প্রাইভেট পড়ে রক্তাক্ত অবস্থায় বাড়িতে ফিরে অজ্ঞান স্কুলছাত্রী ।

প্রাইভেট পড়ে রক্তাক্ত অবস্থায় বাড়িতে ফিরে অজ্ঞান স্কুলছাত্রী ।

প্রাইভেট পড়া শেষে বাড়ি ফেরার পথে ধ’র্ষণের শি’কার হয়ে র’ক্তাক্ত অবস্থায় বাড়িতে ফিরে অ’জ্ঞান হয়েছে এক চতুর্থ শ্রেণির স্কুলছাত্রী (১২)। গুরুতর ওই ছাত্রীকে প্রথমে বরগুনা জেনারেল হাসপাতাল ও পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শেরে-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বরগুনা সদর উপজেলার এম বালিয়াতলী ইউনিয়নের লতাকাটা এলাকায় গতকাল সোমবার (২৫ নভেম্বর) সন্ধ্যায় এ ঘটনা ঘটে। ঘটনার পর ধ’র্ষক শাওনকে (১৮) আটক করেছে পুলিশ।

সে লতাকাটা গ্রামের নুরুল ইসলামের ছেলে।নি’র্যা’তিতা শিশুটির মা জানান, তার মেয়ে স্থানীয় একটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে চতুর্থ শ্রেণিতে পড়ে। কিছুদিন ধরে সে স্থানীয় মতি মিয়ার বাড়িতে প্রাইভেট পড়তে যায়। গতকাল সোমবার সন্ধ্যায় প্রাইভেট পড়া শেষে বাড়ি ফেরার পথে শাওন তাকে ধ’র্ষণ করে। এর ফলে র’ক্তাক্ত অবস্থায় বাড়িতে ফিরে সে অ’জ্ঞান হয়ে পড়ে। দ্রুত তাকে বরগুনা জেনারেল হাসপাতালে নেওয়া হয়।

সেখানে প্রাথমিকভাবে র’ক্ষক্ষ’রণ বন্ধে চিকিৎসা দেয়ার পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শেরে-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এম বালিয়াতলী ইউনিয়নের (ইউপি) চেয়ারম্যান শাহনেওয়াজ সেলিম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, অভিযু’ক্ত শাওনকে আটক করেছে পুলিশ।বরগুনা জেনারেল হাসপাতালের চিকিৎসক নীহার রঞ্জন বৈদ্য বলেন, শিশুটির যৌ’না’ঙ্গে গুরুতর যখম হওয়ায় প্রচুর র’ক্ষক্ষ’রণ হয়েছে।

এর ফলে তার অবস্থার অ’বনতি হয়েছে, সে কারণে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে বরিশালে পাঠানো হয়েছে। বরগুনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি (তদন্ত) হুমায়ুন কবির জানান, খবর পেয়ে রাতেই অভিযু’ক্ত শাওনকে আ’টক করা হয়েছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ধ’র্ষণের কথা স্বীকার করেছে সে।

সংবাদটি শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2019 newstodaybd.com
Design BY NewsTheme