ফাঁস হলো চাঞ্চল্যকর তথ্যঃ রাতে একা পেয়ে মেয়েকে ঝাপটে ধরলো সৎ বাবা…

রাত তখন সাড়ে ৮টা। সৎ মেয়ের ঘরে ঢুকে সানোয়ার হোসেন নামের এক বাবা। এরপরই নিজের ভয়ং’কর রূপ প্রকাশ করে সে। মেয়েকে একা পেয়ে ঝাপটে ধরে ধ’র্ষণচেষ্টা চালায়। এ সময় মেয়ে চিৎ’কার দিলে স্থানীয়রা ওই বাবাকে গণধো’লাই দিয়ে পুলিশ সো’পর্দ করে।শনিবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) রাতে খুলনা নগরীর খানজাহান আলী থানার মিরেরডাঙ্গার কেডিএ আবাসিক এলাকায় এমন চাঞ্চ’ল্যকর ঘটনা ঘটে।

ভু’ক্তভো’গীর বরাতে স্থানীয়রা জানান, রাত ৮ টায় বাড়িতে আসে সানোয়ার হোসেন। এরপর সাড়ে ৮টায় সৎ মেয়ের ঘরে ঢুকে তাকে ঝা’পটে ধরে ধ’র্ষণ চেষ্টা চালায়। ওই সময় মেয়েটি সৎ বাবাকে ধা’ক্কা দিয়ে চি’ৎকার করতে করতে বাইরে চলে আসে। এ সময় চিৎ’কার শুনে স্থানীয়রা জড়ো হয়ে বিষয়টি জেনে সানোয়ারকে গণধো’লাই দেয়।ভু’ক্তভো’গীর মা বলেন,

আগের পক্ষের তিন ছেলে-মেয়ে নিয়ে সানোয়ারের সঙ্গে সংসার শুরু করি। নিজে আয়ার কাজ ও সানোয়ার দিনমজুরের কাজ করে। রাতে ঘরে কেউ না থাকায় মেয়েকে ধ’র্ষণচেষ্টা চালায় সানোয়ার। খানজাহান আলী থানার ওসি (তদন্ত) মো. কবির হোসেন জানান, খবর পেয়ে সানোয়ারকে আ’টক করা হয়েছে। তাকে চিকিৎসার জন্য খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় তদ’ন্ত করে প্রয়োজনীয় আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আরো পড়ুন…গোয়াল ঘরে সৌদি প্রবাসীর স্ত্রীকে ধর্ষণ করে ভিডিও করলো দুধ বিক্রেতা। কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম উপজেলায় এক গৃহবধূকে ধ’র্ষণের অভিযো’গে আমির হোসেন (৪৫) নামের এক দুধ বিক্রেতাকে আ’টক করেছে পুলিশ। শনিবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে উপজেলার কাশিনগর ইউনিয়নে এ ঘটনা ঘটে। ভু’ক্তভো’গি গৃহবধূ একই ইউনিয়নের সৌদি আরব প্রবাসীর স্ত্রী। খোঁজ নিয়ে যানা যায়, আমির হোসেন দুধ ক্রয়-বিক্রয়ের কাজ করেন।

সে সুবাদে দীর্ঘদিন ধরে তিনি ওই নারীর বাড়ি থেকে গাভীর দুধ ক্রয় করে আসছেন। প্রতিদিনের মত শনিবার আমির ওই বাড়িতে গাভীর দুধ নিতে যান। এক পর্যায়ে তিনি ভু’ক্তভো’গীকে দুধ মাপার কথা বলে গোয়াল ঘরে ডেকে নিয়ে ধ’র্ষণের চেষ্টা করেন। এতে ব্যর্থ হয়ে তার মুখে গামছা দিয়ে এবং হাত-পা রশি দিয়ে বেঁধে ধ’র্ষণ করা হয়। এ সময় ধ’স্তাধ’স্তির এক পর্যায়ে ওই গৃহবধূর

হাতে ছু’রি দিয়ে আঘা’ত করেন আমির। ছাড়া বিব’স্ত্র করে মোবাইলে ভিডিও চিত্রও ধারণ করেন তিনি। আমির চলে যাওয়ার সময় পাশের ঘরের নারীরা বিষয়টি টের পেয়ে স্থানীয় লোকজনকে জানায়। এ সময় তারা আমিরকে আ’টক করে বেঁধে রেখে পুলিশে খবর দেয়।চৌদ্দগ্রাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবদুল্লাহ আল-মাহফুজ জানান,

ধ’র্ষণের ঘটনায় স্থানীয়রা এক দুধ বিক্রেতাকে আ’টক করে। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে ভু’ক্তভো’গি গৃহবধূকে চিকিৎসার জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠিয়েছে। ডাক্তারি পরীক্ষায় জানা যাবে ওই গৃহবধূ ধ’র্ষ’ণের শি’কার হয়েছেন কিনা।তিনি আরও জানান, বর্তমানে আমির হোসেন পুলিশের কাছে আ’টক রয়েছে। মা’মলা হলে তাকে কা’রাগারে পাঠানো হবে।