কাশ্মির ইস্যুতে কথা বলা ব্রিটিশ এমপিকে ভারত প্রবেশে বা’ধা

অধিকৃত জম্মু-কাশ্মীরের মানবাধিকার নিয়ে সরব এক ব্রিটিশ এমপিকে বিমানবন্দর থেকে ফেরত পাঠিয়েছে ভারত। ডেবি আব্রাহাম নামে ওই ব্রিটিশ সংসদ সদস্যকে সোমবার দিল্লির ইন্দিরা গান্ধী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে ফেরত পাঠানো হয়। সোমবার একাধিক ভারতীয় গণমাধ্যম এ সংক্রান্ত খবর প্রকাশ করে। ওই দিন সকালে ব্যক্তিগত কাজে ভারতে আসেন বলে ডেব্বি আব্রাহাম

এনডিটিভি ও ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসকে জানান। তিনি বলেন, অন্যান্য যাত্রীর সঙ্গে আমিও ইমিগ্রেশন ডেস্কের সামনে আমার নথিপত্র পেশ করেছিলাম। তার মধ্যে আমার ই-ভিসাও ছিল। কিন্তু ডেস্কে যে অফিসার ছিলেন, তিনি একবার কম্পিউটারের স্ক্রিনের দিকে তাকালেন। তারপর মাথা নাড়তে নাগলেন। পরে তিনি বললেন, আপনার ভিসা গ্রহণ করা হচ্ছে না। আমার কথা কেউ শুতেই রাজি ছিলবেন না।

তিনি অভিযোগ করেন, এরপর সেই অফিসার ডেবির পাসপোর্টটি নিয়ে চেয়ার থেকে উঠে যান। মিনিট দশেক বাদে ফিরে আসেন। এরপরই অভদ্রভাবে ব্রিটিশ সংসদ সদস্যের সাথে ব্যবহার করেন। তিনি আরো অভিযোগ করেন, যা হয়েছে তা খুবই বাজে। আমাকে দেশে ফেরথ পাঠাতেই এইসব করা হয়েছে। আমার সঙ্গে অপরাধীর মত ব্যবহার করা হয়েছে।

আশা করব কাস্টমস অফিসারদের মানসিকতার বদল হবে। বিমানবন্দর থেকেই ব্রিটেনের ভারতীয় দূতাবাসে চিঠি লেখেন ডেবি আব্রাহামস। তাঁর সঙ্গে বিশ্বা;;সঘাত;কতা হচ্ছে বলে অভিযোগ করেন তিনি। গত বছরের ৫ আগস্ট ভারত সরকার জম্মু-কাশ্মীরের স্বায়;;ত্ত্বশাসনের মর্যাদা বাতিল করে এককভাবে ভারতের সঙ্গে একীভূত করে নেয়। ডেবি আব্রাহাম শুরু থেকেই

এর বি;;রুদ্ধে সমালোচনা ও প্রতিবাদ করে আসছিলেন। ডেবি আব্রাহামের ভারতে প্রবেশাধিকার কেন প্র;;ত্যাখ্যান করা হয়েছে এবং তার ভিসা কেন বাতিল করা হয়েছে তার কোনো কারণ দেখান নি বিমানবন্দর কর্মকর্তারা। ২০২০ সালের অক্টোবর মাস পর্যন্ত আব্রাহামের ভারতীয় ভিসার মেয়াদ রয়েছে। ভারতীয় কর্তৃপক্ষ ভিসা প্রত্যাখ্যান করার পর তিনি দিল্লি থেকে দুবাই চলে যান। সেখান থেকে ব্রিটেনে ফিরবেন।