ম’হামারী ক’রোনাভাইরাস: পুরো ইতালিতে জ’রুরি অবস্থা জা’রি

ভ’য়াবহ রূপ নিচ্ছে চীন থেকে বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া প্রা’ণঘাতী করোনাভাইরাস। ইউরোপের দেশ ইতালিতে ক’রোনাভাইরাসে ক্রমেই বেড়ে চলেছে আ’ক্রান্ত ও মৃ’তের সংখ্যা। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে আ’ক্রান্তের সংখ্যা বেড়েছে ১ হাজার ৭৯৭ জন আর মৃ’ত্যু হয়েছে ৯৭ জনের। এ নিয়ে মোট আ’ক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৯ হাজার ১৭২ ও মৃ’তের সংখ্যা ৪৬৩। এদিকে প্রা’ণঘাতী এ ভা’ইরাস ছড়িয়ে পড়া ঠেকাতে পুরো ইতালিজুড়ে জ’রুরি অবস্থা জারি করেছে দেশটির সরকার।

সোমবার ইতালির প্রধানমন্ত্রীর জিউসেপ কোঁতে একটি টেলিভিশন ভাষণে বলেন, সময় খুব বেশি নেই। এসময় জনগণকে জ”রুরি প্রয়োজন ছাড়া বাইরে বের না হওয়ার নির্দেশ দেন ইতালির প্রধানমন্ত্রী। পাশাপাশি সব ধরণের গণজমায়েত, ক্রীড়া অনুষ্ঠান ও জনসমাগম সংশ্লিষ্ট বিনোদন ব’ন্ধ রাখার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। তিনি বলেন, করোনার হাত থেকে রক্ষা পেতে এছাড়া আর কোনো উপায় নেই। অনেক সময় পেরিয়ে গেছে।

এখন আমাদের আরও বেশি সচেতন হতে হবে এবং সবাই মিলে করোনা ঠেকাতে হবে। এর আগে ইতালির উত্তরাঞ্চলীয় লোম্বার্দি অঞ্চল এবং আরো ১৪টি প্রদেশের প্রায় এক কোটি ৬০ লাখ মানুষকে কোয়ারেন্টাইন বা স’ঙ্গরোধ করে রেখেছিল ইতালি সরকার। উল্লেখ্য, চীনের পর ইতালিতে করোনাভাইরাসে মৃ’তের সংখ্যা সবচেয়ে বেশি। গত রোববার থেকে ইতালিতে করোনাভাইরাসে আ’ক্রান্তের সংখ্যা ২৪ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে।

ইতোমধ্যে ইতালির ২০টি অঞ্চলে এ ভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছে। উ. কোরিয়ায় করোনায় ১৮০ সেনার মৃ,ত্যু!>>> করোনা ভাইরাসে উত্তর কোরিয়ায় এখন পর্যন্ত একশ’র বেশি সেনা সদস্যের প্রাণ গেছে বলে দাবি করেছে দক্ষিণ কোরিয়ার গণমাধ্যম। আরো ১ হাজার জন মানুষকে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে বলেও বলা হচ্ছে । তবে উত্তর কোরিয়া বলছে ভিন্ন কথা। দেশটিতে এখন পর্যন্ত কোনো করোনা রোগী শনাক্ত করা হয়নি বলে দাবি করছে পিয়ংইয়ং।

দক্ষিণ কোরিয়ার গণমাধ্যম ডেইলি এনকের দেয়া তথ্য মতে, করোনার প্রভাবে জানুয়ারি থেকে এখন পর্যন্ত উত্তর কোরিয়ায় মারা গেছে ১৮০ জন সেনা সদস্য। আর ৩৭০০ জনকে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। আবার দক্ষিণ কোরিয়ার সরকার নিয়ন্ত্রিত ইয়োনহাপ নিউজ এজেন্সির দাবি, করোনার ঝুঁকিতে প্রথমে ১০ হাজার মানুষকে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয় যাদের মধ্যে ৪ হাজার জনকে সু্স্থ হওয়ার পর হাসাপাতাল থেকে ছাড়পত্র দেয়া হয়।

তবে এসব অভিযোগ মানতে পুরোপুরো অস্বীকৃতি জানিয়েছে উত্তর কোরিয়া। উত্তর কোরিয়ার স্থানীয় সংবাদপত্র রোডং সিনমুনের বরাত দিয়ে জানানো হয়, এ পর্যন্ত করোনার কোনো লক্ষণ দেশটিতে দেখা যায়নি। উত্তর কোরিয়া এখনো করোনা থেকে মুক্ত বলে দাবি সরকারের। উত্তর কোরিয়ার সেনাদের মধ্যে যারা হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ভর্তি আছেন তাদের মেডিকেল রিপোর্ট নিয়ে করোনায় আক্রান্ত হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করছে দক্ষিণ কোরিয়ার গণমাধ্যম এনকে।