ভ’য়ঙ্কর ক’রোনাভাইরাসে আ’ক্রান্ত হওয়ার আ’শঙ্কা ট্রাম্পের!

প্রা’ণঘাতী ক’রোনাভাইরাসে আ’ক্রান্ত হওয়ার আ’শঙ্কা দেখা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের। কেননা, ক’রোনাভাইরাসে আ’ক্রান্ত রোগীর সংস্পর্শে আসার পর মার্কিন কং’গ্রেসের আরও যে দুই রিপাবলিকান সদস্য নিজেরাই কোয়ারেন্টিনে থাকার ঘোষণা দিয়েছেন, তারা খুব সম্প্রতি মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে বৈ’ঠক করেছেন এবং হাত মিলিয়েছেন। এর ফলে ট্রাম্প নিজেও এই ভা’ইরাসে আ’ক্রান্ত হয়ে থাকতে পারেন বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

সম্প্রতি কনজারভেটিভ পলিটিক্যাল একশন কনফারেন্সে এক রোগীর সংস্পর্শে আসার পর স্বেচ্ছা কোয়ারেন্টিনে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন রিপাবলিকান কংগ্রেসম্যান ডগ কলিন্স এবং ম্যাট গেইটস। এর মধ্যে ডগ কলিন্সের সঙ্গে গত শুক্রবার মার্কিন প্রেসিডেন্টের সাক্ষাৎ হয়েছে এবং তারা হাতও মিলিয়েছেন। এছাড়া ম্যাট গেইটস গত সোমবার ট্রাম্পের সঙ্গে সফর করেছেন। এর ফলে এই দুইজন আ’ক্রান্ত হয়ে থাকলে ট্রাম্পের আক্রান্ত

হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে বলে জানিয়েছে ফরাসি টিভি চ্যানেল ফ্রান্স-টুয়েন্টিফোর। এর আগে একই কারণে টেক্সাসের সিনেটর টেড ক্রুজ এবং অ্যারিজোনার রিপাবলিকান পল গোসার স্বেচ্ছা কোয়ারেন্টিনে গেছেন বলে খবর বেরিয়েছে। তবে তাদের সঙ্গে ট্রাম্পের সাক্ষাতের কোনও খবর আসেনি।রিপাবলিকান আইনপ্রণেতা গোসার রবিবার এক বিবৃতিতে বলেন, তার তিনজন স্টাফ মেম্বারসহ তিনি আ’ক্রান্ত ব্যক্তির সঙ্গে বেশকিছু সময় ছিলেন

এবং কয়েকবার হাতও মিলিয়েছেন। বিমানবন্দর থেকে পা’লিয়ে গেলেন ক’রোনা আ’ক্রান্ত যাত্রী, খুঁজছে পুলিশ>>> বিমানবন্দর থেকে পা’লিয়ে- তিনি দাগী কোনো অ’পরা’ধী নন। একেবারেই সাদামাটা সাধারণ নাগরিক। কিন্তু বিমান থেকে নেমেই নিরু’দ্দেশ হয়ে গেছেন। ফলে তার খোঁজে মাঠে নেমেছে ব্যাঙ্গালুরু পু’লি’শ ও স্বাস্থ্যক’র্তারা। কা’রণ আর কিছুই নয়, ক’রোনা ভা’ইরা’স সং’ক্র’মণের স’ন্দে’হ।

ওই ব্যক্তি গতকাল রবিবার দুবাই থেকে ব্যাঙ্গালুরু বিমানবন্দরে নামেন। বিমানবন্দরে স্ক্রিনিংয়ের পর ব্যাঙ্গালুরু জে’লা হা’সপা’তালে যেতে বলা হয় তাকে। কিন্তু তিনি হা’সপা’তালে না গিয়ে উ’ধাও হয়ে গিয়েছেন। তারপর থেকেই তোলপাড় প্রশা*সন ও স্বাস্থ্য মহলে। খবর আনন্দবাজারের! ওই ব্যক্তির বাড়িতে এখন ২৪ ঘণ্টার নজরদারি চলছে। সম্ভাব্য যেখানে যেখানে যেতে পারেন, সেই সব জায়গার পু’লি’শকেও সতর্ক করা হয়েছে।

আর সেই খবর ছড়িয়ে পড়ায় আ’তঙ্কি’ত শহরবাসীও। কর্নাট’ক স্বাস্থ্য দফতর থেকে বলা হয়েছে, ওই ব্যক্তির কাশি, হাঁচির মতো উপসর্গ ছিল। তাকে জে’লা হা’সপা’তালে পরীক্ষার জন্য যেতে বলা হয়। ১৪ দিনের জন্য ‘কোয়ারেন্টাইন’ বা আলাদা থাকতে হবে কি না, সেটা হা’সপা’তাল কর্তৃপক্ষ জানালে সেই মতো ব্যবস্থা নেওয়ার কথাও বলা হয়েছিল। কিন্তু ওই হা’সপা’তালে তিনি যাননি। তাকে খুঁজে পেতে সব রকম চেষ্টা করা হচ্ছে।

ওই ব্যক্তি বেপাত্তা হয়ে যাওয়ার পরেই পু’লি’শকে গোটা বিষয় জানানো হয়েছে। পু’লি’শও তার বাড়ির পাশে নজরদারি রেখেছে। এক পু’লি’শক’র্তা বলেন, ওই ব্যক্তিকে খুঁজে বার করে হা’সপা’তালে ভর্তি করানো হবে। ভারতে এখন পর্যন্ত ৪৩ জনের ক’রোনা আ’ক্রা’ন্ত নিশ্চিত হওয়া গেছে। সর্বশেষ কেরালায় ৩ বছরের এক শি’শু এবং ৬৩ বছরের এক বৃদ্ধার মধ্যে ক’রোনা সং’ক্র’মন পাওয়া গেছে। শি’শুটি মা বাবার সঙ্গে সম্প্রতি ইতালি থেকে ফিরেছে।