সর্বশেষ আপডেট
সৌদিতে না’রী ক’র্মীর বিষয়টি খুবই জটিলঃ পররা’ষ্ট্র ম’ন্ত্রী । মালয়েশিয়ার আদালতে ৪ বাংলাদেশি না’রীর কা’রাদ’ন্ড।, নেপথ্যে যে কারণ… ইতালিতে ম’সজিদে এ’কযো’গে হা’মলার প’রিক’ল্পনাঃ বিপুল পরিমান অ’স্ত্র উ’দ্ধার । মক্কায় ক্রে’ন দু’র্ঘটনাঃ আ’হত বাংলাদেশিকে যে প’রিমাণ ক্ষ’তিপূ’রণ দেয়া হলো । সৌদিতে গৃ’হক’র্মী নি’র্যা’ত’ন, দ্রু’ত’ই আ’সছে না কোন সু’সংবা’দ । গুলতেকিনের দ্বিতীয় বিয়ে নিয়ে যা বললেন বড় ছেলে নুহাশ । সৌদি থেকে ফিরেছে ৫৩ নারীর মরদেহ, যা বললেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী । কিশোরগঞ্জে কুমারী মাতার সন্তান প্রসব নিয়ে তোলপাড় । মেয়েরা মিলনের চেয়েও বেশি পছন্দ করে এই বিষয়গুলো । বিয়ের ১৮ দিনের মাথায় আসমার মৃ’ত্যু, নেপথ্য স্বামী ।
প্রেমের টানে বাংলাদেশে ভারতীয় গৃহবধূ, সীমান্তে উত্তে’জনা ।

প্রেমের টানে বাংলাদেশে ভারতীয় গৃহবধূ, সীমান্তে উত্তে’জনা ।

সিলেটের জৈন্তাপুর উপজেলার সীমান্তবর্তী এলাকার এক যুবকের সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে ভারতের সীমান্তবর্তী খাসিয়া সম্প্রদায়ের এক গৃহবধূর।গত ১২ অক্টোবর ওই গৃহবধূকে গোপনে দেশে নিয়ে আসেন বাংলাদেশি যুবক ফিরোজ মিয়া (৩৮)। এনিয়ে দুই দেশের সীমান্তবর্তী বাসিন্দাদের মধ্যে ওইদিন থেকেই উ’ত্তেজনা বিরাজ করছিলো।

এ ঘটনার জেরে মঙ্গলবার (১৫ অক্টোবর) এক বাংলাদেশি নাগরিক ও শতাধিক গরু ভারতীয়রা ধরে নিয়ে গেছে। এনিয়ে জৈন্তাপুর সীমান্তে উ’ত্তেজনা ব্যাপক আকার ধারণ করেছে।জানা যায়, ফিরোজ মিয়ার(৩৮) উপজেলার টিপরাখলা সীমান্তের বাসিন্দা হারিছ উদ্দিনের ছেলে। তিনি বিবাহিত। তার সাথে গত শনিবার পা’লিয়ে বাংলাদেশ চলে আসেন ভারতের এসপিটিলা এলাকার হেওয়াইবস্তির বাসিন্দা চংকর খাসিয়া।

এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে গত রোববার জৈন্তাপুর সীমান্তের ১২৮৮নং আন্তর্জাতিক পিলার এলাকায় দু’দেশের সীমান্তরক্ষী বাহিনীর পতাকা বৈঠক হয়। বৈঠকে ২দিনের মধ্যে ভারতীয় নারীকে ফেরত দেওয়ার আশ্বাস প্রদান করে বাংলাদেশি সীমান্তরক্ষী বাহিনী।তবে ফিরোজসহ ওই নারীকে আ’ত্মগোপনে থাকায় গত দুদিনের তাদের খুঁজে পায়নি বিজিবি।

এদিকে, এ ঘটনার জের ধরে মঙ্গলবার দুপুর ২টায় ১২৮৮নং আন্তর্জাতিক পিলার এলাকা দিয়ে ভারতীয় হেওয়াই বস্তির খাসিয়ারা বাংলাদেশ সীমান্তে প্রবেশ করে টিপরাখলা গ্রামের তজম্মুল আলীর ছেলে আব্দুন নুর (৪৫) ধরে নিয়ে যায়। এসময় হাওর থেকে শতাধিক গরু ধরে নিয়ে সীমান্তের ওপারে ধরে নিয়ে যায় তারা। ভারতীয় খাসিয়ারা বাংলাদেশী নাগরিকসহ গরু ধরে নিয়ে যাওয়ার সংবাদ পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন ১৯বিজিবি’র জৈন্তাপুর ক্যাম্পের ক্যাম্প কমান্ডার আব্দুল কাদির, নিজপাট ইউপির সদস্য মনসুর আহমদ, আব্দুল হালিম।

অপরদিকে গরু ধরে নিয়ে যাওয়া এবং নারীকে ফিরিয়ে না দেওয়াকে কেন্দ্র করে জৈন্তাপুরের টিপরাখলা সীমান্তে দু-দেশের নাগরিকদের মধ্যে উত্তে’জনা বিরাজ করছে। এ ব্যাপারে ১৯ বিজিবি’র জৈন্তাপুর ক্যাম্প কমান্ডার আব্দুল কাদির বলেন, আমি ১২ অক্টোবরের ঘটনার পর ভারতীয় বিএসএফ’এর মধ্যস্থতায় খাসিয়াদের সাথে আলাপকরে ২দিনের মধ্যে ভারতীয় নারীকে ফিরিয়ে দেওয়ার আশ্বাস দেই।

তারা আমাদের কথা আমলে নেয়।কিন্তু ফিরোজের পরিবার আমাদের কথা না রাখায় ভারতীয় খাসিয়ারা উত্তেজিত হয়ে বাংলাদেশে সীমান্তে প্রবেশ করে আব্দুন নুরসহ বেশ কিছু গরু ধরে নিয়ে যায়।আমি বিষয়টি উর্ধতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করেছি। খাসিয়ারা যাতে আর বাংলাদেশিদের গরু ধরে নিতে না পারে সে জন্য সীমান্তে টহল জোরদার করা হয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2019 newstodaybd.com
Design BY NewsTheme
[X]