৩ ছেলের যে দ্ব’ন্দ্বের জন্য কুকুর পা;হারা ছিলো বাবার লা’শ…

৩ ছেলের যে দ্ব’ন্দ্বের জন্য কুকুর পা;হারা ছিলো বাবার লা’শ…

তিন সন্তান রেখে পৃথিবী ত্যাগ করলেন বাবা। কিন্তু মৃ’ত্যুর আগে বড় দুই ছে’লের মাঝে নিজের সম্পত্তি ভাগ করে দিয়েছিলেন। বঞ্চিত করেন ছোট ছে’লেকে। তাই মৃ**’ত্যুর পর বাবার লা*’শ দাফনে বাঁধ সাধলেন ছোট ছে’লে। শোকাহত পরিবারকে সান্তনা দিতে একত্রিত হয়েছিল আত্মীয় স্বজন ও প্রতিবেশিরা। কিন্তু তখনও বেওয়ারিশভাবে পড়ে থাকে বাবার লা’*শ।

তিন ভাইয়ের মাঝে চলছে জমিজমা ভাগাভাগি নিয়ে দ্বন্দ্ব। এদিকে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ‘কুকুর পাহারা দিচ্ছে লা*’শ!’ শিরোনামে একটি পোস্ট অনেকে শেয়ার করছিলেন। এটির সূত্র ধরে বিষয়টি অনুসন্ধানে । পরে জমিজমা ভাগাভাগি নিয়ে ছে’লেদের দ্বন্দ্বের জেরে বাবার লা’শ দাফনে বাঁ’ধা দেয়ার সত্যতা পাওয়া গেলেও
‘কুকুর পাহারা দিচ্ছে লা’শ’ এ বিষয়ে কোন কিছু নিশ্চিত করতে পারেননি ইউপি সদস্য ও ইউনিয়নের চেয়ারম্যান।

অনুসন্ধানে জানা গেছে, বরিশালের বাকেরগঞ্জ উপজে’লার দাড়িয়াল ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডে এ ঘটনা ঘটেছে। গত সোমবার (৩০ ডিসেম্বর, ২০১৯) বার্ধক্য জনিত কারণে মৃ’*ত্যুবরণ করেন আবুল হাসেম খান (৮৫)। মৃ’*ত্যুর আগে বড় দুই ছে’লেকে সম্পত্তি ভাগ করে দিয়েছিলেন বলে জানান ইউনিয়নের চেয়ারম্যান। আর বঞ্চিত করা হয় ছোট ছে’লেকে। পরে ছে’লেদের মধ্যে জমিজমা ভাগাভাগি নিয়ে বিবাদ হলে বাবার লা’শ দাফন করতে বাধা দেয়া হয়।

দ্বন্দ্বের এক পর্যায়ে রাস্তার পাশে ম’সজিদের সামনে বাবার লা’শ ফেলে চলে যায় ছে’লেরা— এ অ’ভিযোগ করছেন অনেকে। তবে ওই সময় এলাকার লোকজন ও আত্মীয় স্বজন উপস্থিত ছিলেন বলে জানায় ইউপি সদস্য। পরবর্তীতে রাতে ছে’লেরা এসে বাবার লা’শ আবার বাড়িতে নিয়ে যায়। এরমাঝেই এলাকার গণ্যমান্য ব্যাক্তিদের হস্তক্ষেপে ছে’*লে*দের মধ্যে সমঝোতা হয়। পরেরদিন মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১০টায় মৃ’ত আবুল হাসেম খানের লা*’শ দা**ফন করা হয়েছে।

পরিবারের সদস্য, আত্মীয় স্বজন ও এলাকাবাসীরা জানাজার নামাজে অংশগ্রহণ করেন। ২নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য শহিদুল ইস’লাম বলেন, বাবার মৃ’ত্যুুর পর জমিজমা ভাগাভাগি নিয়ে দ্বন্দ্ব শুরু হয় ছে’লেদের মধ্যে। এ কারণে লা’শ দাফনে বাধা দেয়া হয়েছে। জানাজার জন্য প্রথমে ম’সজিদে লা’শ আনা হলেও জানাজার নামাজ পড়তে দেয়া হয়নি। একপর্যায়ে ছে’লেরা লা’শ বাড়িতে নিয়ে যায়। পরেরদিন এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিদের স;ম;ঝো;তায় জা;নাজা পড়ে লা’*শ দা*ফন করা হয়েছে।

তবে ফেসবুকে ভা;ইরাল হওয়া একটি খাটিয়ার পাশে কু*কুর ছাড়া অন্য কাউকে দেখা যাচ্ছে না— এ বিষয়ে ওই ইউপি সদস্য কিছু জানাতে পারেননি। এদিকে ওই ঘটনার সময় এলাকায় ছিলেন না বলে জানান ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এম এ জববার বাবুল। তবে তিনি বিষয়টি শুনেছেন এবং ইউপি সদস্য ও এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিদের সহযোগিতায় ছে’লেদের মধ্যে সমাধান করে দেয়া হয়েছে বলেও জানান। তিনিও ফেসবুকে ভাইরাল হওয়া সেই খাটিয়ার পা*শে কু*কুরের বিষয়টি স’ম্পর্কে কিছু জানাতে পারেননি।

সংবাদটি শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2019 newstodaybd.com
Design BY NewsTheme