সর্বশেষ আপডেট
মেডিকেলে চান্স পেলো রাজমিস্ত্রির মেয়ে জাকিয়া সুলতানা কলেজে না গিয়েও এমবিবিএস ভর্তি পরীক্ষায় দ্বিতীয় নেহা । বাংলাদেশি কর্মীদের প্রশংসা করে যা বললেন মালয়েশিয়ার পুলিশপ্রধান । বাড়ির নিচতলায় গাড়ী চালকদের জন্য থাকা ও নামাজের ব্যবস্থা করতে হবেঃ প্রধানমন্ত্রী । প্রেমের টানে বাংলাদেশে ভারতীয় গৃহবধূ, সীমান্তে উত্তে’জনা । গোয়ালঘরে শিকলে বাঁধা বৃদ্ধা মা বললেন, মোর পোলারা ভালো । সাড়ে ৮ লাখ টাকা দিয়েও চাকরি হয়নি, কাঁদলেন প্রার্থী । গরু ছেড়ে নারীদের প্রতি বেশি যত্নবান হোনঃ মোদিকে এক নারী । যে কারণে তুহিনকে নি’র্মমভাবে হ’ত্যা করলেন বাবা । পিয়ন থেকে যেভাবে ১২০০ কোটি টাকার মালিক যুবলীগের আনিস ।
নিজের সাইকেলের ধাক্কায় আ’হত প্রতিবেশীর মুরগিকে নিয়ে হাসপাতালে শিশু ।

নিজের সাইকেলের ধাক্কায় আ’হত প্রতিবেশীর মুরগিকে নিয়ে হাসপাতালে শিশু ।

একটি শিশুর সাইকেলের নিচে পড়ে তার প্রতিবেশীর মুরগির বাচ্চা। এরপর অ’পরাধবো’ধে অনুতপ্ত শিশুটির কাছে যে অর্থ ছিল তা হাতে করেই মুরগির বাচ্চাটি নিয়ে পার্শ্ববর্তী হাসপাতালে ছুটে যায় সে। ঘটনাটি ভারতের মিজোরাম রাজ্যের।

সম্প্রতি ফেসবুকে ওই শিশুটি সম্পর্কে একটি পোস্ট করেন এক ব্যক্তি। তাতে দেখা যাচ্ছে ছোট্ট ছেলেটির বাঁহাতে ধরা একটি মুরগির ছানা। আর অন্য হাতে দশ টাকার একটি নোট।

আসলে সে হাসপাতালে এসেছিল ওই মুরগির ছানাটির চিকিত্সা করানোর জন্য। কারণ, তার সাইকেলের ধা’ক্কায় ওই মুরগির ছানাটিই আ’হত হয়। তাই আহতের চিকিত্সা করাতেই সে হাসপাতালে আসে।

তার কাছে দশ টাকাই ছিল। তাই হাসপাতালে এসে সে ওই দশ টাকার বিনিময়ে আ’হত মুরগির ছানাটির চিকিত্সার আর্জি জানায়। বুধবার ভারতীয় গণমাধ্যম ইন্ডিয়াটাইমস.কমে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদনে বলা হয়, এক ফেসবুক ব্যবহারকারী শিশুটির ছবি শেয়ার করার পর তাৎক্ষণিক তা ভাইরাল হয়ে যায়। ইতোমধ্যে ৫০ হাজারের বেশি মানুষ শিশুটির ছবি শেয়ার করেছে।

ইতালিতে পিতার মৃ’ত্যুর সাত মিনিটের মাথায় এক শিশুর জন্ম হয়েছে। পর্যটন নগরী ইতালির ভেনিস মেসত্রে পলিক্লিনিক হাসপাতালে এক হৃদয়বিদারক ঘটনা ঘটে। চারমাস আগে প্রবাসী বাংলাদেশি খতিব মাওলানা নুরউদ্দিনের (৪১) ক্যানসার ধরা পড়ে। এরপর দীর্ঘ চারমাস মৃ’ত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ে অবশেষে না ফেরার দেশে চলে গেলেন।

সোমবার ৭ অক্টোবর স্থানীয় সময় দুপুরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মা’রা যান। তার বেদনাদায়ক মৃ’ত্যুতে ভেনিসে প্রবাসী বাংলাদেশিদের মাঝে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। প্রবাসী বাংলাদেশি সাংবাদিক মেসবা উদ্দিন আলাল বলেন, তিনি দীর্ঘদিন ধরে ভেনিসে পরিবার নিয়ে বসবাস করছেন। গত কয়েক মাসে আগে মরণব্যাধি ক্যানসার ধরা পড়লে হাসপাতালে ভর্তি হন।

তার স্ত্রী ও অন্তঃসত্ত্বা অবস্থায় একই হাসপাতালে ভর্তি হয়। তার শারীরিক অবস্থা আরও অবনতির দিকে যেতে থাকে। তিনি বলেন, এরই মধ্যে তার স্ত্রীর একটি কন্যা সন্তান জন্মের সাত মিনিটের মাথায় নুরউদ্দিন না ফেরার দেশে চলে যায়।

ভাগ্যের নির্মম পরিহাস একই সময় শিশুর পৃথিবীতে আগমন আর বাবার পরলোকগমন। সদ্য ভূমিষ্ঠ সন্তানের চেহারা দেখতে পারলেন না বাবা। ঘটনাটি প্রবাসীদের হৃদয় নাড়িছে। একই হাসপাতালে পাশাপাশি রুমে থেকেও সদ্য ভূমিষ্ঠ সন্তানকে একনজর দেখার সৌভাগ্য হলো না বাবার।

নিষ্পাপ মুখটি দেখার আগেই মরণব্যাধি ক্যানসারের কাছে পরাজয় বরণ করে না ফেরার দেশে চলে গেলেন। নুরউদ্দিনে দেশের বাড়ি সিলেট জেলার ওসমানী নগর থানায়, বাবা মৃত মো. মনুহর আলি। তিনি ভেনিস সেন্ট্রাল জামে মসজিদের সাবেক ইমাম ছিলেন। উল্লেখ্য, আসছে ১৩ অক্টোবর রোববার মেসত্রে পুরান মসজিদের সামনে তার জানাজা অনুষ্ঠিত হবে।-জাগো নিউজ

সংবাদটি শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2019 newstodaybd.com
Design BY NewsTheme
[X]