রানুকে কেন দেখাশুনা করেননি, জানালেন তার মেয়ে নিজেই ।

রানুকে কেন দেখাশুনা করেননি, জানালেন তার মেয়ে নিজেই ।

ভারতের বিখ্যাত কণ্ঠশিল্পী লতা মঙ্গেশকারের একটি গান কলকাতার একটি স্টেশনে গেয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হন রানু মারিয়া মণ্ডল। তবে সন্তান থাকা সত্ত্বেও কেন তাকে স্টেশনে ভিক্ষা করে জীবন ধারণ করতে হলো? কেন মায়ের জন্য এগিয়ে আসেননি রানুর মেয়ে এলিজাবেথ সাথী রায়? এসব নিয়ে এবার মুখ খুললেন রানুর মেয়ে নিজেই। বীরভূমের সিউড়িতে থাকেন রানুর মেয়ে। এলিজাবেথ সাথী রায়ের কথায়, ‘আমি জানতামই না যে মা রেলস্টেশনে গান করতেন কারণ আমি নিয়মিত মাকে দেখতে যেতাম না। কয়েকমাস আগে আমি ধর্মতলায় গিয়েছিলাম এবং মাকে একটি বাসস্ট্যান্ডে বসে থাকতে দেখি। আমি মাকে বলি, এক্ষুণি বাড়ি যাও এবং ২০০ টাকাও দিই। আমি এক কাকার অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করে যথাসম্ভব ৫০০ টাকা করে পাঠাতাম মাকে। আমি তালাকপ্রাপ্ত নারী এবং সিউড়িতে একটি ছোট মুদির দোকান চালাই। পাশাপাশি ছেলেও একাই মানুষ করছি। ছোট ছেলের দেখাশোনা করি।

নিজেকে অনেক সংগ্রাম করতে হয় আমার। তবুও আমি যতটুকু পারি মাকে দেখাশোনা করার চেষ্টা করি। আমি বেশ কয়েকবার মাকে বলেছি আমাদের সঙ্গে থাকো, কিন্তু তিনি আমাদের সঙ্গে থাকতে চান না। তবুও লোকেরা আমাকে দোষ দিচ্ছে। সবাই আমার বিরুদ্ধে একজোট হয়ে কথা বলছে। আমি এখন কার কাছে যাব?” রানুর মেয়ের অভিযোগ এখানেই শেষ হয়নি। আরও বিস্ফোরক হয়ে তিনি বলেন, ‘অতীন্দ্র, তপন এবং শয়তান ক্লাবের অন্যান্য সদস্যরা আমাকে হুমকি দিয়েছে। মায়ের কাছে যাওয়ার চেষ্টা করলে আমার পা ভেঙে দেবে বলেছে। ওরা আমাকে ফোনেও মা’র সঙ্গে যোগাযোগ করতে দেয় না। এমনকি, আমার বিরুদ্ধে মায়ের মগজ ধোলাইও করছে। আমি অসহায় বোধ করি। তপন ও অতীন্দ্র খ্যাতি চায়, তাই ওরা আমাকে সরাচ্ছে। তপন তো আমার মায়ের কাছ থেকে টাকা নেয় রোজকারের জিনিস কিনে দেওয়ার অজুহাতে। মা’র অ্যাকাউন্ট থেকে ১০ হাজার টাকাও সরিয়েছে আর মায়ের জন্য কেবল একটা স্যুটকেস এবং কয়েকটা নাইটি কিনে দিয়েছে।’ অতীন্দ্র ও তপন এবং শয়তান ক্লাবের মাধ্যমেই রানু মণ্ডলের গান গাওয়ার ভিডিও ভাইরাল হয়।

