতা না পাওয়ায় তাকে গ্রে’ফতার করা হয়েছে। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে একই ধরনের মি’থ্যা তথ্য ছড়ানোর অভিযোগে দেশটিতে আরও পাঁচজনকে গ্রে’ফতার করা হয়েছে। গ্রে’ফতারকৃতদের একজন ফেসবুকে দেয়া পোস্টে সৌদি আরবে ওমরাহ পালনের জন্য যাওয়ার সময় জাকার্তা আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে করোনাভাইরাসে

সংক্রমিত এক নারী মা’রা গেছেন বলে দাবি করেন। উল্লেখ্য, ইন্দোনেশিয়ায় মিথ্যা তথ্য ছড়ানোর অ’ভিযোগে নতুন আইন করা হয়েছে। এই আইনে গু’জব ছড়ানোর সর্বোচ্চ সাজা ছয় বছরের কা’রাদণ্ড। করোনা আ’তঙ্কে মন্দিরে মূর্তির মুখে মাস্ক>>> করোনা ভাইরাস আতঙ্কে ভারতের বেনারস (বর্তমান ভারানসি) শহরের একটি মন্দিরের বিশ্বনাথ দেবতার মূর্তিতে ফেস মাস্ক পরিয়ে দেয়া হয়েছে।

এছাড়া ভক্তদের ওই মূর্তি না স্পর্শ করার আহ্বানও জানানো হয়েছে। সোমবার মন্দিরের পুরোহিত আনন্দ পান্ডে বলেন, করোনা ভাইরাস পুরো দেশজুড়ে ছড়িয়ে পড়েছে। আমরা বিশ্বনাথ দেবতার মুখে মাস্ক পরিয়েছি যাতে মানুষের মধ্যে সচেতনতা বাড়ে। যেমন আমরা শীতের সময় মূর্তির গায়ে কাপড় দেই এবং গরমে পাখা অথবা এসি দেই। এসময় আনন্দ পান্ডে আরো বলেন,

যাতে এই ভাইরাস ছড়িয়ে না পড়ে তাই আমরা মানুষদের এই মূর্তিতে স্পর্শ না করতে বলেছি। যদি মানুষ এই মূর্তি স্পর্শ করে তাহলে এই ভাইরাস ছড়িয়ে পড়তে পারে। এতে আরো বেশি মানুষ আক্রান্ত হতে পারে। ওই মন্দিরে প্রার্থনার সময়েও ভক্ত এবং পুরোহিতরা মাস্ক পরে প্রার্থনা করেন বলে জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি।