মুসলিমদের জন্য এবার যে কঠোর ঘোষণা দিলো সিঙ্গাপুর সরকার ।

করো'নাভাইরাস মহা'মা'রির কারণে এ বছরের ঈদুল ফিতরের জামায়াত ও ৯০০ আবেদনকারীর হজযাত্রা বাতিল করেছে সি''ঙ্গাপুর কর্তৃপক্ষ। শুক্রবার এ সি'দ্ধান্তের কথা জানিয়েছে ইসলামিক রিলিজিয়াস কাউন্সিল অব সি''ঙ্গাপুর (মুইস)। সারা বিশ্বের মতো সি''ঙ্গাপুরেও প্রতি বছর পবিত্র রমজানের শেষে ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনায় উদযাপিত হয় ঈদুল ফিতর,

স্থানীয় ভাষায় যা হারি রায়া আইদিলফিতরি নামে পরিচিত। সেখানে আগামী ২৪ মে অনুষ্ঠিত 'হতে পারে এবারের ঈদুল ফিতর। মুইস জানিয়েছে, ঈদের দিনও সি''ঙ্গাপুরের ৭০টি মসজিদই বন্ধ থাকবে। তবে ওইদিন সকালে মুসলিমর'া নিজ নিজ বাড়িতে পরিবারের সদস্যদের স''ঙ্গে ঈদের জামায়াতে অংশ নিতে ও খুতবা শুনতে পারবেন। স্থানীয় রে'ডিও,

টেলিভিশন চ্যানেল, মুইসের ফেসবুক পেজে জামায়াত ও খুতবা সরাসরি সম্প্রচার করা হবে। হজযাত্রা বাতিল করো'নার কারণে ঈদের জামায়াতের পাশাপাশি এ বছর সি''ঙ্গাপুরের মুসলিম'দের হজযাত্রাও বাতিল করা হয়েছে। এবারের ৯০০ আবেদনকারীর হজযাত্রার শিডিউল স্বয়ংক্রিয়ভাবে আগামী বছর নির্ধারিত হবে। এক সংবাদ সম্মেলনে সি''ঙ্গাপুরের মুসলিম বি'ষয়ক মন্ত্রী মাসাগোস জুলকিফলি বলেন,

‘এ বছর হজ করতে চাওয়া ৮০ ভাগেরও বেশি সি''ঙ্গাপুরিয়ান নাগরিকের বয়স ৫০ বছরের বেশি। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, এই শ্রেণির মানুষেরা করো'নাভাইরাসে আ'ক্রা'ন্ত হলে শরীরিক জটিলতা ও মৃ'ত্যুর ঝুঁকি বেশি।’ ‘এছাড়া, কর্মজীবী তরুণ হজযাত্রীরা চ্যালেঞ্জিং অর্থনৈতিক পরিস্থিতি বিবেচনা করে হজ পালনের জন্য ছুটিপ্রা'প্তি এবং তাদের চাকরির নিরাপত্তা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন।

সি''ঙ্গাপুরে ফেরার পর ভ্রমণকারীদের অবশ্যই ১৪ দিন বাড়িতে থাকার নোটিশের কারণে বি'ষয়টি আরও জটিল হয়ে উঠেছে।’ইসলামের পাঁচটি স্তম্ভের মধ্যে অন্যতম এবং মুসলিম'দের সর্ববৃহৎ জনসমাবেশ হজে অংশ নিতে প্রতি বছর বিশ্বের লাখ লাখ মুসলিম মক্কা-ম'দীনায় যান। গত বছরও হজে অংশ নিয়েছিলেন অন্তত ২৫ লাখ ধ'র্মপ্রাণ মুসলিম।

তবে করো'নাভাইরাস মহা'মা'রির কারণে গত মা'র্চে হজ এজেন্সিগু'লোতে এ বছরের বুকিং বা অর্থগ্রহণ নি'ষি'দ্ধ করে নির্দেশনা জারি করে সৌদি কর্তৃপক্ষ। তবে এখন পর্যন্ত ২০২০ সালের জুলাইয়ে অনুষ্ঠিতব্য হজ বাতিলের বি'ষয়ে আনুষ্ঠানিক কোনও ঘোষণা দেয়নি তারা।

সূত্র: দ্য স্ট্রেইট টাইমস