এক সময়ের উদভ্রান্ত ‘পাগলি’ মা এখন বিশাল সেলিব্রেটি। আর সে কারণেই কিনা ৮ বছর পর মায়ের খোঁজ নিয়ে দেখতে আসলেন মেয়ে স্বাতী। মেয়েকে দেখে উচ্ছ্বসিত রানু, তার মাতৃরূপ যেন বের হয়ে আসলো। মেয়েকে জড়িয়ে ধরা রানুর এই ছবি এখন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। রানাঘাট স্টেশনে লতা মঙ্গেশকরের গান ‘প্যার কা নাগমা’ গেয়ে ভাইরাল হন রানু মণ্ডল। ওই গানের পর সোজা মুম্বইতে পাড়ি দেন রানু। সেখানে গিয়ে প্রথমে একটি টেলিভিশন শো, তারপর হিমেশ রেশমিয়ার সঙ্গে গান রেকর্ড করেন রানু মণ্ডল। যা ফের ভাইরাল হয়ে যায় সোশ্যাল মিডিয়ায়। মুম্বই থেকে ফেরার পর আচমকাই রানাঘাটে রানুর সঙ্গে দেখা করতে হাজির হন তার মেয়ে স্বাতী। অথচ গত ৮ বছর একা একাই ভিখারীর জীবন কেটেছে রানুর। আজ গান ও সামাজিক মাধ্যমের কল্যাণেই যেন জীবনের নতুন অধ্যায় খুলেছেন রানু।

রানু মন্ডল। ৬০ বছর আগে জন্মেছিলেন কলকাতার এক অবস্থাসম্পন্ন পরিবারে। ভাগ্যের নির্মম পরিহাসে ছোট বেলাতেই মা-বাবাকে হারান। শুরু হয় দাদীকে নিয়ে তার একাকী জীবনযুদ্ধ। এই একাকিত্বই জাগিয়ে তোলে তার হৃদয়ে গানের জন্য অকৃত্রিম ভালোবাসা। চলে গানকে সঙ্গী করে টিকে থাকা। এরপর একদিন তার বিয়ে হয় বলিউডের উজ্জ্বল তারা ফিরোজ খানের ব্যক্তিগত পাচকের সাথে। কলকাতা থেকে চলে আসেন মুম্বাইয়ে। সিনেমার পরিবেশে সিনেমার গান নিয়ে বয়ে চলে তার লাল-নীল সংসার। প্রেমে পড়ে যান নামকরা বলিউড গায়িকা লতা মঙ্গেশকারের সুরের। মজে যান তার গানে। এরপরই আবার তার জীবনে ভাগ্যের নির্মম থাবা। হারিয়ে ফেলেন প্রিয় স্বামীকে। জীবনে আবার একাকিত্ব, আবার ঝড়।

ভাগ্যের ফেরে আজ তিনি রেলস্টেশনের গায়িকা। সম্প্রতি লতা মাঙ্গেশকারের চিরসবুজ ‘এক পেয়ার কা নাগমা হে’ গান গাওয়ারত তার একটি ভিডিও ইন্টারনেট দুনিয়ায় ভাইরাল হয়। জীবন যেন পালটে যেতে শুরু করে আরেকবার রেললাইনের মত। বলিউডের নামকরা মিউজিক ডিরেক্টর হিমেশ রেশমিয়া তাকে নিয়ে আসেন জনপ্রিয় টিভি রিয়েলিটি শো ‘সা রে গা মা পা’ তে। রানু মন্ডল সাম্প্রতিক সময়ে এক আলোচিত নাম। বলা যায়, এই সময়ের একজন অনলাইন সেলিব্রিটি। এরই মধ্যে খ্যতির স্বাদ পেতে শুরু করেছেন। পাঁচ-ছয়টি গানে সুরও দিয়েছেন। খ্যাতি আসতে না আসতে বিতর্কও নিয়ে এসেছে সাথে করে। শোনা যাচ্ছে, দানবীর বলে খ্যাত জনপ্রিয় অভিনেতা সালমান খান তাকে বাড়ি কিনে দিয়েছেন। রানু অবশ্য বলছেন, সালমান খানের সাথে তার এখনও দেখা হয় নি। তবে তার ‘তেরে নাম’ খুব ভালো লেগেছে। রানু তার জীবন সম্পর্কে বলেন, পেছন ফিরে তাকালে তার নিজের জীবনকে কোনো সিনেমার গল্প থেকে কোনো অংশে কম মনে হয় না। আসলেই এত চড়াই-উতরাই পেরিয়ে জীবন তো আর কোন সিনেমার গল্প থেকে কম না!

সংবাদটি শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2019 newstodaybd.com
Design BY NewsTheme