সর্বশেষ আপডেট
প্রেমিককে পেতে কনকনে শীতে ভারত থেকে বাংলাদেশে আসলো ১৪ বছরের কিশোরী । আমাদের নিয়ে আযহারী হুজুর ছাড়া আর কেউ এমন কথা বলেনিঃ হিজড়া প্রধান । প্রভাকে বিয়ে করলেন ইন্তেখাব দিনার । বিয়েতে সৌদি নারীদের পছন্দের শী’র্ষে বাংলাদেশি পুরু’ষরা । আজ ১৯/০১/২০২০ তারিখ, দিনের শুরুতেই দেখে নিন আজকের টাকার রেট কত । দেহ ব্যবসা করতে করতে যেভাবে আন্ডারওয়ার্ল্ড ডন হলেন আলিয়া । শারীরিক সম্পর্কে মোটা পুরুষেরা বেশি সক্রিয়, বলছে গবেষণা । ওয়াজে তারেক মনোয়ারের বক্তব্য নিয়ে ফেসবুকে তুমুল আলোচনা । পরকীয়া প্রেমিকের সঙ্গে হোটেলে গিয়ে যেভাবে খু’ন করা হল গৃহবধূকে । ফেব্রুয়ারির ১ তারিখে হচ্ছেনা এসএসসি পরীক্ষা ।
বিশ্বের সর্বোচ্চ সংখ্যক ৩১৯৯ বার ওমরাহ পালনকারী হিসেবে রেকর্ড করেছেন সৈয়দ দিলনাওয়াজ শাহ ।

বিশ্বের সর্বোচ্চ সংখ্যক ৩১৯৯ বার ওমরাহ পালনকারী হিসেবে রেকর্ড করেছেন সৈয়দ দিলনাওয়াজ শাহ ।

ওমরাহ করা হজের তুলনায় যথেষ্ট সহজ। কিন্তু একজন মানুষ সর্বোচ্চ কয়টি ওমরাহ করতে পারেন? ৫, ১০, ২০, ৫০ কিংবা সর্বোচ্চ ১০০টি! আশ্চর্যজনক হলেও সত্য যে, এক পাকিস্তানি ভদ্রলোক মোট ওমরাহ করেছেন ৩ হাজার ১৯৯টি। এমন কীর্তি ও সৌভাগ্যের অধিকারী ব্যক্তির নাম সৈয়দ দিলনাওয়াজ শাহ। পাকিস্তানের সংবাদমাধ্যম ‘দ্য নেশন’ এমনটাই জানিয়েছে।

এতগুলো ওমরাহ তিনি গত সতের বছরের বিভিন্ন সময়ে আদায় করেছেন। বোদ্ধাদের ধারণা মতে, এমন সাফল্য ও সৌভাগ্য হয়তো আর কারো নেই। বিশ্বের সর্বোচ্চ সংখ্যক ওমরাহ পালনকারী হিসেবে এমন চমৎকার ও সম্মানজনক অর্জনে তিনি রেকর্ড করেছেন।

পবিত্র মক্কা শরিফে রমজানের বরকতময় মাস কাটানোর পর বৃহস্পতিবার (০৬ জুন) তিনি নিজ শহর করাচিতে ফিরে আসেন। মক্কায় থাকাকালীন তিনি দৈনিক ৩টি করে ওমরাহ পালন করেন। এভাবে সব মিলিয়ে প্রায় ৫ ডজন ওমরাহ সম্পন্ন করেছেন এ পবিত্র মাসে। এরপর রমজানের শেষ দশদিন তিনি মদিনা মুনাওয়ারায় পবিত্র মসজিদে নববীতে অতিবাহিত করেন।

সৈয়দ দিলনাওয়াজ ছয় সন্তানের পিতা। ২০১২ সালে অবসর গ্রহণের আগ পর্যন্ত তিনি করাচির একটি গ্যাস কোম্পানির ডেপুটি ম্যানেজার ছিলেন। গত ১৭ বছরের সময়কালে তিনি প্রায় প্রতি বছর একবার করে সৌদি আরব সফর করছেন।

সর্বাধিক সংখ্যক ওমরাহ পালনকারী সম্পর্কিত কোনো তথ্য নেটে সার্চ দিয়ে পাওয়া যায় না। পারিপার্শ্বিক অন্যান্য তথ্য-উপাত্তেও এমন কোনো হিসেব উল্লেখ নেই। সে সূত্রে ধারণা করা হয়, সৈয়দ দিলনাওয়াজ শাহ-ই সর্বোচ্চ ওমরাহ পালনকারী।

অন্যদিকে, গত ২০ বছর ধরে তিনি টানা প্রতিদিন রোজা রাখছেন। তবে নিষিদ্ধ (ইসলামে) দিনের সময়ে তিনি রোজা রাখেন না। ১৯৯৯ সালের জুন থেকে এত দীর্ঘ সময় রোজা রাখা শুরু করেছেন তিনি।

সংবাদটি শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2019 newstodaybd.com
Design BY NewsTheme