কপাল খুলছে মালয়েশিয়া প্রবাসীদেরঃ অবৈধদের বৈধতা দিতে যে ঘোষনা দিলো ।

করো'না ভাইরাসে কপাল খুলছে মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশিসহ বিদেশি অ'ভিবাসীদের। মালিক পরিবর্তনের পর এবার অবৈ'ধ অ'ভিবাসীদের বৈধ 'হতে আসতে‌ পারে সুযোগ। ইতিমধ্যেই ১০ জুন থেকে মালয়েশিয়ায় অসহায় হয়ে পড়া বিভিন্ন কল-কারখানায় কর্মর'ত বিদেশি অ'ভিবাসীদের মালিক পরিবর্তনের সুযোগ দেয় দেশটির সরকার। এবার বিভিন্ন সময়ে মালয়েশিয়ায় অবৈ'ধ প্রবেশ ও বৈধ ভাবে প্রবেশের পর যারা অবৈ'ধ হয়ে গেছে তাদের বৈধতা দেওয়ার জন্য সেদেশের সরকার বিভিন্ন মন্ত্রণালয় আলোচনা চলছে। বৃহস্পতিবার (১৮ জুন) সেদেশের প্রথম সারির একটি দৈনিকের সংবাদে অবৈ'ধ অ'ভিবাসীদের বৈধ হওয়ার সুযোগ আসতে পারে বলে খবর বেরিয়েছে।

সেদেশের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী দাতুক সেরি হা'মজা জয়নুদ্দিনের ১০০ তম দিন উপলক্ষে তিনি বলেন, অবৈ'ধ অ'ভিবাসীদের বৈধ হওয়ার জন্য আলোচনা চলছে এবং সেদেশের ইমিগ্ৰেশন ডিপোতে আট'ককৃতদেরও বৈধ হওয়ার সুযোগ পাবে। তিনি বলেন, অবৈ'ধ বিদেশী কর্মীরা বৈধভাবে নিয়োগের সুযোগ পায় তাহলে অ'ভিবাসন ডিপোতে আট'ককৃত নিয়োগকারীদের নিয়োগের অনুমতি দেওয়ার পরিকল্পনা করা হবে। বিভিন্ন সময়ে বেআইনীভাবে বসবাস ও কাজ করতে গিয়ে ধ’রা পড়েছে তাদের নিয়োগ দেওয়া যেতে পারে তবে অ’পরাধী রেকর্ডযুক্ত ব্যক্তিরা নয়।

“পরিকল্পনাটি হল নিয়োগকারীরা অবৈ'ধ অ'ভিবাসীদের মধ্যে যারা ইমিগ্রে'শন ডিপোতে বন্দী রয়েছেন তাদের মধ্যে সম্ভাব্য কর্মচারীদের সন্ধানের সুযোগ দেবেন।” “মালয়েশিয়ায় বিদেশিদের কাজ করার জন্য বৈধভাবে নিয়োগ দেওয়া হয় তা নিশ্চিত করার জন্য এটি আমা'দের কাজ করতে হবে।” মন্ত্রী অবশ্য বলেছিলেন যে এই প্রস্তাবটি বাস্তবায়িত হওয়ার আগেই এই বি'ষয় গু'লি সমাধান করা দরকার। তবে এই সব পরিকল্পনা আমা'দের বাস্তবে করা সম্ভব কিনা তা দেখার জন্য ইমিগ্রে'শন বিভাগ ও অন্যান্য সংস্থাগু'লির সাথে পরিকল্পনার বি'ষয়ে আলোচনা করা দরকার। বিদেশী কর্মী নিয়োগের বর্তমান অনুশীলন তাদের দেশ থেকে এনেছে, যা এজেন্ট এবং অন্যান্য ব্যয় প্রক্রিয়াতে জড়িত এবং একটি ব্যয়বহুল বি'ষয়। বৈধ অনুমতি ব্যতীত যারা কাজ করছেন, তাদের নির্বাসন দেওয়া হবে।

তিনি আরো বলেন ইমিগ্রে'শন বিভাগ জানুয়ারি থেকে ১৫ জুন পর্যন্ত পরিচালিত অ'ভিযানের সময় ১,,২২৬ জন অবৈ'ধ বিদেশিদের গ্রে''প্তার করেছে। এসময় অবৈ'ধ বিদেশী কর্মী নি রাখার অ’পরাধে ২৪৩ নিয়োগকারীকে গ্রে''প্তার করেছে। হা'মজা বলেছেন, দেশের সুরক্ষা নিশ্চিত করার জন্য অবৈ'ধ অ'ভিবাসীদের জন্য সি'দ্ধান্ত নেওয়া় জরুরি, উল্লেখ করে তিনি বলেন, এটি কেবল মালয়েশিয়ায় নয়, অন্যান্য দেশগু'লিরও চর্চা করা একটি নীতি। “উদাহরণস্বরূপ, মালয়েশিয়ার যারা সি''ঙ্গাপুরে কাজ করছেন তাদের অবশ্যই একটি বৈধ ওয়ার্ক পারমিট থাকতে হবে। মালয়েশিয়ার এমপ্লয়ার্স ফেডারেশনের মতে, দেশে ২.২ মিলিয়ন নথিভুক্ত কর্মীর বিপরীতে দেশে ৩.৩ মিলিয়ন অবৈ'ধ শ্রমিক থাকতে পারে বলে উল্লেখ করেন।