সর্বশেষ আপডেট
যে কারণে রাজশাহীতে বাড়ির কল’হে স্কুল মাঠেই দুই শিক্ষিকার মা’রামা’রি

যে কারণে রাজশাহীতে বাড়ির কল’হে স্কুল মাঠেই দুই শিক্ষিকার মা’রামা’রি

স্কুলের মাঠে মা’রামা’রি করছেন দুই শিক্ষিকা। সম্পর্কে জা ওই দুই শিক্ষিকা পারিবারিক কলহের জেরেই মা’রমা’রি করেন। মঙ্গলবার দুপুরে রাজশাহীর পুঠিয়ার গণ্ডগোহালী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে। গণ্ডগোহালী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা রাখী দেবী ভাদুড়ী বলেন, পারিবারিক বি’রোধের জেরে সহকারী শিক্ষিকা সামসুনাহার রিনা ও নুরজাহান আক্তার মিনুর মধ্যে প্রায়ই বি’বাদ লেগেই থাকতো।

আমি বিষয়টি একাধিকবার উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছি কিন্তু কোনো লাভ হয়নি। মঙ্গলবার দুপুরে টিফিন চলাকালীন সময় ওই দু’শিক্ষিকার মধ্যে মা’রামা’রি শুরু হয়। একপর্যায়ে সহকারী শিক্ষিকা নুরজাহান আক্তার মিনু মাটিতে লু’টিয়ে পড়েন। এ ব্যাপারে গ’ণ্ডগোহালী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সভাপতি ও সহকারী শিক্ষিকা নুরজাহান আক্তার মিনুর স্বামী মেয়র রবিউল ইসলাম রবি বলেন,

আমি যে এই প্রতিষ্ঠানের সভাপতি সেটা মানতে চায় না সহকারী শিক্ষিকা সামসুনাহার রিনা ও তার স্বামী আমার বড় ভাই আব্দুর রউফ। তারা প্রতিনিয়ত স্কুলে একক প্রভাব বিস্তারের চেষ্টা চালায়। বিষয়টি আমি উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস ও আইন-শৃঙ্খলা সভায় একাধিকবার বলেছি। কিন্তু তারা কোনো সুরাহা করেনি। তিনি আরো অভি’যোগ করেন, আমার স্ত্রী ছয় মাসের অ’ন্তঃসত্ত্বা। তাকে সবার সামনে মা’রধর করা হয়েছে।

অতিরিক্ত র’ক্তক্ষ’রণের কারণে চিকিৎসকরা তার গ’র্ভের বাচ্চা নিয়ে শ’ঙ্কা প্রকাশ করছেন।এ বিষয়ে পুঠিয়া উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মীর মোহাম্মদ মামুন অর রশিদ বলেন, পারিবারিক বিষয় নিয়ে স্কুলে দুই শিক্ষিকার মধ্যে হা’তাহা’তির বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। এ ব্যাপারে পুঠিয়া থানার ওসি রেজাউল ইসলাম বলেন, গ’ণ্ডগোহালী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দুই শিক্ষিকার মধ্যে মা’রামা’রির বিষয়টি শুনেছি। সহকারী শিক্ষিকা নুরজাহান আক্তার মিনু অপর এক শিক্ষিকা ও তার স্বামীকে আ’সামি করে থানায় একটি অ’ভিযোগ দিয়েছেন। আমরা বিষয়টি তদ’ন্তপূর্বক আইনী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আজকের আলোচিত খবর… ক্লাসে সবার সামনে ছাত্রীকে জড়িয়ে ধরে চুমু । (ভিডিও ভাইরাল)। দুই ক্লাসের বিরতিতে সবার সামনে শ্রেণিকক্ষের বেঞ্চে বসে এক ছাত্রীকে জ’ড়িয়ে ধরে ছাত্রের চু’মু খাওয়ার একটি ভিডিও এখন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল। ভারতের গুজরাটের গোধরার এক স্কুলে প্রেমিক-প্রেমিকার এই চু’মুর ভিডিও প্রকাশ্যে আসার পরই কর্তৃপক্ষ বিষয়টি নিয়ে তদ’ন্ত করছে। ভারতীয় গণমাধ্যম সংবাদ প্রতিদিন’র এক প্রতিবেদনে বলা হয়, ওই ঘটনাটি গুজরাটের গোধরার মোরভা হাদফ এলাকার কুরশিকার স্কুলের।

বেশ কিছুদিন ধরেই প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে একাদশ শ্রেণির ওই ছাত্রী এবং দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্রের। স্কুলেই তাদের দুজনের মধ্যে পরিচয় এবং প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে।ভাইরাল হওয়া ভিডিওটিতে দেখা যায়, শ্রেণিকক্ষে কয়েকজন শিক্ষার্থীর উপস্থিতিতে ওই প্রেমিক-প্রেমিকা বেঞ্চে বসে একে অপরকে জ’ড়িয়ে ধরে চু’মু খাচ্ছেন। এ সময় পাশ থেকে তাদের সেই ঘটনার ভি’ডিও করলেও তারা সেদিকে খেয়াল করেনি।

পরে সেই ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রকাশ করলে কিছু’ক্ষণের মধ্যেই তা ভাই’রাল হয়ে যায়। ভিডি’ওটি প্রকাশ্যে আসতেই নড়েচড়ে বসে স্কুল কর্তৃপক্ষ। তবে দ্রুত কোনো পদক্ষে’প নিতে চাচ্ছেন না তারা। স্কুল কর্তৃপ’ক্ষ জানায়, ক্লাস চলাকালীন ওই ঘটনা ঘটেনি। দুই ক্লাসের বিরতিতে প্রেমিকাকে জ’ড়িয়ে ধরে চু’মু খায় তার প্রেমিক।এ বিষয়ে গোধরার জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা বিএস পাঞ্চাল বলেন, ওই ছাত্র ও ছাত্রীর চু’ম্ব’নের ভিডিও সামনে আসার পর আমরা মোরভা হাদফের ওই স্কুল কর্তৃপক্ষের কাছে বিষয়টি নিয়ে বিস্তারিত তথ্য চেয়েছি।

স্কুলের প্রিন্সিপাল আমাদের জানিয়েছেন, ঘটনাটি ক্লাসের বিরতিতে ঘটেছে। স্কুলের প্রিন্সিপাল বলেন, এ বিষয়ে স্কুল কর্তৃপক্ষ এবং ওই দুই শিক্ষার্থীর সহপাঠীদের জিজ্ঞাসাবাদের প্রক্রিয়া চলছে। ওই দুই শিক্ষার্থীর বাড়িতেও পুরো ঘটনা জানানো হয়েছে। পুরো বিষয়টি স্পষ্ট হওয়ার পরই এ নিয়ে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন

সংবাদটি শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2019 newstodaybd.com
Design BY NewsTheme