সর্বশেষ আপডেট
প্রেমিককে পেতে কনকনে শীতে ভারত থেকে বাংলাদেশে আসলো ১৪ বছরের কিশোরী । আমাদের নিয়ে আযহারী হুজুর ছাড়া আর কেউ এমন কথা বলেনিঃ হিজড়া প্রধান । প্রভাকে বিয়ে করলেন ইন্তেখাব দিনার । বিয়েতে সৌদি নারীদের পছন্দের শী’র্ষে বাংলাদেশি পুরু’ষরা । আজ ১৯/০১/২০২০ তারিখ, দিনের শুরুতেই দেখে নিন আজকের টাকার রেট কত । দেহ ব্যবসা করতে করতে যেভাবে আন্ডারওয়ার্ল্ড ডন হলেন আলিয়া । শারীরিক সম্পর্কে মোটা পুরুষেরা বেশি সক্রিয়, বলছে গবেষণা । ওয়াজে তারেক মনোয়ারের বক্তব্য নিয়ে ফেসবুকে তুমুল আলোচনা । পরকীয়া প্রেমিকের সঙ্গে হোটেলে গিয়ে যেভাবে খু’ন করা হল গৃহবধূকে । ফেব্রুয়ারির ১ তারিখে হচ্ছেনা এসএসসি পরীক্ষা ।
ঢাবি অধ্যাপক জোবাইদা নাসরীনকে ছাত্র;লীগের মার;ধর

ঢাবি অধ্যাপক জোবাইদা নাসরীনকে ছাত্র;লীগের মার;ধর

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নৃবিজ্ঞান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. জোবাইদা নাসরীন ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের হাতে মা’রধর ও লা’ঞ্ছনার শি’কার হয়েছেন। এ ঘটনায় সোমবার (০৬ জানুয়ারি) বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য, শিক্ষক সমিতির সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকসহ হলের প্রাধ্যক্ষ বরাবর লিখিত অভি’যোগ দিয়েছেন তিনি। রোববার (০৫ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব হলে এ ঘটনা ঘটে বলে দাবি করেন ওই হলের সহকারী আবাসিক শিক্ষক জোবাইদা নাসরীন।

এ বিষয়ে অধ্যাপক জোবাইদা নাসরীন সময় সংবাদকে বলেন, ‘ঘটনাটির সূত্রপাত হয়েছে জানুয়ারির তিন তারিখ রাতে। ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীকে কেন্দ্র করে শাড়ি দেওয়া নেওয়া নিয়ে। ছাত্রলীগের কারেন্ট সেক্রেটারি রওনক এবং ভাইস প্রেসিডেন্ট সালসাবিলের মধ্যে হা’তাহাতি হয়। সেই ঘটনা আমাদের প্রভোস্টকে জানানো হয়। ওই সময় আমি অ’সুস্থ থাকায় আমাদের কিচেন হাউজস্টেট ওখানে যায়। তখন ছাত্রলীগের প্রেসিডেন্ট নিশি বলেন মী’মাংসা হয়ে গেছে।’

‘তারপর গত পরশুদিন রোববার (০৫ জানুয়ারি) রাতে হল থেকে আমাকে জানানো হয় হলে দুই পক্ষ মা’রামা’রি করছে। আমরা খবর পেয়ে গিয়ে দেখি দুপক্ষের একদফা মা’রামা’রি হেয়ে গেছে। তখন ছাত্রলীগের প্রেসিডেন্ট-সেক্রেটারি আমাদের রুম থেকে বের করে দিলেন। বললেন আমরা মিটিং করে মীমাংসা করে নিবো। আমরা বাইরে দেখে বুঝতে পারছিলাম ছাত্রলীগের সঙ্গে যাদের মা’রামা’রি হয়েছে তারে দুইটা মেয়েকে তারা মা’রবে। শিক্ষক হিসেবে তাদের সেভ করা আমাদের দায়িত্ব।

আমরা তখনেই নিচে নামলাম, দেখি একটি মেয়েকে রুম থেকে মা’রতে মা’রতে বের করে নিয়ে আসছে। আমি তাকে জ’ড়িয়ে ধরলাম। আমি তখন বললাম, তোমরা কেউ গায়ে হাত দিবানা, গায়ে হাত দিলে শা’স্তি দিবো। তখন মেইনগেট বন্ধ করে দিয়ে মেয়েটিকে মা’রা শুরু করে, সে সময় আমাকেও চুল ধরে মাটিতে ফে’লে দেয়। কয়েকজন মিলে আমাকে আ’ক্রম’ণ করে। কেউ চুলে ধরে, কেউ আমাকে খা’মচি দেয়।’

ঘটনার সুষ্ঠু বি’চার দাবি করে তিনি বলেন, তাদের মা’রধরের কারণে আমার ঘাড় ফু’লে গেছে এবং আমার পায়ে প্রচ’ণ্ড ব্য’থা। আমি চিকিৎসা নিচ্ছি। তিনি আরো বলেন, শিক্ষক হিসেবে আমার কাছে সব ছাত্রছাত্রী সমান। কে ছাত্রলীগ, ছাত্রদল ছিলো সেটা আমি বলতে চাইনা। আমাদের দায়িত্ব কোন ছাত্রীকে আ’ক্রমণ করলে তাকে যেমন উ’দ্ধার করা, তেমনি আমাকে কেউ আ’ক্রমণ করলে দল-মত নি’র্বিশেষে তার বি’চার চাওয়া।

এবং আমি সুষ্ঠ বি’চার চাই। উল্লেখ্য, ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে শাড়ি বিতরণ নিয়ে রোববার রাতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফজিলাতুন্নেছা মুজিব হলে দু’পক্ষে মা’রামা’রির ঘটনা ঘটে। এতে ছাত্রলীগের হল সংসদের বহিঃক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক পাপিয়া আক্তার, হল সংসদের সমাজসেবা সম্পাদক ইসরাত জাহান ইতি ও মিলি রাণী আ’হত হন।

সংবাদটি শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2019 newstodaybd.com
Design BY NewsTheme