ইঁদুরের বিষ্ঠা দিয়ে তৈরি হয় সিগারেট, গবেষণায় বেরিয়ে এলো তথ্য ।

ইঁদুরের বিষ্ঠা দিয়ে তৈরি হয় সিগারেট, গবেষণায় বেরিয়ে এলো তথ্য ।

সিগারেটের নে’শা নেই এমন মানুষের সংখ্যা হাতেগোনা। অথচ সিগারেট কি থেকে তৈরি তা শুনলে আঁতকে উঠবেন সকলে।সিগারেট নাকি তৈরি হয় ইঁদুরের বিষ্ঠা থেকে! শুনে চ’মকে গেলেন তো?গা গু’লিয়ে উঠল?সম্প্রতি এক গবেষণায় উঠে এসেছে তেমনই তথ্য।জানা গিয়েছে,সিগারেটের ভিতরের উপাদান গু’লির মধ্যে প্রধান উপাদানটিই নাকি ইঁদুরের বিষ্ঠা।এবং সিগারেটের ফিল্টারে ব্যবহৃত হয় শূকরের র’ক্ত।

এমনকি ওই গবেষনায় দাবী করা হয়েছে, সিগারেট কোম্পানি গু’লি কি কি উপাদান ব্যবহার করছে তা তারা গো’পন রাখতে চায়।তাদের আশ’ঙ্কা এসব জানাজানি হলে আখেরে তাদের ব্যবসাতেই মন্দা আসতে পারে।

প্রধাণত অনিয়ন্ত্রিত খাদ্যাভ্যাসের কারণেই ভারত ও বাংলাদেশের মানুষ তথা তরুণ সমাজ হৃদরোগে বেশি আক্রান্ত হচ্ছে বলে দাবি করেছেন বিশ্বের খ্যাতনামা হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ ডা. দেবী শেঠি। শনিবার (১৫ জুন) দুপুরে চট্টগ্রামের পাহাড়তলীতে ৩৭৫ শয্যা বিশিষ্ট ইমপেরিয়াল হাসপাতাল নামে একটি বেসরকারি হাসপাতালের উদ্বোধন করেন ডা. দেবী শেঠি।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে এক মতবিনিময় সভায় তিনি তরুণদের হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়ার বিষয়ে কথা বলেছেন। এ সময় দেবী শেঠী বলেন, ‘ইউরোপে হৃদরোগ হয় অবসরকালীন সময়ে অর্থাৎ ষাট বছরের পর। কিন্তু ভারত ও বাংলাদেশসহ এশিয়ার এ অঞ্চলের মানুষের হৃদরোগের সূত্রপাত হয় তরুণ

বয়স থেকেই। হৃদরোগের প্রধান কারণ হচ্ছে জিনগত। কিন্তু এ সময়ের মানুষের জীবনধারা, অনিয়ন্ত্রিত খাদ্যাভাস, ধূমপান ও ডায়াবেটিস বিভিন্ন কারণ হৃদরোগের জন্য দায়ী।’ এ সময় তিনি অভিযোগের সুরে বলেন, ‘ভারত ও বাংলাদেশের মানুষ চিকিৎসকের কাছে যায় রোগে আক্রান্ত হওয়ার পর।

কিন্তু সুস্থ থাকার সময় কেনো তারা চিকিৎসকের কাছে যায় না? সুস্থ থাকার সময়ও চিকিৎসকের কাছে যেতে হবে। সবকিছু পরীক্ষা নিরীক্ষা করে দেখতে হবে কতটা সুস্থ রয়েছেন তিনি।’ এছাড়াও বাংলাদেশ ও ভারতের চিকিৎসা পদ্ধতি প্রায় একই রকম মন্তব্য করে তিনি আরও বলেন, ‘চিকিৎসা ব্যবস্থা এক। তারপরও কিছু লোক বাইরে যাচ্ছে বিকল্প ব্যবস্থার কারণে।

ভারতে অনেকগুলো একই ধরনের হাসপাতাল রয়েছে। মানুষ বিকল্প বেছে নিতে পারছে। এখানে হয়তো এখনো সেভাবে বেশি বিকল্প তৈরি হয়নি।’ এ সময় বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো চট্টগ্রামেও হৃদরোগের আধুনিক চিকিৎসা সেবা দেওয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করে সাংবাদিকদের বলেন, ‘ইমপেরিয়াল হাসপাতালে আমাদের নারায়ণা,হাসপাতালের বিশেষজ্ঞ দল কাজ করবে। মাঝে মধ্যে আমিও আসব। আশা করি এখানকার মানুষ এবার থেকে আধুনিক চিকিৎসাসেবা গ্রহণের সুযোগ পাবে।’

সংবাদটি শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2019 newstodaybd.com
Design BY NewsTheme
[X]