সর্বশেষ আপডেট
সালাম না দেয়ায় শিশুকে পেটানো সেই ছা;ত্রলী;গ নেতা আ;টক ভালোবেসে ২ মাস আগে বিয়ে, স্বামীর দুই ঘণ্টা পর মারা গেলেন স্ত্রীও ২৪ বছর পর দেশে ফিরেই সড়ক দু;র্ঘট;নায় প্রাণ হারালেন প্রবাসী এবার টাঙ্গাইলে নবম শ্রেণির ছাত্রীকে ধ’র্ষণ করলেন শিক্ষক মেয়ের ধ’র্ষণের বি’চার পাননি, উল্টো মিথ্যা মামলায় হাজিরা দিচ্ছেন স্বপন মামা খোঁ’জ মিলল টিকটকার সেই জাসমিনের, যে কারণে ছেড়েছিলেন ঘর এবার মুসলিমদের জন্য সৌ’দি স’রকার চালু করলো ‘হা’লাল প*তি’তালয়’ পদত্যাগ করলেন রাশিয়া সরকার মুসলিমদের স্বার্থে আর্থিক ক্ষ;তিকে ভয় পায় না মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী মালয়েশিয়া থেকে পাম তেল কিনবে না, তবুও ভারতের ‘বি;প;ক্ষে অ;নড়’ মাহাথির
মেয়ের ধ’র্ষণের বি’চার পাননি, উল্টো মিথ্যা মামলায় হাজিরা দিচ্ছেন স্বপন মামা

মেয়ের ধ’র্ষণের বি’চার পাননি, উল্টো মিথ্যা মামলায় হাজিরা দিচ্ছেন স্বপন মামা

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্রের (টিএসসি) পরিচিত মুখ চা বিক্রেতা স্বপন মামা। প্রকৃত নাম আব্দুল জলিল হলেও, টিএসসিতে সবার কাছে স্বপন মামা নামেই তিনি অধিক পরিচিত।প্রায় চার দশক ধরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় চা বিক্রেতা হিসেবে কাটানো আব্দুল জলিল তার মেয়েকে ধ’র্ষণের বিচার পাননি, বিচার চাইতে গিয়ে উল্টো তার বিরু’দ্ধেই হয়রা’নিমূলক মা’মলা দা’য়ের করা হয়েছে।

গত ৯ জানুয়ারি বিকালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে ঢাবি শিক্ষার্থীকে ধ’র্ষণের প্রতি’বাদে শিক্ষার্থীদের এক মানবব;ন্ধনের আয়োজন করলে সেখানে এসে সংহতি প্রকাশ করেন আব্দুল জলিল ওরফে স্বপন মামা। সংহতি প্রকাশের সময় বক্তব্য দিতে গিয়ে নিজের মেয়ের ধ’র্ষণের কথা বলে কেঁ’দে ফেলেন তিনি।

এবার টিএসসির সেই চা বিক্রেতা ‘স্বপন মামা’র পাশে এসে দাঁড়ালো বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি-ভিত্তিক সব সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠন ও ডাকসুর নেতারা। গতকাল বুধবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির (ডুজা) ক’ক্ষে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলন থেকে স্বপন মামার মেয়ের ধ’র্ষকের সর্বোচ্চ শা’স্তি দা’বি করা হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন ঢাবি সাংবাদিক সমিতির সভাপতি আবির রায়হান। তিনি বলেন, টিএসসি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণ, বাংলাদেশের সাংস্কৃতিক মিলন কেন্দ্র। স্বপন মামা এই টিএসসি পরিবারের একজন। তিনি টিএসসিতে চা বিক্রি করেন। কয়েক যুগ ধরে টিএসসিতে চা বিক্রি করতে করতে তিনি টিএসসির একটি অবি’চ্ছেদ্য অংশ হয়ে উঠেছেন।

তার চায়ের কাপ হাতে আমরা স্বপ্ন বুনি, গান গাই। আন্দোলন-সংগ্রাম, আনন্দ-আবেগ, প্রেম-বি’রহ ইত্যাদি আমাদের জীবনের বিচিত্র নানা গল্পের সারথি স্বপন মামার চা। টিএসসি মনে মাথা উঁচু করে বাঁচা। প্রগতিশীলতা, সুস্থ সংস্কৃতির অ’গ্রযাত্রা, সুন্দর সমাজ বিনির্মাণে সদা জাগ্রত এই প্রাঙ্গণ। অথচ এই জগ্রত পরিবারের সুদীর্ঘকালের সারথি স্বপন মামাই আজ একজন নি’র্যাতি’ত মানুষের নাম।

