সর্বশেষ আপডেট
সৌদিতে বাসে আগুনে নিহত ৯ জন বাংলাদেশীর নাম প্রকাশ ।

সৌদিতে বাসে আগুনে নিহত ৯ জন বাংলাদেশীর নাম প্রকাশ ।

সৌদি আরবে ওমরাহ যাত্রীবাহী বাস দু’র্ঘটনায় নি’হত ১১ বাংলাদেশির মধ্যে নয় জনের নাম প্রকাশ করেছে জেদ্দায় অবস্থিত বাংলাদেশ কনস্যুলেট। আজ রোববার কনস্যুলেট এক বিজ্ঞপ্তিতে তাদের নাম প্রকাশ করেছে।নি’হতরা হলেন- মোক্তার, বেলাল, হুমায়ন, নাছির, রুহুল আমিন, মনু মিয়া, হাকিম, সাকিব ও ফারুক।

গত ১৬ অক্টোবর সৌদি আরবের স্থানীয় সময় সন্ধ্যা সাড়ে সাতটায় রাজধানী রিয়াদ থেকে আসা উমরাহ যাত্রীবাহী একটি বাস দু’র্ঘটনায় পড়লে তাতে আগুন ধরে যায়। এতে মোট ৩৬ যাত্রী নি’হত হন। তাদের মধ্যে ১১ জন বাংলাদেশি ছিল বলে জানিয়েছে জেদ্দায় বাংলাদেশ কনস্যুলেট।রাজধানী রিয়াদে বাংলাদেশ দূতাবাস ও জেদ্দা বাংলাদেশ কনস্যুলেট সূত্রে বলছে, বাসটিতে ভ্রমণকারী বাংলাদেশি উমরাহ যাত্রীরা তাদের কোনো বৈধ কাগজপত্র জমা না দেয়ায় তাদের পরিচয় শনাক্ত করতে বিলম্ব হচ্ছে।

দূতাবাস আরও জানিয়েছে, প্রকাশিত নামের কোনো প্রবাসী যদি নিখোঁজ থাকেন, তাহলে তাদের পরিবারকে রিয়াদ বাংলাদেশ দূতাবাস অথবা জেদ্দা বাংলাদেশ কনস্যুলেটে জেনারেলে যোগাযোগ করার আহ্বান জানানো হয়েছে। উল্লেখ্য, সৌদি আরবের রাজধানী রিয়াদের বাথা এলাকার দার আল মিকাত উমরাহ অফিস থেকে ছেড়ে যাওয়া ৪০ জন উমরাহ যাত্রীবাহী বাসে আ’গুন দরে যায়। যাদের মধ্যে ৩৬ জন দুর্ঘটনাস্থলে মা’রা যায়, আহত হন চার জন।

নি’হত ৩৬ জনের মধ্যে ১১ জন বাংলাদেশি ছিল বলে গতকাল বেলা ১১ টায় বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেদ্দা’র শ্রম কল্যাণ উইং এক বিজ্ঞপিতে জানিয়েছে। ২৯৯ আরোহী নিয়ে চীনের গুয়াংজু থেকে সৌদি আরবের রিয়াদগামী সৌদি অ্যারাবিয়ান এয়ারলাইন্সের একটি বোয়িং ৭৮৭-৯ উড়োজাহাজ ঢাকায় হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে জরুরি অবতরণ করেছে। এ ঘটনায় কোনো হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি।উড়োজাহাটির একটি ইঞ্জিন বন্ধ হওয়ায় এটি জরুরি অবতরণে বাধ্য হয় বলে বিমানবন্দর সূত্র জানায়।

সূত্র জানায়, গুয়াংজু থেকে ২৯৯ জন যাত্রী নিয়ে সোমবার স্থানীয় সময় বিকাল ৪টা ২৩ মিনিটে সৌদি অ্যারাবিয়ান এয়ারলাইন্সের এসভি ৮৮৫ ফ্লাইটটি ছেড়ে আসে। ফ্লাইটটি রিয়াদে স্থানীয় সময় সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় অবতরণের কথা ছিল। কিন্তু বাংলাদেশের কাছাকাছি আসার পর বিমানের ইঞ্জিনে ত্রুটি দেখা দিলে পাইলট ঢাকার শাহজালাল বিমানবন্দরে জরুরি অবতরণের সিদ্ধান্ত নেন।

হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের পরিচালক উইং কমান্ডার এএইচএম তৌহিদ-উল আহসান গণমাধ্যমকে বলেন, পাইলট জরুরি অবতরণের সিদ্ধান্ত জানানোর পরই আমরা সব ধরনের প্রস্তুতি নিয়ে রেখেছিলাম।

সংবাদটি শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2019 newstodaybd.com
Design BY NewsTheme
[X]