অপূর্ব আমাকে সেরা উপহার দিয়েছে, সংসার ভাঙার পর অদিতি

ভে’ঙে গেছে ছোট পর্দার জনপ্রিয় নায়ক জিয়াউল ফারুক অ’পূর্ব ও নাজিয়া হাসান অদিতির সাজানো সংসার। ৯ বছরের দাম্পত্য জীবনের সমা'প্তি হলো তাদের। শোনা যাচ্ছেন চলতি বছরের শুরুতে বিবাহ বিচ্ছেদ হয়ে’ছে তাদের। তবে বি'ষয়টি এতদিন গো’পন ছিল।

রোববার বিকালে নিজের ফেসবুকে রিলেশনশিপ স্ট্যাটাস ‘ম্যারিড’ পরিবর্তন করে ‘ডিভোর্সড’ লিখেন অ’পূর্বের স্ত্রী’’। এপরই আর গো'পন থাকে না তাদের ডিভোর্সের খবর। অদিতি এক স্ট্যাটাসের মাধ্যমে তুলে ধরেন তার বক্তব্য।

তিনি লেখেন, ‘আসসালামু আ’লাইকুম সবাইকে। মোহা'ম্ম'দ জিয়াউল ফারুক অ’পূর্ব একজন অমায়িক বাবা, ভাই, দায়িত্বশীল পুত্র এবং একজন ভাল মানুষ। লাখো ভক্তদের কাছে তিনি অসম্ভব মেধাবী, যা তিনি নিজেই উপার্জন করেছেন। তিনি সেখানেই তার যোগ্য। তার ব্যক্তি’গত জীবন দিয়ে নয়, দয়া করে তাঁর অসাধারণ কাজগু'লি দ্বারা তাকে বিচার করুন।

দু’র্ভাগ্যক্রমে আমর'া অসংখ্য কারণে একসাথে থাকছি না তবে আমি তার জন্য সুখী ও সমৃ''দ্ধ জীবন কামনা করছি’। তিনি আমাকে আমা'র সেরা উপহার দিয়েছেন, যেটা আমা'র পুত্র আয়াশ। সেইসাথে দিয়েছে পরিবারের সুন্দর সদস্যদের ভালবাসা।’

অদিতি আরও লিখেছেন, ‘এমন একটা সি'দ্ধান্তের জন্য দয়া করে আমা'দের কাউকে বিচার করবেন না। আপনারা আমা'দের সবসময় আমা'দের ভালবেসে এসেছেন এবং সমর'্থন করেছেন, আমর'া আশা করি এটি আপনারা অবিরত রাখবেন।

সেইসাথে সব সাংবাদিক এবং সাংবাদিকদের কাছে আমি বলতে চাই দয়া করে এই বি'ষয়ে কোনও ভুয়া সংবাদ প্রকাশ করবেন না। আমা'দের সকলের জন্য প্রার্থনা করুন। সবাই নিরাপদে থাকুন।’

অ’ভিনেত্রী প্রভার স''ঙ্গে বিবাহবিচ্ছেদের পর ২০১১ সালে নাজিয়া হাসান অদিতিকে বিয়ে করেন ছোট পর্দার জনপ্রিয় নায়ক জিয়াউল ফারুক অ’পূর্ব। শোবিজের সুখী দম্পতি হিসেবে এতদিন উচ্চারিত 'হতো তাদের নাম। তাদের সেই সংসারে জায়ান ফারুক আয়াশ নামে একটি পুত্র সন্তান রয়েছে। অ’পূর্ব সুযোগ হলেই স্ত্রী’’ ও পুত্রকে নিয়ে হাজির 'হতেন নানা অনুষ্ঠানে।