তিনি বলেন, স্বপন মামার মান’সিক ভারসা’ম্যহীন মেয়েকে গত বছর ধ’র্ষণ করে তার গ্রামের এক ল’ম্পট। বি’চার চাইতে থা’নায় মা’মলা করেন ব্যথিত পিতা, আমাদের স্বপন মামা। অভি’যুক্ত ধ’র্ষকের গে’ফতার হওয়ার পর সুবিচার পাওয়ার দিন গুনলেন স্বপন মামা ও তার পরিবার। অথচ সম্প্রতি জামিনে ছাড়া পেয়ে সেই অভিযু’ক্ত ধ’র্ষক উল্টো স্বপন মামা ও তার ছেলের নামে মি’থ্যা,

হয়রা’নিমূলক মা’দকের মা’মলা করেছে। সার্বভৌম দেশের স্বাধীন বিচারব্যবস্থার কাছে নাবালিকা মেয়ের ধ’র্ষণের বিচারপ্রার্থী বাবা উল্টো নিয়মিত হেন’স্থার শি’কার হচ্ছেন ধ’র্ষকের সাজানাে মি’থ্যা মাম’লায়। মেয়ের প্রতি জঘ’ন্য অ’বিচারের বিরু’দ্ধে বিচার পেতে দেশের বিচার ব্যবস্থার কাছে গেলেন বাবা, অথচ বিনিময়ে হলেন মিথ্যা মা’মলার আ’সামি।

এখন তাকে নিয়মিত পুলিশ আদালতে হাজির হতে হয়। মেয়ের বিচারের দাবিতে নয়, নিজের বিরু’দ্ধে করা হয়রা’নিমূলক প্রকাশ্য মি’থ্যা মা’মলার আ’সামি হিসেবে হাজিরা দিতে।” টিএসসি সব সময়ই সামাজিক অনা’চারের বিরুদ্ধে সদা তৎপর উল্লেখ করে ডুজার সভাপতি বলেন, ধ’র্ষণ ও নি’পীড়’নের বিরু’দ্ধে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের প্রতিনিধি হয়ে আমরা,

টিএসসির সকল সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠন ঐক্যব’দ্ধভাবে আন্দো’লন করে আসছি বহুবছর ধরে। আমাদের পরিবারের অংশীজন, আমাদের আত্ম’জ স্বপন মামার জীবনে ঘটে যাওয়া এ ঘটনায় আমরা যারপরনাই ম’র্মাহ’ত। সদা হাস্যোজ্জ্বল, ক্যাম্পাসের যুগ যুগান্তরের প্রিয়মুখ স্বপন মামার মেয়ে, আমাদের ছোটবোনের সাথে ঘটে যাওয়া

এ পৈশাচিক অপ’রাধের বিরু’দ্ধে আমরা তী’ব্র নি’ন্দা জানাচ্ছি। আমরা ধ’র্ষকের সর্বো’চ্চ শা’স্তি দাবি করছি। এদিন সংবাদ সম্মেলন থেকে টিএসসি কেন্দ্রিক সাংস্কৃতিক সংগঠনগুলো আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে মানববন্ধন কর্মসূচি ঘোষণা করে। এছাড়া বিকেল ৩টায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও প্রতিবাদ কর্মসূচি ঘোষণা করে।উল্লেখ্য, ২০১৮ সালের ১৯ সেপ্টেম্বর

‘স্বপন মামা’র প্রতিব’ন্ধী মেয়েকে একই গ্রামের বাচ্চু মিয়া (৭০) ধ’র্ষণ করে বলে অভি’যোগ পাওয়া যায়। ওইদিনই অভিযুক্তসহ তার দুই ভাই বাহার ও আক্কাসকে আ’সামি করে মা’মলা করার পর বাচ্চু মিয়াকে গ্রে’প্তার করে পুলিশ। এর ছয় মাস পর অভিযো’গপত্র জমা দেয়া হলেও ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নারী ও শিশু নি’র্যা’তন দ’মন ট্রাইব্যুনাল থেকে আ’সামি ২৭ নভেম্বর জা’মিন পান।

এরপর আসা’মিপক্ষের লোকজন স্বপন, তার ছেলে রনি এবং চাচাতো ভাইকে আ’সামি করে প্রথমে মা’দকের ও ডা’কাতির মাম’লা করে।অভি’যোগ উঠেছে, বাহ্মণবাড়িয়া সদরের বাসুদেব গ্রামের সেই বাচ্চু মিয়া এখন আরও বেপরো’য়া। মামলা তুলে নিতে ‘স্বপন মামা’ এবং তা পরিবারকে নানা ধরণের হু’মকি-ধা’মকি দিচ্ছেন। এমনকি পরিবারের অন্য সদস্যদের সঙ্গেও একই ধরণের কাজ করার হু’মকি দিচ্ছেন তারা। এতে ন্যা’য়বি’চার পাওয়া থেকে তারা ব’ঞ্চিত হতে পারেন বলে শ’ঙ্কায় পরেছে স্বপন মামা ও তার পরিবার।

সংবাদটি শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2019 newstodaybd.com
Design BY NewsTheme