নাগরিকত্ব আ’ইন নিয়ে এত বি’তর্ক, অথচ মোদিরই কাগজ নেই

নাগরিকত্ব আইন ও রাষ্ট্রীয় নাগরিক পুঞ্জী নিয়ে ভয়াবহ পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে ভারতে। বেশ কয়েক মাস ধরে এই দুই আ’ইন বাতিলের দাবিতে বিক্ষো’ভ চলছে। এরই ভয়াবহ মাত্রা দেখা গেছে ভারতের রাজধানী দিল্লিতে। নাগরিকত্ব আইন নিয়ে দিল্লিতে ভয়া’বহ সংঘ’র্ষে এখন পর্যন্ত ৪৩ জন নি’হত হয়েছে। এছাড়া আহতের সংখ্যা বহু। এদিকে নাগরিকত্ব আইন নিয়ে যে এত জলঘোলা তারই মধ্যে জানা গেল ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর নাগরিকত্বের কোনও কাগজপত্র নেই, জন্মসূত্রেই তিনি ভারতীয়।তথ্য অধিকার আইনে (আরটিআই) মোদীর নাগরিকত্ব নিয়ে এক ব্যক্তির প্রশ্নের জবাবে এমনই জানিয়েছে ভারতের প্রধানমন্ত্রীর দফতর (পিএমও)।

এই বছরের ১৭ জানুয়ারি শুভঙ্কর সরকার নামে এক ব্যক্তি আরটিআই-এর মাধ্যমে জানতে চান প্রধানমন্ত্রীর নাগরিকত্বের কাগজপত্র রয়েছে কি না। তারই উত্তরে নরেন্দ্র মোদির সচিব প্রবীণ কুমার জানান, ১৯৫৫ সালের নাগরিকত্ব আইনের ৩ ধারা অনুযায়ী প্রধানমন্ত্রী জন্মসূত্রেই ভারতীয়।
এদিকে সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন নিয়ে দেশজুড়ে বিক্ষো’ভের মধ্যেই এই তথ্য চাঞ্চল্য সৃষ্টি করেছে ভারতের রাজনৈতিক মহলে। বিশেষত, আসামে জাতীয় নাগরিক পঞ্জি (এনআরসি) তৈরির পরে বহু মানুষ নাগরিকত্ব প্রমা’ণে ব্যর্থ হয়ে ‘ডিটেনশন’ শিবিরে ঠাঁই পেয়েছেন। এখন প্রায় সবারই জিজ্ঞাসা এর পরে নাগরিকত্বের নথি চাওয়া হলে তারাও জন্মসূত্রে নাগরিকত্বের দাবি তোলে, তা কি গ্রহণযোগ্য হবে কিনা!