সর্বশেষ আপডেট
রণবীর আলিয়ার বিয়ের কার্ড ভা ‘ইরাল

রণবীর আলিয়ার বিয়ের কার্ড ভা ‘ইরাল

বলিউড তারকা রণবীর কাপুর ও আলিয়া ভাটের প্রেম কাহিনী ভক্তদের অজানা নয়। কখনও শপিং এ, কখনও ভ্রমণে একে অপরকে সঙ্গী হিসেবে নেন তারা। প্রতিনিয়ত তাদের প্রেম নিয়ে নতুন নতুন খবর শোনা যায়। তাদের প্রেম ও বিয়েতে দুই পরিবারের সম্মতি আছে বলেও জানা যায়।

এবার শোনা যাচ্ছে, বিয়ে করছেন তারা। বিভিন্ন হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে তাদের বিয়ের কার্ড নাকি ভাইরাল হয়েছে। শোনা যাচ্ছে, বিয়ে হবে ২২ জানুয়ারি, যোধপুরের উমেদ ভবন প্যালেসে, যেখানে প্রিয়াঙ্কা চোপড়ার বিয়ে হয়েছিল।

গতকাল সোমবার রাত থেকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নিমন্ত্রণপত্র ঘুরছে। কার্ডে আলিয়ার বাবার নাম ছাপানো হয়েছে মুকেশ ভাট, যদিও তিনি মহেশ ভাটের মেয়ে, মুকেশ তার কাকা। আলিয়া নামের বানানও ভুল, আলিয়া নামে কখনও ওয়াই ব্যবহার করেন না। তা ছাড়া হাই প্রোফাইল বিয়ের কার্ড হিসেবে এ কার্ডের মানও যথেষ্ট নিম্নস্তরের। আলিয়াকে এই কার্ড নিয়ে জিজ্ঞেস করা হলে তিনি হেসেছেন শুধু। কার্ডের সত্যতা পাওয়া যাচ্ছে না।

আরো পড়ুন… হাজারো ভক্তের হৃদয় ভেঙে বিয়ের পিঁড়িতে বসতে যাচ্ছেন সাবিলা নূর। দীর্ঘ দিনের প্রেমিক নেহাল সুনন্দ তাহেরের সঙ্গে আগামী ২৫ অক্টোবর বিয়ের পিঁড়িতে বসতে যাচ্ছেন তিনি। সাবিলা নূরের একাধিক ঘনিষ্ঠ সূত্র এমন তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এদিকে জানা গেছে, পাত্র নেহাল সুনন্দ তাহের পেশায় একজন ইঞ্জিনিয়ার। বর্তমানে তিনি বেসরকারি এসএটিভিতে কর্মরত রয়েছেন। তার দেশের বাড়ি চাঁদপুর। নেহালের বাবা আবু তাহের ছিলেন বাংলাদেশ বেতারের সাবেক উপ মহাপরিচালক ও মা উম্মে কুলসুম ঢাকার একটি কলেজের চীফ কো-অর্ডিনেটর অফিসার।

এদিকে সাবিলা নূরের বিয়ের বিষয়ে তার এক ঘনিষ্ঠ বন্ধু নাম প্রকাশ না করার শর্তে গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন, এরই মধ্যে ভারতে গিয়ে বিয়ের শপিং করে এসেছেন দুইজন। এছাড়া চলতি মাসের শুরু থেকে বিয়ের জন্য একাধিক নাটকের কাজ ফিরিয়েছেন এই অভিনেত্রী।

তবে এ প্রসঙ্গে কথা বলতে সাবিলা নূরের সঙ্গে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তার সাড়া পাওয়া যায়নি। তবে এরই মধ্যে সাবিলা নূরের বিয়ের আমন্ত্রণ পত্রের ছবি এসেছে গণমাধ্যমের কাছে।

