ভ’য় দেখিয়ে ছাত্রের মাকে ৮ মাস ধ’র্ষ’ণ করলো শিক্ষক ।

ছাত্রের মাকে টানা আট মাস ভ’য় দেখিয়ে ধ’র্ষ’ণ করার অ’ভি’যো’গে এক বেসরকারি স্কুল শিক্ষককে গ্রে’ফতা’র করেছে পুলিশ। স’ম্প্র’তি ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের চণ্ডীগড়ে। পুলিশ জা’নিয়েছে, অ’ভি’যু’ক্ত শিক্ষক প্রথমে ওই না’রীর শ্লী’ল’তাহা’নি করেছিল। বিষয়টি স্কুলে জানালে স্কুল থেকে উল্টো তার ছেলেকে তা’ড়ি’য়ে দেওয়ার হু’ম’কি দেখান তিনি। এরপর ওই না’রী’কে ব্ল্যা’ক’মে’ল করা শুরু করেন শিক্ষক।

ভ’য় দে’খিয়ে চণ্ডীগড়ের বিভিন্ন হোটেলে নিয়ে ধ’র্ষ’ণ করতেন। অ’ভি’যো’গ জা’নানোর সময় পুলিশের কাছে কয়েকটি হোটেলের বিলও জমা দিয়েছিলেন তিনি। এই ধ’র্ষ’ণে’র জেরে না’রী অ’ন্তঃস’ত্ত্বা হয়ে পড়লে তাকে গ’র্ভ’পা’ত করানোর চাপ দিতে থাকেন ওই শিক্ষক। এরপর স্বামীকে অ’ত্যা’চা’রের কথা জানান ওই না’রী। স্বামীকে জা’নিয়েই তিনি পুলিশে অ’ভি’যো’গ দা’য়ের করেন। অ’ভি’যু’ক্ত শিক্ষকের বি’রু’দ্ধে ভারতীয় দ’ণ্ডবি’ধির বেশ কয়েকটি ধারায় মা’ম’লা করা হয়েছে।

তাকে গ্রেফ’তার করে পুলিশ ত’দ’ন্ত শুরু করেছে। স’মঝোতায় চার বন্ধু মিলে একে অপরের স্ত্রীকে ধ’র্ষ’ণ >>> পরিক’ল্পনা করে পালা করে একে অ’পরের স্ত্রী’কে ধ’র্ষ’ন করে আসছিলেন চার বন্ধু। বিষয়টি জানাজানি হওয়ার পর আরও চারজন বন্ধুর কাছেও নিজেদের স্ত্রী’দের তুলে দেন৷ তারাও ধ’র্ষ’ণ করেন৷ঘটনাটি ঘটেছে সিঙ্গাপুরে।এ ঘটনায় মা’ম’লাও হয়েছে।সেখানকার আ’দালত এই মা’ম’লার শু’নানির সময় ওই চার না’রীর নাম গো’প’ন রাখার প্রাথমিক শ’র্ত দিয়েছেন৷

আ’দালতে না’রীরা জা’নিয়েছেন, তারা দিনের পর দিন নিগৃ’হী’ত হয়েছেন। তাদের সু’র’ক্ষা দেওয়া আ’দা’লতের প্রথম কর্তব্য৷ ২০১০ থেকে প’র্যায়ক্র’মে এই ধ’র্ষ’ণে’র ঘটনা ঘটছে৷ আ’দালত জা’না’য়, চার বন্ধু এমনভাবেই রুটিন বানাতেন যে একস’ঙ্গে তারা এক বাড়িতে গিয়ে যার বউ তিনি ছাড়া আর তিনজন সেই বাড়িতে থাকত৷ সিঙ্গাপুর হাউজিং অ্যান্ড ডেভলপমেন্ট বোর্ডে ২০১৪ সাল পর্যন্ত এই ঘটনা ঘটে৷ যুব মহিলা লীগের নেত্রীকে ধ’র্ষ’ণ করে প’লা’ত’ক স্বে’চ্ছাসেবক লীগ নেতা >>>

