সৌদি প্রবাসীরা এখনই জেনে নিন – সৌদিতে অবৈধ ভাবে ভিসা বিক্রিতে ধরা পড়লে যত রিয়াল জরিমানা ।

সৌদি প্রবাসীরা এখনই জেনে নিন – সৌদিতে অবৈধ ভাবে ভিসা বিক্রিতে ধরা পড়লে যত রিয়াল জরিমানা ।

নিউজ টুডে বিডির পক্ষ থেকে আপনাকে স্বাগতম, আজকে একবারের আলোচনায় রয়েছে, সৌদি প্রবাসীরা এখনই জেনে নিন – সৌদিতে অবৈধ ভাবে ভিসা বিক্রিতে ধরা পড়লে ৫০ হাজার রিয়াল জরিমানা সেই বিষয়ে বিস্তারিত ।

পুরো নিউজ টি পড়ে বিস্তারিত জানার অনুরোধ রইলো । সৌদি আরবে যে সকল প্রবাসীরা ভিসা কেনা বেচার সাথে জড়িত আছেন, তারা সাবধান । স্মপ্রতি রিয়াদে অনুষ্ঠিত এক সভায় সৌদি আরবের স্রমো ও সামাজিক উন্নয়ন মন্ত্রী জনাব আহমেদ আল রাজিস স্রমো আইনে নতুন করে বেশ কিছু সংশোধনের কথা জানিয়েছেন এবং সেই সাথে নতুন কিছু আইনের অনুমোদন দিয়েছেন ।

নতুন আইনে বলা হয়েছে যারা ওয়ার্ক ভিসা বিক্রির সাথে জড়িত বা ভিসা বিক্রির ক্ষেত্রে দালাল হিসেবে কাজ করে তাদেরকে সৌদি আরবের ৫০ হাজার রিয়াল জরিমানা করা হবে । নতুন স্রমো আইনে আরো বলা হয়েছে কোনো ফ্রামের মালিক বা নিইয়োগকারী যদি মন্ত্রণালয়কে ভিসা পাওয়ার জন্য ভুল তথ্য প্রদান করে তাহলে তাকে ২৫ হাজার রিয়াল জরিমানা করা হবে ।

এ ছাড়া কোনো ব্যক্তি যদি দালাল হিসেবে মদস্ততা করে অবৈধ ভাবে ওয়ার্কিং ভিসা প্রসেস করে তাকেও একি জরিমানা গুনতে হবে । স্রমো মন্ত্রি এই আইন কঠোর ভাবে কার্জকর করার জন্য স্রমো মন্ত্রনালয়কে নির্দেশ দিয়েছেন ।

শ্রমিকদের জন্য স্রমো ক্ষেত্র আরো সহজ ঝামেলামুক্ত এবং ভুগান্তিমুক্ত করার জন্যই এই আইন প্রনয়ণ করা হয়েছে । নতুন এই স্রমো আইন কার্যকর হলে অবশ্যই প্রবাসীদের জন্য ভালো হবে । খবরটি আপনারা যারা পোড়ছেন সকলে শেয়ার করুন । যাতে করে অণ্যরা জানতে পারে । সৌদি আরবের সকল গুরুত্তপূর্ণ খবর জানতে আমাদের সাথেই থাকুন ধন্যবাদ ।

আরো খবর… যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক সংস্থা দ্য হ্যানলি অ্যান্ড পার্টনার্স বিশ্বের ২০০টি দেশের ওপর গবেষণা জরিপ চালিয়ে একটি মূল্যায়ন সূচক তৈরি করেছে। সূচকটিতে বিভিন্ন দেশের পাসপোর্টের মূল্যায়ন তালিকা প্রকাশ করেছে। যেখানে বাংলাদেশের অবস্থান সম্পর্কে এ তথ্য তুলে ধরা হয়েছে।সূচকটিতে বিভিন্ন দেশের পাসপোর্টের মূল্যায়ন তালিকায় বাংলাদেশের অবস্থানের অবনমন ঘটেছে।

আগে ছিল ৯৫তম স্থানে, এখন ৯৭তম নেমে এসেছে। অর্থাৎ বলা যায়, বাংলাদেশি পাসপোর্টের মূল্যায়ন ওজন কমেছে। বাংলাদেশের সঙ্গে একই সূচকে আছে লেবানন, ইরান, কসোভো। বাংলাদেশের মানুষ এখন ভিসা ছাড়াই যেতে পারেন ৩৮টি দেশে। অর্থাৎ এই দেশগুলোতে যেতে হলে দেশ থেকে ভিসার জন্য প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে যেতে হয় না; পাওয়া যায় ভিসামুক্ত সুবিধা।

শুধু পাসপোর্ট থাকলেই হয়।আন্তর্জাতিক বিমান পরিবহন সংস্থার (আইএটিএ) ভ্রমণ তথ্যভাণ্ডারের সহযোগিতা নিয়ে প্রতিবছর হ্যানলি অ্যান্ড পার্টনার্স সর্বশেষ এ সূচক তৈরি করে। দেশওয়ারি নম্বর (স্কোর) দেওয়া রয়েছে এ সূচকে। এ নম্বরটি হচ্ছে একটি দেশ আগে থেকে ভিসা ছাড়া বা আগমনী ভিসা (ভিসা অন অ্যারাইভাল) নিয়ে বিশ্বের কতটি দেশে যেতে পারেন তার ওপর নির্ভর করে।

সূচক তালিকায় সবচেয়ে শক্তিশালী পাসপোর্ট জাপান ও সিঙ্গাপুরের। দেশ দুটির পাসপোর্টেই যাওয়া যায় ১৮০টি দেশে। আর সবচেয়ে দুর্বলতম পাসপোর্টের দেশ আফগানিস্তান। দেশটির পাসপোর্টে যাওয়া যায় ২৪টি দেশে।আফগানিস্তানের ওপরেই আছে ইরাক। ভিসা ছাড়াই ২৭টি দেশে যেতে পারেন ইরাকের মানুষ। এছাড়া সিরিয়া রয়েছে ১০৩তম স্থানে। বাংলাদেশিরা যেসব দেশে ভিসামুক্ত সুবিধা পান:

এশিয়ার মধ্যে রয়েছে ভুটান, ইন্দোনেশিয়া, মালদ্বীপ, নেপাল, শ্রীলঙ্কা ও পূর্ব তিমুর।আফ্রিকার মধ্যে রয়েছে- কেপ ভার্দ, কমোরো দ্বীপপুঞ্জ, জিবুতি, গাম্বিয়া, গিনি বিসাউ, কেনিয়া, লেসোথো, মাদাগাস্কার, মরিশিয়া, মোজাম্বিক, সিসিলি, সেন্ট হেলেনা, টোগো, উগান্ডা।ক্যারিবীয় অঞ্চলের মধ্যে রয়েছে- বাহামা, বার্বাডোজ, ডোমিনিকা, গ্রেনাডা, হাইতি, জামাইকা, সেন্ট কিটস অ্যান্ড নেভিস, সেন্ট ভিনসেন্ট, ত্রিনিদাদ ও ব্রিটিশ ভার্জিনিয়া আইল্যান্ড।আমেরিকার মধ্যে রয়েছে- বলিভিয়া। এছাড়াওশেনিয়া অঞ্চলের মধ্যে কুক আইল্যান্ডস, ফিজি, মাইক্রোনেশিয়া, দক্ষিণ প্রশান্ত মহাসাগরীয় নিউই, সামাউ ও ভানুয়াতু।

সংবাদটি শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2019 newstodaybd.com
Design BY NewsTheme