সর্বশেষ আপডেট
প্রেমিককে পেতে কনকনে শীতে ভারত থেকে বাংলাদেশে আসলো ১৪ বছরের কিশোরী । আমাদের নিয়ে আযহারী হুজুর ছাড়া আর কেউ এমন কথা বলেনিঃ হিজড়া প্রধান । প্রভাকে বিয়ে করলেন ইন্তেখাব দিনার । বিয়েতে সৌদি নারীদের পছন্দের শী’র্ষে বাংলাদেশি পুরু’ষরা । আজ ১৯/০১/২০২০ তারিখ, দিনের শুরুতেই দেখে নিন আজকের টাকার রেট কত । দেহ ব্যবসা করতে করতে যেভাবে আন্ডারওয়ার্ল্ড ডন হলেন আলিয়া । শারীরিক সম্পর্কে মোটা পুরুষেরা বেশি সক্রিয়, বলছে গবেষণা । ওয়াজে তারেক মনোয়ারের বক্তব্য নিয়ে ফেসবুকে তুমুল আলোচনা । পরকীয়া প্রেমিকের সঙ্গে হোটেলে গিয়ে যেভাবে খু’ন করা হল গৃহবধূকে । ফেব্রুয়ারির ১ তারিখে হচ্ছেনা এসএসসি পরীক্ষা ।
মাঝেমাঝে দৈ’হিক স’ম্পর্ক, বিয়ের দাবীতে প্রেমিকের বাড়িতে প্রেমিকা

মাঝেমাঝে দৈ’হিক স’ম্পর্ক, বিয়ের দাবীতে প্রেমিকের বাড়িতে প্রেমিকা

রাজশাহীর গোদাগাড়ীতে বিয়ের দাবীতে সারাদিন ধরে প্রেমিকের বাড়ীতে অবস্থান করছে এক প্রেমিকা। জানা গেছে গোদাগাড়ী উপজেলার কৃষ্ণ বাটি কালিদিঘি গ্রামের দরিদ্র কৃষক এন্তাজ আলীর মেয়ে ইসমতারা খাতুনকে প্রেমের ফাঁদে ফেলে দৈহিক সম্পর্ক স্থাপন করেন উপজেলার ফরাদপুর গ্রামের মৃত এমদাদুল হকের ছেলে খাইরুল ইসলাম। বর্তমানে মেয়েটির পরিবার বিয়ের জন্য ছেলের পরিবারকে চাপ দিলে সম্পর্কের কথা অস্বীকার করেন ছেলেটি।

ফলে বুধবার (৮ জানুয়ারি) সকালে প্রেমিক খাইরুল ইসলামের বাড়ীতে অবস্থান নেন ইসমতারা। সেই থেকে বিয়ের দাবীতে প্রেমিকের বাড়ীতে রয়েছে ইসমতারা। এ বিষয়ে ইসমতারা বলেন, আমরা রাজশাহী নিউ গভঃ ডিগ্রি কলেজে অনার্স ৩য় বর্ষে পড়াশোনা করি। গত চার বছর ধরে আমাদের প্রেমের সম্পর্ক তারপর মাঝেমাঝে আমাদের দৈহিক সম্পর্ক হয়। এর আগে গত দেড় বছর আগে আমি খাইরুল ইসলামের বাড়িতে জানালে তার মা দেলখোস বেগম এবং মামা আব্দুল কাদির আমাকে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে বাড়ি থেকে পাঠিয়ে দেন।

আজ সকালে বিয়ের দাবীতে খাইরুলের বাড়ী আসলে তার মা ও ভাই আমাকে মেরে বাড়ী থেকে বের করে দেই তারপর থেকে বাড়ীর বাইরেই বসে আছি। খাইরুলের সাথে বিয়ে না দিলে আমি এখান থেকে যাব না। এ বিষয়ে খায়রুল ইসলামের সঙ্গে মুঠোফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করলে তার ফোন নাম্বারটি বন্ধ পাওয়া যায়। খাইরুল ইসলামের মা দেলখোস বলেন আমার ছেলের সাথে এই মেয়ের কোন ধরনের সম্পর্ক নাই শুধু একই ক্লাসে পড়ে বলে বই হ্যান্ডনোট ইত্যাদি লেনদেন হতো তারা ভাল বন্ধু মাত্র।

মাটিকাটা ইউনিয়নে পরিষদের চেয়ারম্যান আলী আজম তৌহিদ প্রেমিকের বাড়ীতে প্রেমিকার অবস্থানের কথা নিশ্চিত করে জানান উভয় পরিবারের মধ্যে আলাপ আলোচনার মাধ্যমে বিষয়টি মিমাংসার চেষ্টা করা হচ্ছে। প্রেমতলি পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ আব্দুল বারী বলেন, একটি মেয়ে ফরাদপুর এলাকায় প্রেমিকের বাড়িতে অবস্থান করছেন ছেলের মায়ের কাছে শুনেছি। তবে কোন অভিযোগ করলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করব।

সংবাদটি শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2019 newstodaybd.com
Design BY NewsTheme