এবার মুসলিমদের জন্য সৌ’দি স’রকার চালু করলো ‘হা’লাল প*তি’তালয়’

এবার মুসলিমদের জন্য সৌ’দি স’রকার চালু করলো ‘হা’লাল প*তি’তালয়’

ইসলামের শি’য়া সম্প্রদায়ের মাঝে প্রা’প্ত বয়স্ক যু’গলের প্র’ণোদনার জন্য ‘মুতা বিয়ে’ নামের একধরনের অস্থায়ী বিয়ে প্রচলিত আছে। শিয়া সমাজে ওই ধরনের চুক্তি ভিত্তিক বিয়ে স্বীকৃত এবং ধ’র্মীয় আইনসি’দ্ধ। হোটেলে মি’লনস’ঙ্গী সরবরাহের ক্ষেত্রে মুতা বিয়ের (বিনোদনের জন্য বিয়ে) ওই নিয়মই অনুসরণ করা হচ্ছে। মু’তা বিয়ের ক্ষেত্রে যুগলজীবনের সময়সীমা বিয়ের আগেই ঠিক করা হয় এবং সময় পার হওয়ার পর আপনা থেকেই বিয়ের সমা’প্তি ঘটে।

তবে ইচ্ছানুযায়ী পুনরায় বিয়ে করা যায় এবং অর্থ প্রদানের বি’ষয়টিও ঘটতে পারে, যেমনটি একজন স্বামী তার স্ত্রীকে দিয়ে থাকেন। হট ক্রিসেন্ট বা’রের হালাল প’তি’তাদেরকে প্রতি দুই মাস পর পর স্বাস্থ্য পরীক্ষা করানো হয়, যাতে করে গ্রাহকরা মি’লন সংসর্গের কারণে স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে পড়বে না এবং কেউ অ’পরাধ বোধেও ভুগবে না বলেই প্রত্যাশা হোটেল মালিকের।

দেশটির রেড লাইট এলাকায় ‘হট ক্রিসেন্ট’ নামের বারটি সম্প্রতি চালু হয়েছে। হালালভাবে মি’লনবৃত্তি চরিতার্থ করার উপায় খুঁজে বের করতে তিনজন আধুনিক মনস্ক ইমামের (ধ’র্মীয় নেতা) প’রাম’র্শ নিয়েছেন বারের মালিক জনাথন সুইক। প’রাম’র্শ অনুযায়ী, সেখানকার প’তি’তাদেরকে মা’দক সেবনে বাধ্য করা হবে না। ইসলামের নিয়মানুযায়ী দিনে পাঁচবার নামাজও পড়বে তারা।

আর খদ্দেরদেরকেও তাদের সঙ্গে ইসলামসম্মত ভাবেই যৌ’’নসম্পর্ক স্থাপন করতে হবে। কিন্তু বিয়ে ছাড়া নারী-পুরুষের মি’লন সংসর্গ ইসলাম সম্মত হবে কিভাবে? ইমামের সঙ্গে প’রাম’র্শ করে এরও একটা সমাধান বের করেছেন হোটেল ব্যবসায়ী জনাথন। এদিকে পবিত্র ওমর’াহ পালনে এ বছর ওমরা’হ যাত্রীদের ৮ হাজার থেকে ১০ হাজার টাকা বেশি গু’নতে হবে।

সৌদি সরকার ওম’রা’হর ভিসা ফি নতুন করে ৩০০ সৌদি রিয়াল সমপরিমাণ প্রায় ছয় হাজার ৬০০ টাকা আরোপ, সৌদি ওম’রাহ কোম্পানির সার্ভিস চার্জ ১০৫ রিয়াল ও ভিসা সার্ভিস বাবদ ৯৪ রিয়াল সুনির্দিষ্ট করে দেয়ার কারণে এই খরচ বৃ’দ্ধি পাবে। একই সাথে যেনতেনভাবে থাকার হোটেল ও যাতায়াতের গাড়ির বুকিং দেখিয়ে আর ভিসা করা যাবে না।

হোটেল বুকিং, যাতায়াতের টাকাও আন্তর্জাতিক ব্যাংক হিসাবের (আইবিএএন) মাধ্যমে ভিসার আবেদনের সময়ই পরিশোধ বাধ্যতামূলক। সার্ভিস প্রোভাইডিং সংস্থা মুনাচ্ছাকে ভিসা আবেদনের সময়ের মোট খরচের ২০ শতাংশ প্রদানের একটি বি’ষয় এখনো অমীমাংসিত রয়েছে। এই চার্জ আরোপ করা হলে খরচ আরো কয়েক হাজার টাকা বাড়বে। এ ক্ষেত্রে উপরি উক্ত অ’ঙ্কের অর্থ ছাড়াও হোটেল ও গাড়ি ভাড়ার টাকারও ২০ শতাংশ যুক্ত ‘হতে পারে। আজকালের মধ্যে এ বি’ষয়ে সি’দ্ধান্ত আসতে পারে।

বাংলাদেশে সফরত একটি সৌদি ওম’রাহ ব্যবস্থাপনাকারী কোম্পানির এক্সিকিউটিভ ম্যানেজার মাহির কে ফাত্তা গতকাল এক প্রশ্নের জবাবে জানান, সৌদি সরকার ওম’রাহর জন্য যে ফি ও অন্যান্য চার্জ নির্ধারণ করেছে তাতে হোটেল এবং যাতায়াতের খরচ বাদ দিয়েও আগের তুলনায় অতিরিক্ত ৩৫০ রিয়ালের কম-বেশি প্রদান করতে হতে পারে।

এতে সৌদি ওম’রাহ কোম্পানিগু’লোর কোনো হাত নেই জানিয়ে তিনি বলেন, সৌদি সরকারের নির্দেশনার বাইরে সেখানে কারো কিছু বলার থাকে না। পল্টনস্থ আবাবিল হজ গ্রুপের চেয়ারম্যান মো: আবু ইউসুফ জানিয়েছেন, এ পর্যন্ত আম’রা যা জানতে পেরেছি তাতে দেখছি এবার অন্যান্য বছরের ওম’রাহর খরচ আনুমানিক ১০ হাজার টাকা বৃ’দ্ধি পাবে বলে আম’রা মনে করছি।

বাংলাদেশে মাত্র বৈধ ওম’রাহ এজেন্সির নাম প্রকাশ করা হয়েছে। আম’রা এখন সৌদি সরকার এর সাথে পরাম’র্শ করে সৌদি কোম্পানিগু’লোর সাথে চুক্তিব’দ্ধ হয়ে বাংলাদেশের ধ’র্ম মন্ত্রণালয়, এফবিসিসিআইনসহ সংশ্লিষ্টদের অনুমোদন নিয়ে সৌদি সরকার এর হজ ও ওম’রাহ মন্ত্রণালয়ে জমা দেয়ার পরই তারা অনুমোদন দিলেই অনলাইনে মোফার জন্য আবেদন করতে পারব।

সংবাদটি শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2019 newstodaybd.com
Design BY NewsTheme