কে ভোট দিল কে দিল না তা বিবেচনা করে না আওয়ামী লীগ: প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, কে ভোট দিল কে দিল না তা বিবেচনা করে না আওয়ামী লীগ। বর্তমান সরকার সার্বিক উন্নয়নে বিশ্বাসী। দেশের উন্নয়ন মানুষের চোখে পড়ছে এটাই বড় কথা।শনিবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাস ভবন গণভবনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন বোর্ডের যৌথসভা শেষে এ কথা বলেন তিনি। প্রধানমন্ত্রী বলেন,

দুর্নী’তি ও স’ন্ত্রা’সের বিরু’দ্ধে অভি’যান অব্যাহত থাকবে। গণতান্ত্রিক এ দেশে সবার জন্য কাজ করছে সরকার।তিনি বলেন, উন্নয়ন দৃশমান হচ্ছে, জনগণ উন্নয়নের সুফল ভোগ করছে।এর আগে শনিবার সন্ধ্যা ৭টায় গণভবনে এ বৈঠক শুরু হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন আওয়ামী লীগ সংসদীয় বোর্ড ও স্থানীয় সরকার জনপ্রতিনিধি মনোনয়ন

বোর্ডের সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সভায় দেশের পাঁচটি সংসদীয় আসনের উপ-নির্বাচনে পাঁচজন প্রার্থীকে মনোনীত করবে আওয়ামী লীগ। আসনগুলো হলো- ঢাকা-১০, বগুড়া-১, গাইবান্ধা-৩, যশোর-৬ ও বাগেরহাট-৪।এছাড়া চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মেয়র ও কাউন্সিলরদের প্রার্থী তালিকা চূড়ান্ত করা হবে এই বৈঠকে।

আজকের আলোচিত খবর… প্যারোলে মুক্তি পাচ্ছেন খালেদা জিয়া। কারাবন্দি সাবেক প্রধানমন্ত্রী বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া প্যারোলে মুক্তি চেয়ে আবেদন করলে ‘বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে বিবেচনার জন্য’ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ‘আন্তরিক থাকবেন’ বলে মন্তব্য করেছেন স্থানীয় সরকারমন্ত্রী তাজুল ইসলাম। খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য বর্তমান প্রধানমন্ত্রীর ‘মানবিকতা’ চেয়ে দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ক্ষমতাসীন দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরকে ফোন করার পর দিন এ কথা বললেন সরকারের এই গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রী।

গতকাল শনিবার ময়মনসিংহের ভালুকা উপজেলা পরিষদের সম্প্রসারিত ভবন উদ্বোধন ও বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্প পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন তিনি।এ সময় রাষ্ট্র খালেদা জিয়ার বিষয়ে আন্তরিক জানিয়ে স্থানীয় সরকারমন্ত্রী বলেন, ‘খালেদা জিয়া জেলখানায় আছেন, উনি বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী ছিলেন। সংবিধানের দৃষ্টিতে সব নাগরিক সমান সুযোগ পাবেন,

বেগম জিয়া যেহেতু একটি দলের প্রধান এবং উনি সাবেক প্রধানমন্ত্রী তার ব্যাপারে রাষ্ট্র অত্যন্ত আন্তরিক।’ এ সময় আইনের বিধির কথা স্মরণ করিয়ে দিয়ে তিনি বলেন, ‘খালেদা জিয়া প্যারোলে মুক্তির আবেদন করলে রাষ্ট্রের প্রচলিত আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে।’ এ সময় ওবায়দুল কাদের খালেদা জিয়াকে প্যারোলে মুক্তি দেয়ার আশ্বাস দেন।

এ সময় প্রধানমন্ত্রীও আন্তরিক জানিয়ে তিনি বলেন, ‘যেটুকু সুযোগ আছে, সীমাবদ্ধতা এবং সুযোগ সবই আমার মনে হয় রাখবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রত্যেক নাগরিকের জন্য যেমনি আন্তরিক, খালেদা জিয়ার বেলায়ও সেখানে গুরুত্ব দিয়ে বিবেচনা করার জন্য আন্তরিক থাকবেন। কিন্তু সংবিধান ও রাষ্ট্র ব্যবস্থাপনার যত সুযোগ আছে সেই সুযোগের বেশি তো আর দেয়া যায় না।’