সর্বশেষ আপডেট
হিন্দুদের ইয়োগা অনুশীলন করা হচ্ছে ভারতের মসজিদে টাঙ্গাইলে করোনা ভা’ই’রা’স আ’ত’ঙ্কে প্রবাসী স্বামীকে ছেড়ে পালাল স্ত্রী যে কারণে মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষায় তৃতীয়স্থান পাওয়া ঢামেকের শিক্ষার্থীর আ’ত্ম’হ’ত্যা’র চেষ্টা দেহ ব্যবসায় বেশি বিবাহিত নারীরা, ফাঁস হলো গোপন তথ্য… মাহফিল থেকে ফেরার পথে আলোচিত মুফাসসির আব্দুল্লাহ আল-আমিন গ্রেফতার বুয়েটের সেই ইফতি এখন রকেট ইঞ্জিনিয়ার মানবপাচারে এমপি জড়িত, পররাষ্ট্রমন্ত্রী বললেন ‘ভূয়া’ ঢাকায় রেললাইনে সেলফি তোলার সময় ট্রেনের ধাক্কায় কিশোর নিহত তাহসানের মত হ্যান্ডসাম হতে প্লাস্টিক সার্জারি করাচ্ছেন সৃজিত! করোনা আক্রান্ত সন্দেহে টাঙ্গাইলে প্রবাসীর সঙ্গে যোগাযোগ বন্ধ স্থানীয়দের
বেবি পাউডারে ক্যা’ন্সারের উপাদান!

বেবি পাউডারে ক্যা’ন্সারের উপাদান!

শিশুদের জন্য ব্যাবহিত জনসন এন্ড জনসনের বেবি পাউডারে ক্ষ’তিকারক অ্য়াসবেস্টসের উপস্থিতি মিলেছে। এ নিয়ে অস্বস্তিতে পড়েছে জনসন কোম্পানিটি। এই অভিযোগের জেরে এবার জেরার মুখে পড়তে হয়েছে সংস্থার চিফ এক্সিকিউটিভ অ্যালেক্স গোরস্কিকে। এই প্রথম এই ধরনের প্রশ্নের মুখে পড়তে হলো তাকে। এদিকে সংবাদসংস্থা রয়টার্স ২০১৮ সালের ১৪ ডিসেম্বর বেবি পাউডারে ক্ষতিকারক অ্য়াসবেস্টসের উপস্থিতির বিষয়টি প্রথম জনসমক্ষে এনেছিল।

প্রতিবেদনটি প্রকাশের আগে ওই বছরের নভেম্বরে জনসন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করেছিলেন জনৈক সাংবাদিক। সরাসরি অ্যালেক্স গোরস্কি ইমেল পাঠিয়ে জনসনের বেবি পাউডারে অ্য়াসবেস্টসের উপস্থিতির সত্যতা এবং এই বিষয়ে প্রতিক্রিয়া জানতে চেয়েছিলেন তিনি। এই ইমেল পাওয়ার মাত্র ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে কোম্পানিতে নিজের শেয়ারের অংশ বিক্রি করে দিয়েছিলেন জে এন্ড জে -র চিফ এক্সিকিউভ অফিসার।

আর বেবি পাউডারে ক্যানসারের বিষের উপস্থিতির খবর রয়টার্সে প্রকাশের পরে জনসনের বাজারদর হু হু করে পড়ে গিয়েছিল। যে কারণে জে এন্ড জে -তে অ্যালেক্স গোরস্কির নিজের অংশিদারিত্ব বিক্রির সময় নিয়ে প্রবল বিতর্ক দেখা দিয়েছে। আগাম বিপদ আঁচ করে তিনি আগেভাগেই নিজের শেয়ার বিক্রি করে দিয়েছেন বলে অভিযোগ। এই নিয়েই সোমবার জেরার মুখে পড়তে হয় জনসন অ্যান্ড জনসনের কর্তাকে।

যদিও এই অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছেন তিনি। তার পালটা দাবি, শেয়ার বিক্রির আগে সাংবাদিকের পাঠানো ইমেইল তিনি দেখেননি। এর আগে ১৯৭১ সাল থেকে জনসনের বেবি পাউডারে ক্ষতিকারক অ্য়াসবেস্টস থাকার একের পর এক ঘটনা সামনে আসছে। তাদের বিরুদ্ধে এই ধরনের ১৫,০০০ মামলা চলছে। যদিও কখনই অভিযোগ স্বীকার করেনি শতাব্দী প্রাচীন এই শিশু-দ্রব্যের খ্যাতনামা সংস্থাটি। তাছাড়া গত বছরের অক্টোবরেও মার্কিন মুলুকে জনসন অ্যান্ড জনসনের বেবি পাউডারে ক্ষতিকারক অ্য়াসবেস্টসের উপস্থিতির প্রমাণ পাওয়া গিয়েছিল।

