রাজশাহীতে বিশ্বস্ত বন্ধুর স্ত্রীর সঙ্গে প’রকীয়া, এক স্ত্রীর দাবিদার দুই স্বামী

এক নারীকে স্ত্রী বলে দাবি করেছেন দুইজন। দ্বার’স্ত হয়েছেন পুলিশের। বিষয়টি নিয়ে পুলিশও আছেন বিপাকে। কারণ ওই নারী অ’চেতন অবস্থায় রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।চাঞ্চল্যকর এ ঘটনাটি ঘটেছে রাজশাহীর বাগমা’রা উপজেলার ভবানীগঞ্জের দানগাছী মহল্লায়। তার জ্ঞান ফেরার অপেক্ষায় রয়েছেন সকলে। স্থানীরা সাংবাদিকরা জানান, দানগাছী মহল্লার মৃ’ত মোজাম্মেল হকের ছেলে শাহীন পেশায় একজন মাইক্রোবাস চালক। তার ঘরে স্ত্রী রয়েছে। পেশাগত কারণে শাহীন মাইক্রোবাস নিয়ে দূর দূরান্তে গেলে তার স্ত্রীর প্রতি কু’নজর পড়ে একই মহল্লার মৃ’ত হামেদের ছেলে সুমনের।

সে পেশায় একজন ইলেকট্রিশিয়ান। সুমন এর আগে পর পর তিনটি বিয়ে করলেও দু’টির সঙ্গে তার ছাড়াছাড়ি হয়ে গেছে। বর্তমানে তার ঘরেও রয়েছে এক স্ত্রী। স্ত্রী থাকার পরও সুমন বিশ্বস্ত বন্ধু শাহীনের স্ত্রীর সঙ্গে পরকী’য়ায় জড়িয়ে পড়েন। এমনকি শাহীন বাইরে গেলে সুমন শাহীনের স্ত্রীকে নিজ বাড়িতে নিয়ে গিয়ে রাত কা’টাতে থাকেন। গত ১ মার্চ শাহীন মধ্যরাতে বাড়ি ফিরে ডাকাডাকি করলে স্ত্রীর কোনো সাড়াশব্দ না পেয়ে প্রতিবেশী ও পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের নিয়ে রাতভর স্ত্রীকে খোঁজাখুঁজি করে ব্য’র্থ হন।

পরদিন স্ত্রীর স’ন্ধান পেতে বাগমা’রা থানায় জানালে পুলিশ শাহীনের স্ত্রীর মোবাইল ফোন ট্র্যাক করে সুমনের বাড়ির দোতলার একটি ঘর থেকে অ’চেতন অবস্থায় উ’দ্ধার করে। পুলিশ শাহীনের হাতে অ’চেতন অবস্থায় তার স্ত্রীকে তুলে দিলে চিকিৎসার জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন। এরই মাঝে সুমনও থানায় গিয়ে ওই নারীকে তার স্ত্রী বলে দাবি করেন। এর স্বপ’ক্ষে তিনি থানায় একটি কাবিননামাও দাখিল করেছেন।কাবিননামায় উল্লেখ রয়েছে গত ২৪ ফেব্রুয়ারি শাহীনের স্ত্রীকে রেজিস্ট্রি কাবিননামা মূলে বিয়ে করেছেন সুমন। বাগমা’রা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আতাউর রহমান বলেন, ওই নারীর জ্ঞান ফিরলে বিষয়টি নিষ্পত্তি করা হবে। তার পরিবারের সদস্যদেরও থানায় ডাকা হয়েছে বলে জানান তিনি।