সর্বশেষ আপডেট
যে ছেলেগুলোর মন সুন্দর ও পরিষ্কার হয়, এবং তারা কেয়ারিং হাজব্যান্ড ও হয় জানালেন গবেষণা । প্রেমিকাকে খুশি রাখতে গবেষণা যে সামান্য কাজ করতে বললেন । তখনই বুঝবেন আপনার স্ত্রী এ যুগের শ্রেষ্ঠ স্ত্রী? যে কারণে পুরুষরা খালি পেটে কাঁচা ছোলা খাবেন । দুই হাত ছাড়াই বিশ্ববিদ্যালয়ের গণ্ডি পেরিয়ে এই ফাল্গুনী আজ অফিসার । নে’কাব খুলতে বলায় বিমানবন্দর থেকেই ফি’রে গে’লেন মুসলিম না’রী । ১২০ কেজি স্বর্ণ খ’চিত নতুন গি’লাফে ঢে’কেছে পবিত্র কাবা । যে কারণে এয়ার ইন্ডিয়া বি’ক্রি করে দি’চ্ছে ভারত সরকার । ইউরোপের যে ৪ দেশ থেকে আসছে পেঁয়াজ,এখনি জানুন । বিদেশে নারীক’র্মী পা’ঠানো বন্ধে হাইকোর্টে রিট ।
সহকর্মীর সঙ্গে কৃষি কর্মকর্তার ১৭ মিনিটের গোপন ভিডিও ফাঁস ।

সহকর্মীর সঙ্গে কৃষি কর্মকর্তার ১৭ মিনিটের গোপন ভিডিও ফাঁস ।

নারায়ণগঞ্জের বন্দর উপজেলায় এক কৃষি কর্মকর্তার সঙ্গে তারই অফিসের নারী সহকর্মীর আপত্তিকর ভিডিও ফাঁস হয়েছে। ১৭ মিনিটের ওই ভিডিওটিতে কৃষি কর্মকর্তার সঙ্গে নারী সহকর্মীকে অন্তরঙ্গ অবস্থায় দেখা যায়।এ নিয়ে স্থানীয়দের মধ্যে তোলপাড় চলছে। তাদের অন্তরঙ্গ মুহূর্তের ১৭ মিনিট ৬ সেকেন্ডের ভিডিওটি এখন সবার হাতে হাতে ঘুরছে। ভিডিওটি ফাঁস হওয়ার পর উপজেলা কৃষি অফিসে চলছে আলোচনা-সমালোচনা।

এরই মধ্যে এ ঘটনায় জড়িত উপজেলা কৃষি অফিসের উপ-সহকারী উদ্ভিদ সংরক্ষণ কর্মকর্তা জয়নাল আবেদীন এবং তার নারী সহকর্মীকে পৃথক স্থানে বদলি করা হয়েছে।স্থানীয় সূত্র জানায়, গত ৮ আগস্ট দুপুরে উপজেলা কৃষি অফিসের উপ-সহকারী উদ্ভিদ সংরক্ষণ কর্মকর্তা জয়নাল আবেদীন নিজের কক্ষে তারই অফিসের নারী সহকর্মীকে জড়িয়ে ধরেন। একপর্যায়ে তাদের মধ্যে ঘনিষ্ঠ মেলামেশা হয়।তাদের আপত্তিকর মেলামেশার ১৭ মিনিট ৬ সেকেন্ডের একটি ভিডিও ফাঁস হয়ে যায়।

পরে তাদের ওই ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়লে ভাইরাল হয়ে যায়। ফাঁস হওয়া ভিডিওতে তাদের দুজনকে খোলামেলা এবং আপত্তিকর অবস্থায় দেখা যায়। ভিডিওটি ফাঁস হওয়ার পর স্থানীয়দের মধ্যে সমালোচনা শুরু হয়। এ নিয়ে বন্দরজুড়ে তোলপাড় চলছে।অবশ্য বিষয়টি স্বীকার করে উপজেলা কৃষি অফিসের উপ-সহকারী উদ্ভিদ সংরক্ষণ কর্মকর্তা জয়নাল আবেদীন বলেছেন, আমি ভুল করেছি।

যা করেছি, শয়তানের প্ররোচনায় পড়ে করেছি।তবে নারী সহকর্মী বলেন, জয়নাল স্যার আমার ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা। চাকরির ভয় দেখিয়ে আমার ইচ্ছার বিরুদ্ধে অনৈতিক কাজ করেছেন তিনি। চাকরির ভয়ে আমি চুপ ছিলাম। আমার কিছুই করার ছিল না। এ বিষয়ে বন্দর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা ফারহানা সুলতানা বলেন, বিষয়টি আমরা আগেই জানতে পেরেছি। এজন্য তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। অভিযুক্ত দুজনকে পৃথক স্থানে শাস্তিমূলক বদলি করা হয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2019 newstodaybd.com
Design BY NewsTheme
[X]