এর আগে গত ২০১৪ সালে সাবিলা নূর মডেলিংয়ের মাধ্যমে মিডিয়াতে পা রাখেন। এরপর একাধিক জনপ্রিয় বিজ্ঞাপনে কাজ করেছেন। এরপর কয়েকটি খণ্ড নাটকে অভিনয় করেন তিনি।

সরাসরি না বললেও বিয়ের ইঙ্গিত দিয়েছেন ‘ঢালিউড কুইন’ ও ঢালিউড সুপারস্টার শাকিবের ডিভোর্সি স্ত্রী অপু বিশ্বাস। প্রতিটি ক্ষেত্রে পরিবারের সহযোগিতা পেয়েছেন, তাই তারা যা চাইবেন সে ইচ্ছাই পূরণ করবেন বলে জানান ‘মনে প্রাণে তুমি’ সিনেমার এই অভিনেত্রী।অপুর সঙ্গে বেশ কয়েকটি বিষয়ে কথা হয়। তখনই বিয়ের ব্যাপারে ইঙ্গিত দেন তিনি।

ঢালিউডের নাম্বার ওয়ান তারকা শাকিব খানের সঙ্গে বিয়ে বিচ্ছেদের পর থেকেই বাবা-মার সঙ্গে বসবাস করছেন অপু বিশ্বাস। ছেলে আব্রাম খান জয়ও থাকে মায়ের কাছে।যেহেতু পরিবারের সঙ্গে আছেন, তাদের ভবিষ্যত পরিকল্পনা কী জানতে চাওয়া হলে অপু বলেন, ‘নট শিওর, বাট দেখা যাক। যেহেতু বরাবরই আমার পরিবার আমাকে সবচেয়ে বেশি হেল্প করেছে। আমার ধর্ম আমাকে যেখানে প্রেফার করছে, তো দেখা যাক।’

ইদানিং অপু বিশ্বাসের ‘ধর্ম’ পালন নিয়ে নানা ধরনের কথা উঠেছে বিভিন্ন মহলে। তবে বিষয়টি বরাবরই এড়িয়ে গেছেন এই চিত্রনায়িকা। এবার ধর্ম প্রসঙ্গ তিনি বলেন, ‘সব ধর্মের প্রতি আমার শ্রদ্ধা রয়েছে। তাদের সঙ্গে থাকতে গিয়ে, আমি চেয়েছিলাম সারাজীবন অবশ্যই তাদের সম্মান দিয়ে যাবো। যেহেতু অল্প সময়ের মধ্যে অনেক কিছু হয়ে গেছে, তার জন্য আমাকে তো আর কাগজ কলমে তারা কিছু করেননি, সে প্রমাণও তাদের কাছে নাই। আমি মনে প্রাণে বিশ্বাস করেছিলাম (ইসলাম ধর্মের কথা), আমি এখনও করি। কিন্তু আমার বাবা-মার সঙ্গে থেকে তো আমি ওটা করতে পারিনা।’

আপনি কী হিন্দু ধর্মেই থাকছেন? উত্তরে অপু বিশ্বাস বলেন, ‘হ্যা, আমি ওই ধর্মেই (হিন্দু ধর্ম) আছি। আমি পূজা করবো এবার, দূর্গাপূজা করবো এবার। আমি বরাবরই করে আসছি।’এর আগেও বিভিন্ন সময় অপু বিশ্বাস বিয়ে করছেন বলে সংবাদমাধ্যমে খবর প্রকাশিত হয়েছিল। ঢাকাই ছবির আরেক অভিনেতা বাপ্পি চৌধুরীকে বিয়ে করছেন, এমন খবরও চাউর হয়েছিল।কিন্তু বরাবরই খবরগুলোকে গুজব বলে উড়িয়ে দিয়েছেন ‘রাজনীতি’ সিনেমার এই অভিনেত্রী। তবে এবার তার পরিকল্পনা কী, জানতে অপেক্ষা করে থাকতে হবে ভক্তদের।

সংবাদটি শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2019 newstodaybd.com
Design BY NewsTheme
[X]