মহানবী (সাঃ)-কে ক’টা’ক্ষ করলেই মৃ’ত্যুদ’ণ্ড ।

মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.)-কে ক’টা’ক্ষ বা অ’পমান করার শা’স্তি হিসেবে মৃ’ত্যুদ’ণ্ডের বিধান কার্যকর করতে যাচ্ছে ইসলামী গণতান্ত্রিক দেশ ব্রুনাই। এছাড়া সমকামিতা, পরকীয়া, ব্যাভিচার, ধ’র্ষ’ণের করার শা’স্তি হিসেবেও উ’ন্মুক্ত মঞ্চে পা’থর ছু’ড়ে মৃ’ত্যুদ’ণ্ডের আইন চালু করতে যাচ্ছে দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার ছোট্ট দ্বীপ রাষ্ট্রটি।

আগামী ৩ এপ্রিল থেকে দেশটিতে এই আইন কার্যকর করা হবে। তবে তার জারি করতে যাওয়া এই আইনের কারণে দেশটি আন্তর্জাতিক মহলে ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়েছে।

জাতিসংঘ সহ অনেক আন্তর্জাতিক অনেক আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থা ব্রুনাইয়ের এমন আইনের কড়া বি’রো’ধিতা করছে। জা’তিসংঘ ইতিমধ্যে ব্রুনাইয়ের এ আইনকে ‘নি’ষ্ঠুর ও অ’মানবিক’ হিসেবে আখ্যায়িত করে এর ক’ড়া সমালোচনা করেছে।

জা’তিসং’ঘের মানবাধিকার সংস্থার প্রধান মিশেল ব্যাচলেট সোমবার এক বিবৃতিতে ব্রুনাইয়ের এই আইন কার্যকর না করার জন্য আহ্বান জানিয়েছেন। এছাড়া অনেক দেশ এর তীব্র নি’ন্দা জানিয়েছেন। ব্রুনাইয়ের সুলতান হাসানাল বোলকিয়া ২০১৩ সালে ইসলামি শরিয়া আইনে দেশ পরিচালনার ঘোষণা দেন।

১৯৮৪ সালে ব্রিটিশ উপনিবেশ থেকে আলাদা হলেও এখনো ব্রিটেনের স’ঙ্গে তাদের সুসম্পর্ক রয়েছে ব্রুনাইয়ের। দেশটিতে শুরু থেকে অনেক বেশি ধর্মীয় গোঁড়ামি বলে পরিচিত। মুসলিম অধ্যুষিত ব্রুনাইয়ে মদ বিক্রি থেকে মদ্যপান সবটাই নি’ষি’দ্ধ। এছাড়া জু’য়াও দেশটিতে এক প্রকার নি’ষি’দ্ধ।

আরো খবর… চলছে ১৪৪১ হিজরি বছরের প্রথম মাস মহররম। রবিউল আউয়াল আসতে বেশিদিন বাকি নেই। আর একমাস পরেই শুরু হবে পবিত্র রবিউল আউয়াল। বিশ্বনবির জন্মদিন উপলক্ষ্যে সংযুক্ত আরব আমিরাত ১২ রবিউল আউয়ালকে সরকারি ছুটি ঘোষণা করেছে।

বিশ্বব্যাপী পবিত্র রবিউল আউয়ালে বিশ্বনবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের জন্মদিন পালন করা হয়। আবার অনেকে এ মাসজুড়ে বিশ্বনবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের সীরাত তথা জীবনী নিয়েও সভা-সেমিনার-সিম্পোজিয়া ও র‌্যালীর আয়োজন করেন।

এবার রবিউল আউয়ালে বিশ্বনবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের জন্মদিন উদযাপন করার পাশাপাশি সরকারিভাবে অফিসিয়িাল ছুটি ঘোষণা করেছে দেশটি।

মধ্যপ্রাচ্যের দেশ সংযুক্ত আরব আমিরাত ২০১৯ সালে তাদের রাষ্ট্রীয় ছুটির তালিকা প্রকাশ করেছে। আর তাতে ১২ রবিউল আউয়াল সরকারি ছুটির হিসেবে সংযোজন হয়েছে।

সংযুক্ত আরব আমিরাতের ‘দ্য ফেডালে অথরিটি অফ দ্য ইউনাইটেড আরব আমিরাত ফর হিউম্যান রিসোর্স’ (The Federal Authority of the United Arab Emirates for Human Resources) এক রাষ্ট্রীয় প্রজ্ঞাপন জারি করে এ ছুটির এ তালিকা প্রকাশ করেছে। সংশোধিত কাঠামোর ভিত্তিতে ১২ রবিউল আউয়াল ছুটির বিষয়টি অনুমোদন দিয়েছে সংযুক্ত আরব আমিরাত।