গাজীপুর মহানগরীর টঙ্গীতে যুব ম’হিলা লীগ নে’ত্রী’কে ধ’র্ষ’ণে’র অ’ভি’যো’গ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় বুধবার রাতে টঙ্গী পূর্ব থানায় পাঁচজনকে অ’ভিযু’ক্ত করে মা’ম’লা করেছেন ওই নেত্রী। মা’ম’লার প্র’ধান আ’সা’মি স্থানীয় ৪৬ নম্বর ও’য়ার্ড স্বে’চ্ছাসে’বক লীগ স’ভাপ’তি প’দপ্রা’র্থী আলী আসগর (৩৪) প’লাত’ক। পুলিশ বুধবার রাতেই আলী আসগরের দুই বন্ধু ও মা’ম’লার এ’জাহারভু’ক্ত আ’সা’মি হোসেন সর্দার (৩২) ও মিঠু তালুকদারকে (৩০) গ্রে’ফতা’র করেছে।

ওই নেত্রী টঙ্গী থানা যুব ম’হিলা লীগের স’ম্পাদিকা বলে জা’না গেছে। তবে দলে তার সাং’গঠনি’ক কোনো পদ নেই বলে দা’বি করেছেন স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও ম’হিলা আওয়ামী লীগের নেতারা।ওই নে’ত্রী মা’ম’লার এ’জাহারে উল্লেখ করেন, তিনি টঙ্গীতে একটি ব্য’বসা পরিচালনা করেন এবং স্বা’মীর সংসারে তার একটি ছে’লে স’ন্তান রয়েছে। বিয়ের আশ্বাসে প্র’ধান আ’সা’মি আলী আসগরের স’ঙ্গে প্রায় ১০ বছর ধরে তার প্রে’মের স’ম্পর্ক চলছে। বি’য়ের প্র’লো’ভ’ন দে’খিয়ে আ’সা’মি আলী আসগর ব’ন্ধুদের স’হযোগিতা’য় তাকে একাধিকবার ধ’র্ষ’ণ করেছে।

সর্বশেষ গত ৫ ডিসেম্বর রাত ৮টায় আসগরের ভগ্নিপতি সামরুলের ভা’ড়া বা’সা’য় নিয়ে তাকে জো’রপূর্ব’ক ধ’র্ষ’ণ করা হয়। গত মঙ্গলবার রাত ১০টায় বি’য়ে’র বি’ষ’য়ে কথা বলার জন্য স্থা’নীয় তিস্তার গেট এলাকায় তাকে ডে’কে নিয়ে মা’ম’লার আ’সা’মিরা মা’রধ’র করে এবং তার স্ব’র্ণালঙ্কার লু’টে নেয়। এদিকে স’রকা’রি দলের নে’ত্রীর এ মা’ম’লায় টঙ্গীতে তো’লপা’ড় সৃষ্টি হয়েছে। এ নিয়ে সর্বত্রই আলোচনা স’মালোচ’না চলছে। বিষয়টিকে র’হস্যজ’নক মনে করছেন অনেকে। মা’ম’লার ত’দন্তকা’রী ক’র্মক’র্তা টঙ্গী পূর্ব থানা পু’লিশের এসআই আলামিন বলেন,

বিষয়টিকে আমরা এখনও ধ’র্ষ’ণ বলতে পারছি না। কোনো না’রী থানায় ধ’র্ষণে’র অ’ভিযো’গ নিয়ে এলে আমরা মা’ম’লা নিতে বা’ধ্য। এরপর ত’দন্তে’ই প্রকৃত ঘটনা বেরিয়ে আসবে। মা’ম’লার বা’দী বা ভি’কটিমকে পরীক্ষার জন্য মে’ডিকেলে পাঠানো হয়েছে। মে’ডিকেল রি’পোর্টসহ আ’নুষঙ্গিক ত’দ’ন্ত সম্পন্ন হওয়ার পরই প্র’কৃ’ত ঘটনা বলা যাবে। একজন টোকাই হ’ত্যা’র ঘটনায় আলোচিত নে’ত্রী ও তার স্বা’মীর বি’রুদ্ধে হ’ত্যা মা’ম’লাও রয়েছে।