আরো পড়ুন… যে পাঁচ উপায়ে কিডনির ইনফেকশন থেকে রক্ষা মিলবে। জীবনযাত্রায় অনিয়ম ও পর্যাপ্ত পানি পানের অভাবেই কিডনির সমস্যায় ভুগতে হয় অনেকের। বর্তমানে বিশ্বের প্রায় ৮৫০ মিলিয়ন মানুষ কিডনির বিভিন্ন সমস্যায় ভুগছেন। বিষয়টি খুবই উদ্বেগজনক আকার ধারণ করছে। তবে প্রথম অবস্থায় কিডনির ইনফেকশন (সংক্রমণ) শনাক্ত করা গেলে অন্তত কিডনি বিকল হওয়ার আশঙ্কা কমে যায়। প্রথমে ইউরেনারি ট্র্যাক ইনফেকশন (মূত্রনালির সংক্রমণ) এবং পরে গলব্লাডার ইনফেকশনের (পিত্তাশয়ে সংক্রমণ) প্রভাব পড়ে দু’টো কিডনিতেই।

যদি আপনার কিডনিতে ইনফেকশন হয়েই থাকে তবে নিশ্চিন্তে কিছু ঘরোয়া উপায়ের মাধ্যমে তা সারাতে পারবেন। এবার তবে জেনে নিন কিডনি ইনফেকশনের লক্ষণসমূহ- জ্বর, পিঠে বা যে কোনো এক পাশে ব্যথা, পেটে ব্যথা, মাথা ঘোরা, বমি ভাব, প্রস্রাবে জ্বালা পোড়া ও পরিমাণে কম হওয়া, প্রসাবের রং গাঢ় হয় ও গন্ধ থাকে এবং মাঝে মাঝে প্রস্রাবের সঙ্গে রক্তও যেতে পারে। যদি এসব লক্ষণ প্রকাশ পায় তবে দেরি না করে চিকিৎসকের শরনাপন্ন হতে হবে।

পাশাপাশি ঘরোয়াভাবেও কিডনির স্বাস্থ্য ভালো রাখতে নিম্নোক্ত ঘউপায়গুলো মানতে পারেন- ১. প্রচুর পানি পান করতে হবে। এক কথায় পানির কোনো বিকল্প নেই সুস্থ থাকতে। এতে কিডনির সংক্রমণ থেকে ক্রমশ নিস্তার পাবেন। এছাড়াও প্রস্রাব বেশি হওয়ায় জ্বালা পোড়া ও গন্ধও আর হবে না। প্রতিদিন অন্তত আট গ্লাস করে পানি পান করুন। ২. ক্র্যানবেরির জুস নিয়মিত খেলে প্রস্রাবের সংক্রমণ থেকে মুক্তি পাওয়া যায়।

চিকিৎসাবিজ্ঞানে প্রমাণিত যে, ক্র্যানবেরির রস মূত্রনালির সংক্রমণের উপশম ঘটায়। এতে কিডনির সংক্রমণ ক্রমশ কমে যায়। ৩. কফি ও অ্যালকোহলমুক্ত রাখুন নিজেকে। কিডনি শরীরের এক ছাঁকনি হিসেবে কাজ করে। শরীর থেকে সমস্ত টক্সিন দূর করে কিডনি। তবে কফি ও অ্যালকোহল পান করলে কিডনির ইনফেকশন আরো বাড়বে। এছাড়াও অ্যান্টি-বায়োটিকের সঙ্গে অ্যালকোহলের সমন্বয় ঘটে না কখনো।

এজন্য এটি স্বাস্থের জন্য ক্ষতিকর। ৪. আপেল ও এর জুস নিয়মিত পান করলে কিডনির ইনফেকশন থেকে মুক্ত থাকা সম্ভব। প্রতিদিন একটি আপেল খেলে সব রোগ থেকে মুক্তি মেলে, এটি নিশ্চয় জানেন! কারণ এতে রয়েছে অ্যান্টি ইনফ্লেমেটরি উপাদানসমূহ। যা বিভিন্ন রোগের সংক্রমণ থেকে রক্ষা করে। ৫. ব্যথার ওষুধ না খেয়ে বরং যে স্থানে ব্যথা সেখানে গরম সেঁক দিতে হবে। এতে ব্যথা থেকে মুক্তি পাবেন।

ব্যথার ওষুধ খেলে এর ক্ষতিকর প্রভাবে আবারো কিডনির সংক্রমণ বাড়তে পারে। কিছুক্ষণের জন্য ব্যথা কমালেও এসব ওষুধ স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর। এজন্য ঘরোয়া উপায়ে কিডনির সংক্রমণ থেকে বাঁচতে এসব উপায় মেনে চলুন। অ্যাপেল সিডার ভিনেগার কি পারে এই সংক্রমণ থেকে বাঁচাতে? এতে রয়েছে অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল উপাদানসমূহ। যা শরীরের ক্ষতিকর ব্যকটেরিয়াকে ধ্বংস করতে পারে। এক্ষেত্রে প্রতিদিন দুই চামচ অ্যাপেল সিডার ভিনেগার এক গ্লাস পানির সঙ্গে মিশিয়ে পান করুন। দিনে অন্তত একবার খাওয়ার পূর্বে এই পানীয়টি পান করুন।

সংবাদটি শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2019 newstodaybd.com
Design BY NewsTheme