তাহসানের মত হ্যান্ডসাম হতে প্লাস্টিক সার্জারি করাচ্ছেন সৃজিত!

সৃজিত মুখোপাধ্যায় এবং তার স্ত্রী মিথিলা এখন প্রেমে হাবুডুবু খাচ্ছেন। ভালোবাসা দিবস উপলক্ষ্যে ফটোশুট করছেন তারা। মিথিলা সংবাদ মাধ্যমের হয়ে সৃজিতের সাক্ষাত্কারও নিচ্ছেন। সবই তো ঠিক ছিল। এর মাঝখানে হঠাৎ সৃজিত টাকা জমানো শুরু করেছেন বলে খবর। সদ্য বিয়ে হয়েছে, টাকা তিনি জমাতেই পারেন। কিন্তু টাকা জমানোর কারণ শুনলে প্রথমে তো চোখ কপালে উঠবেই। প্লাস্টিক সার্জারি করতে চাইছেন কলকাতার এই নামি পরিচালক।

টুইট করে এমনটাই জানিয়েছেন তিনি। আসলে সোশ্যাল মিডিয়াতে মিথিলা তাদের দু’জনের ছবি দিয়ে একটি পোস্ট করেছিলেন। পোস্টে তিনি ‘বসন্ত এসে গেছে’ গানের কয়েকটি লাইন ব্যবহার করেছিলেন। তারপরেই ট্রলের সামনে পড়তে হয়েছে মিথিলাকে। একজন বলেছেন, ‘তাহসানের মতো হ্যান্ডসাম বয় ছেড়ে দিয়ে ওল্ড বয়কে ধরেছে মিথিলা।’ সৃজিত কিন্তু ছেড়ে কথা বলেননি। রসিকতার সঙ্গে তিনি পাল্টা উত্তর দিয়ে বলেছেন, ‘আমি জানি। রোজ আয়না দেখে ফুঁপিয়ে ফুঁপিয়ে কাঁদি। বোটক্স আর প্লাস্টিক সার্জারি, দু’টোর জন্য টাকা জমাচ্ছি।’

আরো পড়ুন…তাহসান নিপাট ভদ্রলোক, আমার থেকে অনেক গুণী মানুষ- সৃজিত !! বাংলাদেশের জনপ্রিয় অভিনেতা ও গায়ক তাহসান খানের প্রশংসায় পঞ্চমু’খ হয়েছেন টলিউডের জনপ্রিয় পরিচালক সৃজিত মু’খার্জি। সম্প্রতি ঢাকার একটি হোটেলে বাংলাদেশের একটি গণমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তাহসানকে ভী’ষণ পছন্দ করার কথাও জানান তিনি। টলিউডের জনপ্রিয় পরিচালক বলেন, সত্যিই তাহসান আমার থেকে অনেক গুণী মানুষ। এত সুন্দর গান গান, এত সুন্দর পিয়ানো বাজান,

এত সুন্দর ছবিতে অভিনয় করেন। ডেফিনেটলি আমি খুবই লাকি যে এ রকম একটা কম্পা’রিজন উঠেছে, সেখানে তাহসান আবার রিপ্লাইও দিয়েছেন। ‘আমাকে বলতেই হবে যে, তাহসান একজন নি’পাট ভদ্রলোক। ওনার সঙ্গে আমার আলাপ হয়েছে। এই পরশু দিনই আমাদের দেখা হলো যখন তাহসান এসেছিলেন আইরাকে (তাহসান-মিথিলার মেয়ে) নিয়ে বেড়াতে যেতে। তো খুব কথা হলো, আড্ডাও হলো। আমার এত ভালো লাগল।’

সৃ’জিত বলেন, মিথিলা এবং তাহসানের ভালো মানুষ হওয়ার ফসলই বোধ হয় আইরা। আমি জানি না এই সম্পর্কটা বাংলাদেশের মানুষ বুঝবেন নাকি বুঝবেন না। তবে আমি সত্যিই তাহসানকে খুব পছন্দ করি। মিথিলা-তাহসানের মেয়ে আয়রাও সৃজিতকে মেনে নিয়েছেন। সৃজিত-মিথিলা চান না আয়রা ব্রোকেন ফ্যা’মিলির কষ্ট বুকে চাপা দিয়ে বেড়ে উঠুক। সৃজিত মিথিলার মেয়েকে নিজের সন্তানই মনে করেন।

আর সৃ’জিতকে ‘বু’ বলে ডাকেন ছোট্ট আয়রা। তাদের দুজনের সম্পর্ক টম অ্যান্ড জেরির মতো বলেও জানালেন অ’ভিনেত্রী মিথিলা। স্বামী সৃজিত ও মেয়ে আয়রার মধ্যকার সম্পর্ক নিয়ে বলতে গিয়ে ঢাকার এক গণমাধ্যমকে তিনি এমন তথ্য দিলেন। মিথিলা বলেন, তাদের মধ্যে এই খুনসুঁটি, এই আবার দারুণ ভাব। যখন খুব মন–কষা’কষি চলে বা আবদার করে কিছু পাওয়া যায় না, তখন আয়রার কাছে সৃজিত শুধুই সৃজিত।

তার মতে, কিন্তু যখন সৃজিতের ফোনটা আয়রার চাই, তখন খুব ভাব, তখন আয়রার কাছে সৃজিত হয়ে যায় ‘বু’। বু ডাকটা এসেছে আব্বু থেকে, ভেঙে বুঝিয়ে দিলেন সৃজিত। গত ৬ ডিসেম্বর সন্ধ্যায় বিয়ে করেছেন কলকাতার জনপ্রিয় পরিচালক সৃজিত মু’খার্জি ও বাংলাদেশের অভিনেত্রী রাফিয়াথ রশিদ মিথিলা। এই বিয়ে তাদের দুজনেরই দ্বিতীয় বিয়ে। জনপ্রিয় সংগীত’শিল্পী তাহসানের সঙ্গে মি’থিলার বিয়ে হয় ২০০৬ সালের ৩ আগস্ট। তাদের বিবাহবিচ্ছেদ হয় ২০১৭ সালের জুলাই মাসে। মিথিলা-সৃজিতের পরিচয় হয় অর্ণবের একটি মিউজিক ভিডিওতে কাজের মাধ্যমে। সেখানে থেকেই বন্ধুত্ব, তার পর প্রেম।