কাতার প্রবাসীর স্ত্রীকে ধর্ষণচেষ্টা, ব্যর্থ হয়ে কামড়িয়ে ক্ষত-বিক্ষত

সিঁধ কেটে ঘরে ঢুকে এক প্রবাসীর স্ত্রীকে ধ’র্ষণ চেষ্টার অভি’যোগ পাওয়া গেছে। তবে ধ’র্ষণে ব্যর্থ হয়ে ওই নারীর মুখমণ্ডলসহ শরীরের বিভিন্নস্থানে কামড়িয়ে ক্ষ’ত-বিক্ষ’ত করেছে এক বখাটে। মঙ্গলবার ভোররাতে কিশোরগঞ্জের পাকুন্দিয়া উপজেলার চরকাওনা নয়াপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এদিকে ঘটনার পর ভু’ক্তভো’গী আহত ওই গৃহবধূকে পাকুন্দিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

এ ঘটনায় ওই গৃহবধূর মা বখাটে রাহুলকে অভিযু’ক্ত করে পাকুন্দিয়া থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। এর প্রেক্ষিতে পুলিশ ঘটনার দিন দুপুরেই বখাটে রাহুলকে আ’টক করে। ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক ও উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) একেএম লুৎফর রহমান জানান, প্রবাসীর স্ত্রীকে শ্লী’লতাহা’নির অভি’যোগ প্রমাণিত হওয়ায়

ওই যুবককে দ’ণ্ডবিধি ১৮৬০ সালের ৩৫৪ ধারায় এক বছরের বিনাশ্রম কারাদ’ণ্ড দেয়া হয়েছে। দ’ণ্ডপ্রাপ্ত রাহুল উপজেলার চরকাওনা নয়াপাড়া গ্রামের মৃত হবি উল্লাহর ছেলে। জানা যায়, ভু’ক্তভো’গী ওই গৃহবধূর স্বামী কাতার প্রবাসী। এক ছেলে ও এক মেয়ে নিয়ে ওই গৃহবধূ স্বামীর বাড়িতে থাকেন। পাশের বাড়ির বখাটে রাহুল দীর্ঘদিন ধরে তাকে উ’ত্ত্যক্ত করে আসছিল।

মঙ্গলবার ভোররাতে রাহুল সিঁধ কে’টে ঘরে ঢুকে ওই গৃহবধূকে ধ’র্ষণের চে’ষ্টা চালায়। ধ’র্ষণে ব্যর্থ হয়ে রাহুল ওই গৃহবধূর গালসহ শরীরের বিভিন্নস্থানে কাম’ড়িয়ে ক্ষ’ত-বি’ক্ষত করে। এসময় ওই গৃহবধূর ডাক-চিৎ’কারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এলে রাহুল পা’লিয়ে যায়। পরে বাড়ির লোকজন ওই গৃহবধূকে উ’দ্ধার করে পাকুন্দিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।

আরো পড়ুন… কিস্তি আনতে গিয়ে প্রবাসীর স্ত্রীকে এনজিও কর্মীর ধ’র্ষণ চেষ্টা, খেলেন গণধো’লাই। রাজশাহীর বাগমা’রায় এক প্রবাসীর স্ত্রীকে (৩৮) ধ’র্ষণের চেষ্টা করায় রুরাল রিকনস্ট্রাকশন ফাউন্ডেশন (আরআরএফ) এনজিও কর্মীকে আটক করে গণধো’লাই দিয়ে পুলিশে দিয়েছে এলাকার লোকজন। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার বড়বিহানালী ইউনিয়নের বেড়াবাড়ি গ্রামে।

এ ঘটনায় থানায় মাম’লার প্রস্তুতি চলছে বলে পুলিশ জানিয়েছে। পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, আরআএফ এনজিও’র মাঠ কর্মী পারভেজ আহম্মেদ (৪৫) বুধবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) বেলা সাড়ে বারোটার দিকে উপজেলার বড়বিহানালী ইউনিয়নের বেড়াবাড়ি গ্রামে কিস্তির টাকা আদায় করতে যায়। সবাই কিস্তি টাকার দিয়ে গেলেও প্রবাসীর স্ত্রী টাকা দিতে কেন্দ্রে আসে নাই।

সময় শেষ হওয়ায় মাঠ কর্মী পারভেজ আহম্মেদ কিস্তির টাকা নিতে প্রবাসীর বাড়িতে যায়। প্রবাসীর বাড়িতে তার স্ত্রী দুপুরের রান্নার কাজ করছিল। পারভেজ আহম্মেদ বাড়িতে প্রবেশ করে প্রবাসীর স্ত্রীর কাছে কিস্তির টাকা চায়। ওই সময় প্রবাসীর স্ত্রী মাঠ কর্মী পারভেজ আহম্মেদকে বসার ব্যবস্থার জন্য চেয়ার এগিয়ে দেয়। সুযোগ বুঝে পারভেজ আহম্মেদ প্রবাসীর স্ত্রীকে জ’ড়িয়ে ধরে ধ’র্ষণের চেষ্টা করে।

প্রবাসীর স্ত্রী সুকৌশলে তার কাছ থেকে বাড়ির বাহিরে আসে এবং লোকজনকে বিষয়টি জানায়। স্থানীয় লোকজন প্রবাসীর বাড়িতে প্রবেশ করে মাঠ কর্মী পারভেজ আহম্মেদকে ধরে গণধো’লাই দিয়ে আটকে রাখে। খবর পেয়ে বাগমারা থানার পুলিশ দ্রু’ত ঘটনাস্থলে গিয়ে আ’টক এনজিও কর্মী পারভেজ আহম্মেদকে উ’দ্ধার করে বাগমারা থানায় নিয়ে যায়। এমন কর্মকান্ডের বিষয়ে জানতে উপজেলার আরআএফ অফিসে

যোগাযোগ করা হলে অফিসের কেউ বিষয়টি জানাতে পারেন নি। বিষয়টি জানার জন্য আরআএফ অফিসের শাখা ব্যবস্থাপক রাজিব হাসানের সাথে একাধিকার মুঠোফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করলেও তিনি ফোনটি রিসিভ করেন নি।বাগমারা থানার ওসি আতাউর রহমান বলেন, এনজিও কর্মীকে আ’টক রাখার খবর পেয়ে পুলিশের একটি দলকে ঘটনাস্থলে পাঠিয়েছিলাম। তারা এনজিও কর্মীকে উ’দ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। এ ব্যাপারে আই’নগত ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানান ওসি।